রবিবার, ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সেই কষ্টটা এখনো ভোলেননি তাসকিন

news-image

ক্রীড়া ডেস্কএকটা বছর হয়ে গেল!

কিন্তু সেই কষ্টটা এখনো ভুলতে পারেন না তাসকিন আহমেদ। ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে অভিষেকেই ঝড় তুলেছিলেন গতির। বৃষ্টির কারণে ৪১ ওভারে নামিয়ে নিয়ে আসা ম্যাচে ৮ ওভার বল করেই ২৮ রানে সাজঘরে ফেরত পাঠিয়েছিলেন ৫ ভারতীয় ব্যাটসম্যানকে। ওয়ানডে ইতিহাসে অভিষেকেই অন্যতম সেরা কীর্তিটি গড়েও আক্ষেপে পুড়েছিলেন। ভারতকে ১০৫ রানে অলআউট করে দিয়েও বাংলাদেশ সেদিন পড়েছিল ৫৮ রানে গুটিয়ে যাওয়ার লজ্জায়। ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বহীনতায় অর্জন ম্লান হওয়ার সেই কষ্টটা আজও বুকে বয়ে নিয়ে বেড়ান দেশের ক্রিকেটের গতি-বলের অন্যতম এই বিজ্ঞাপন।

সেদিনের সেই বলটি শোকেসে উঠিয়ে রেখেছেন যত্ন করেই। বলটায় চোখ পড়লে যতটা না আনন্দ হয়, তার চেয়ে অনেক বেশি হয় আফসোস। ইশ, যদি ম্যাচটা বের করে নিয়ে আসতে পারত ব্যাটসম্যানরা! কিছু দিন আগেই বলেছিলেন নিজের টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে অভিষেকের আফসোসের কথা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি অভিষেকেও বল করেছিলেন নজর-কাড়া। কিন্তু দল হেরেছিল বড় ব্যবধানেই। ওয়ানডে অভিষেকেও একই অবস্থা। পুরো ব্যাপারটিকেই নিজের ‘দুর্ভাগ্য’ হিসেবে অভিহিত করেছিলেন তাসকিন।

ওয়ানডে অভিষেকের তিক্ত-মিষ্টতা সম্পর্কে বলতে গিয়ে তাসকিনের গলায় একরাশ আক্ষেপ। সেটা শুধুমাত্র দলের সাফল্য না আসাতেই। জানিয়েছেন ব্যক্তিগত সাফল্যের চাইতেও দলীয় সাফল্য তাঁর কাছে অনেক বড় ব্যাপার, ‘স্বাভাবিকভাবেই ৫ উইকেট পাওয়াতে ভালো লাগছিল। তবে ম্যাচটা হারার কারণে ৫ উইকেট পাওয়ার মজাটা হালকা হয়ে গিয়েছিল। হারার পর খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। আমার কাছে দলের সাফল্যই বড়। ৫ উইকেট নিলাম, কিন্তু দল হারল; সেটার কোনো তাৎপর্য নেই। আবার এক উইকেট নিলাম এবং ওই উইকেটটা নেওয়ায় দল জিতল, এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কিছু নেই। দলের জয়ই সবচেয়ে বড় জিনিস।’

ওয়ানডের সেই দুর্দান্ত অভিষেকের ঠিক এক বছর পর সামনে আবারও সেই ভারত। এবার কী অভিষেক-দিনের সেই আক্ষেপটা আনন্দে পরিণত করতে পারবেন? ২০ বছর বয়সী তরুণ তুর্কির কণ্ঠে দৃঢ় প্রত্যয়, ‘ওটা অতীত হয়ে গেছে। ওসব নিয়ে এখন আর ভাবছি না। যদি সামনের ম্যাচে সুযোগ পাই, নতুন করে শুরু করতে হবে। ভালো জায়গায় বল করতে হবে। এটা আমার জন্য চ্যালেঞ্জ। ওদের দলে বিশ্বমানের ব্যাটসম্যানরা রয়েছে। তাদের বিপক্ষে ভালো করাটাও চ্যালেঞ্জিং। নিজের সর্বোচ্চটাই ঢেলে দেব।’

কদিন আগে স্টার স্পোর্টসের ‘গেম প্ল্যান’ অনুষ্ঠানে তাসকিনকে প্রশংসায় ভাসিয়েছিলেন সাবেক পাকিস্তানি ফাস্ট বোলার শোয়েব আকতার। ভারতের জন্য ভয়ংকর হতে পারে এমনটা জানিয়ে তাসকিনকে নিয়ে শোয়েবের মূল্যায়ন, ‘তার বলে গতি আছে। ঠিক জায়গায় বল ফেলতে পারে।’ তবে একই সঙ্গে জানিয়েছিলেন, ‘তাসকিন অ্যাকশন নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন। এটা চিন্তার দরকার নেই। খুব নির্ভার চিত্তে দৌড়াতে হবে। কী করতে হবে (পিচে), সেটি নিয়েই ভাবাটাই জরুরি।’

শোয়েবের পরামর্শ গুরুত্বের সঙ্গেই নিচ্ছেন তাসকিন, ‘তার মতো কিংবদন্তি যা-ই বলুন, আমার ভালোর জন্যই বলেছেন। আমাদের কোচিং স্টাফ, সিনিয়র খেলোয়াড়দের কাছ থেকেও ভালো পরামর্শ পাচ্ছি। বয়সটাই শেখার। চেষ্টা করছি সবার কাছ থেকে শেখার। যত দ্রুত শিখতে পারব, তত বেশি মাঠে ভালো খেলতে পারব। চেষ্টা করছি প্রতিটি ভুল থেকে শিক্ষা নেওয়ার।’

ভারতের নির্দিষ্ট কোনো উইকেটের দিকে নজর বাড়াননি তাসকিন। তাঁর ইচ্ছা ভালো বোলিং করা আর সর্বোপরি দলের হয়ে ‘ঘটনা ঘটানো।’

হ্যাঁ, ঘটনা ঘটাতে চান তাসকিন। সেই ঘটনা মানেই ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনে ধস! সেটি যদি হয়, এবার অন্তত তামিম-মুশফিকরা ব্যাট হাতে তাসকিনের অর্জনকে নিশ্চয়ই ম্লান হতে দেবেন না।

এ জাতীয় আরও খবর

‘দাদাগিরি’র গ্র্যান্ড ফিনালেতে নাচলেন সৌরভ-ডোনা

ফাঁকিবাজ শিক্ষকদের শাস্তিযোগ্য বদলি প্রয়োজন: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

আমি কোন সার্জারি করিনি, এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা: সাফা কবির

বড় পরিবর্তন আসছে এনটিআরসিএতে, থাকছে না নিবন্ধন পরীক্ষা

ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে ফিলিস্তিনি কিশোর নিহত

বজ্রপাতে মাঠেই পুড়লো কৃষকের ধান

গ্যাস্ট্রিকের ওষুধ সেবনে বাড়ছে স্বাস্থ্যঝুঁকি’

নওগাঁয় ঝরে পড়া আম বিক্রি হচ্ছে ২ টাকায়

সিভিল কেস ‘বেগুন ক্ষেতের মতো’, এটা পরিবর্তন করতে হবে

‘পানি সংকটে’ রাজশাহীতে কমেছে গমচাষ

ভোটগ্রহণের দিনে নির্বাচন স্থগিতের নির্দেশ আদালতের

তালাক দেওয়ায় স্ত্রীর ‘আপত্তিকর’ ছবি ফাঁস করলেন স্বামী