বুধবার, ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

পাচারকারী চক্রের হোতা মালয়েশিয়ার ৩ `আদর্শবান’ ব্যবসায়ী!

news-image

অপরাধ ডেস্কআদর্শ ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত অন্তত তিন মালয়েশীয়কে একটি আন্তর্জাতিক পাচার চক্রের মূল হোতা হিসেবে শনাক্ত করার দাবি করেছে দেশটির পুলিশ। ৭০ জনেরও বেশি সহচরকে গ্রেফতারের পর তাদের বক্তব্যের ভিত্তিতে মূল সন্দেভাজনদের শনাক্ত করা গেছে বলে জানায় তারা। তবে সন্দেহভাজনদের পরিচয় জানানো হয়নি।

তদন্ত দলের বরাতে স্ট্রেইট টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়,মালয়েশিয়ার বুকিত আমানে সংঘটিত অপরাধ বিষয়ক বিশেষ টাস্কফোর্স, বিশেষ মাদক নিয়ন্ত্রণ গোয়েন্দা দল, এবং স্পেশাল ব্রাঞ্চের সদস্যদের নিয়ে বিশেষ একটি তদন্ত দল পাচারকারীদের শনাক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে আসছে।

পেনাং, পেরলিস এবং কেদাহতে সন্দেহভাজনদের ওপর নজরদারির পাশাপাশি তাদের ব্যাংকের লেনদেনের ওপরও চোখ রাখা হচ্ছে। এমনকি আগের বছরগুলোতে তাদের লেনদেনও যাচাই করা হচ্ছে।

মানব পাচারের মালয়েশিয়ার সংশ্লিষ্টতা বের করতে ইন্টারপোলের সঙ্গেও কাজ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কেদাহ’র পুলিশ প্রধান দাতুক জামরি। তিনি বলেন, ‘সন্দেভাজনদের বিচারের মুখোমুখি করা এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।’

জামরি জানান, গেল মাস ধরে বিশেষ অভিযানে গ্রেফতার হওয়াদের মধ্যে মালয়েশীয় নাগরিক ছাড়াও ইউএনএইচসিআর’র শরণার্থী কার্ডধারী বাংলাদেশি ও রোহিঙ্গারা আছেন। আর তারা পাচারের মূল হোতার বিশ্বস্ত সহযোগী বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

তবে সন্দেহভাজনরা শনাক্ত হলেও আইনের ফাঁক গলিয়ে তারা বেরিয়ে যাবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে জামরি জানান, ‘সন্দেহভাজন হোতারা প্রভাবশালী হলেও তাদের বেঁচে যাওয়ার সুযোগ নেই। মানব পাচারের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট পুলিশ সদস্যরাও এরমধ্যে গ্রেফতার হয়েছেন।’
মালয়েশিয়ার মানব পাচার বিরোধী আইন, অর্থ পাচারবিরোধী আইন, সন্ত্রাসবাদে অর্থ যোগানবিরোধী আইনের আওতায় সন্দেহভাজন মূল হোতাদের অভিযুক্ত করা হতে পারে।

এর আগে, স্থানীয় মানব পাচার চক্রের হোতা হিসেবে স্থানীয় এক ব্যবসায়ীকে চিহ্নিত করার খবর জানিয়েছিল মালয়েশিয়ার সংবাদমাধ্যম দ্য স্টার।

গেল মাসে মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ডে মানব পাচার শিবির আর গণকবরের সন্ধান পাওয়ার পর পাচারকারীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক ধরপাকড় শুরু হয়। সেসময় পাচারের শিকারদের সাগরের মাঝপথে রেখে পালিয়ে যায় পাচারকারীরা। সাগরে ভাসমান নৌকাগুলোকে তীরে ভেড়াতে দিচ্ছিল না কোন দেশ। অবশেষে গেল ২০ শে মে পেুত্রজায়ায় অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে ৭ হাজার অভিবাসীকে এক বছরের জন্য অস্থায়ী আশ্রয় দিতে রাজি হয় মালয়েশিয়া আর ইন্দোনেশিয়া।

এ জাতীয় আরও খবর

বাংলাদেশকে লিডের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তামিম-মুশফিক-লিটন

দেশের শীর্ষ ৫ ব্যাংকের একটি হওয়ার লক্ষ্য এনসিসি ব্যাংকের

এআইইউবি রোবোটিক দলকে পৃষ্ঠপোষকতা ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের

গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে প্রবাসীর স্ত্রীর ‘আত্মহত্যা’

সুনামগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে যোগাযোগ-বিচ্ছিন্ন

নাতির সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে দাদার মৃত্যু

ট্রেনের টয়লেট থেকে বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার

হামলায় মাথা ফাটল ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীর

প্রেমিকার বাড়ির পাশে প্রেমিকের ক্ষত-বিক্ষত লাশ

ওষুধ খাইয়ে স্বামীকে ঘুম পারান স্ত্রী, গলাটিপে হত্যা করেন পরকীয়া প্রেমিক

আকস্মিক ধুলি-ঝড়ে বিপর্যস্ত সৌদির রাজধানী রিয়াদ

রিয়াজের মাছ ধরা নিয়ে চলছে হাসিঠাট্টা