মঙ্গলবার, ২৪শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ড্রতেই শেষ ফতুল্লা টেস্ট

news-image

বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যেকার একমাত্র টেস্ট ম্যাচের পঞ্চম ও শেষ দিনের খেলা বৃষ্টির করণে দেরিতে শুরু হয়। শেষ দিন ইমরুল কায়েস ৫৯ রানে অপরাজিত থেকে মাঠে নামেন আর ইমরুলের সঙ্গী সাকিব আল হাসান। শুরুতেই সাকিবের উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। উইকেটের পেছনে অশ্বিনের বলে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ৯ রান করে বিদায় নেন তিনি। এরপর ধারাবাহিক গতিতে বাংলাদেশ ২৫৬ রানে অল আউট হয়ে যায়। এর পর বাংলাদেশ ফলআনে পড়ে। চতুর্থ দিন বিদায় নেন তামিম ইকবাল, মুমিনুল হক আর মুশফিকুর রহিম।

শেষ দিনের আগে ভারী বর্ষণে মাঠ ভেজা থাকায় বেশ কয়েকবার ম্যাচের আম্পায়াররা মাঠ পরিদর্শন করে সিদ্ধান্ত দেন পঞ্চম ও শেষ দিনের খেলা শুরু হবে স্থানীয় সময় দুপুর ১২টা ৪৫ মিনিটে। তবে আবহাওয়া ভালো থাকায় নির্ধারিত সময়ের আগেই খেলা আরাম্ভ হয়।

এর আগে চতুর্থ দিন একাধিকবার বৈরি আবহাওয়ার কারণে খেলা বন্ধ থাকে। কয়েক দফা মাঠ পরিদর্শনের পর ম্যাচের দায়িত্বপ্রাপ্ত আম্পায়াররা বিকেল ৪টার পর চতুর্থ দিনের খেলা (তৃতীয় সেশন) পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন। বৃষ্টির কারণে প্রথম সেশনের খেলা বন্ধ হলে দ্বিতীয় সেশনেও কোনো বল মাঠে গড়ায়নি। আর তৃতীয় ও শেষ সেশনের খেলা পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

ফলে, চতুর্থ দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ছিল তিন উইকেট হারিয়ে ১১১ রান।

চতুর্থ দিন মধ্যাহ্ন বিরতির সময় পেরিয়ে গেলেও ফতুল্লার আকাশে ভারী বর্ষণ চলতে থাকে। টেস্ট ক্যারিয়ারের তৃতীয় অর্ধশতক নিয়ে অপরাজিত থাকেন ইমরুল কায়েস। নতুন ব্যাটসম্যান হিসেবে ইমরুলকে সঙ্গ দিতে আসেন সাকিব আল হাসান।

বৃষ্টি ও মধ্যাহ্ন বিরতির আগে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩০.১ ওভার খেলে টাইগাররা সংগ্রহ করে তিন উইকেট হারিয়ে ১১১ রান। টাইগারদের ম্যাচের দৈর্ঘ্য ছিল ততোটুকুই। প্রথম সেশনে তামিম আর মুমিনুলের উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। এরপর মুশফিকের উইকেটও হারায় টাইগাররা।

স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের চতুর্থ দিন ব্যাটিংয়ে নামার আগে অফিসিয়ালি ইনিংস ঘোষণা করে সফরকারী ভারত। প্রথম ইনিংসে ১০৩.৩ ওভার খেলে অতিথিরা ছয় উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ৪৬২ রান। মুরালি বিজয়, শিখর ধাওয়ান আর অজিঙ্কা রাহানের ব্যাটে ভর করে স্বাগতিকদের বিপক্ষে বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় সফরকারী ভারত। দলের দুই ওপেনার ২৮৩ রানের জুটি গড়ে ভালো সূচনা এনে দেন। শিখর ধাওয়ান ১৭৩ ও মুরালি বিজয় ১৫০ রান করে বিদায় নেন। এছাড়া পাঁচ নম্বরে নামা অজিঙ্কা রাহানে করেন ৯০ রান।

তৃতীয় দিন টাইগারদের হয়ে ৪টি উইকেট তুলে নেন বাংলাদেশের মাটিতে শততম টেস্ট উইকেট পাওয়া বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। বাকি দুটি উইকেট পান জুবায়ের।

প্রথম দিন বৃষ্টি বাধায় ৫৬ ওভার খেলে ভারত সংগ্রহ করেছিল বিনা উইকেটে ২৩৯ রান। দ্বিতীয় দিন বৈরি আবহাওয়ায় একটি বলও মাঠে গড়ায়নি। তৃতীয় দিনও বৃষ্টি বাধা দিলে মাত্র ৪৭.৩ ওভার খেলা মাঠে গড়ায়।