শুক্রবার, ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

চতুর্থ দিনের খেলা পরিত্যক্ত : বাংলাদেশ ১১১/৩

news-image

৬ উইকেটে ৪৬২ রান করে ভারত ইনিংস ঘোষণা করার পর ব্যাটিংয়ে নামে স্বাগতিক বাংলাদেশ। শুরুতে তামিম ইকবালের উইকেট হারালেও দ্বিতীয় উইকেটে ইমরুল কায়েস ও মুমিনুল হকের ব্যাটিংয়ে দারুণ লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত দেয় টাইগাররা। তবে নিজের প্রত্যাবর্তন ম্যাচে মুমিনুলকে আউট করে ভারতকে ম্যাচে ফেরান হরভজন সিং। একটু পর অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমকে আউট করে ম্যাচের লাগাম টেনে ধরে সফরকারীরা।

তবে ১১টা ৫০ মিনিটে শনিবার দ্বিতীয় দফা বৃষ্টি আঘাত হানলে লাঞ্চের ১০ মিনিট আগে খেলোয়াড় ও আম্পায়াররা মাঠ ছাড়েন। ফলে নির্ধারিত সময়ের ১০ মিনিট আগেই লাঞ্চের বিরতি দেয়া হয়। লাঞ্চের বিরতির পরও আবহাওয়া ও মাঠের অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় যথাসময়ে খেলা শুরু হয়নি।

১২টা ৫০ মিনিটে বৃষ্টি থামলেও মাঠ খেলার উপযোগী হওয়ার আগেই ফের কয়েকবার থেমে থেমে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হয়। যে কারণে খেলা শুরু করা সম্ভব হয়নি। বেলা তিনটায় আম্পায়াররা মাঠ পর্যবেক্ষণ করে সাড়ে ৩টায় পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানোর কথা জানান। সাড়ে তিনটায় দুই আম্পায়ার মাঠ পর্যবেক্ষণ শেষে চারটায় পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানাবেন বলে ঘোষণা দেন। তিন দফা পর্যবেক্ষণ শেষে বেলা চারটায় আম্পায়াররা চতুর্থ দিনের খেলা পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন।

rain-picশনিবার প্রথম ইনিংসে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও ইমরুল কায়েস শুরু থেকে সাবলীল ব্যাটিং শুরু করলেও হঠাৎ ধৈর্য্যচ্যুতি ঘটে তামিমের। বাংলাদেশের হয়ে এদিন সর্বোচ্চ টেস্ট রানের মালিক বনা এই ওপেনার অশ্বিনের বলে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে পড়েন। অশ্বিনের বল ডাউন দ্য ট্র্যাকে এসে খেলতে গিয়ে উইকেটরক্ষক হৃদ্ধিমান সাহার স্ট্যাম্পিংয়ে পরিণত হন তিনি। ২১ বলে ১৯ রান করে আউট হন তামিম।

২৭ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর দ্বিতীয় উইকেটে মুমিনুল হককে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ওপেনার ইমরুল কায়েস। তবে প্রথম তিন দিনের মতো টেস্টের চতুর্থ দিনেও বৃষ্টি হানা দেয়। সকাল ১০টা ২৭ মিনিটে বৃষ্টির কারণে আম্পায়ার খেলা স্থগিত রাখেন। তবে বৃষ্টির কারণে বেশিক্ষণ খেলা বন্ধ থাকেনি। ১৩ মিনিট পর ১০টা ৪০ মিনিটে ফের খেলা শুরু হয়।

বৃষ্টির পর খেলা ‍শুরু হলে দুর্দান্ত প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ইমরুল ও মুমিনল। ৭৫ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করা ইমরুল বাংলাদেশের হয়ে লড়াই চালিয়ে যান। তবে সঙ্গী মুমিনুল বিশ্বরেকর্ড বিসর্জন দিয়ে সাজঘরে ফিরলে হোঁচট খায় টাইগাররা।  টানা ১২ টেস্টে হাফ সেঞ্চুরি করার বিশ্বরেকর্ডে এবি ডি ভিলিয়ার্সকে স্পর্শ করার সুযোগ ছিল মুমিনুলের সামনে। তবে ৩০ রান করে ফিরে যাওয়ার এখন দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং করার জন্য অপেক্ষা করতে হবে তাকে।

rainnদলীয় ১০৮ রানের মাথায় হরভজন সিংকে ডাউন দ্য ট্র্যাকে এসে খেলতে গিয়ে মিডঅফে উমেশ যাদবের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন মুমিনুল। পরের ওভারে অশ্বিসের ফ্লাইটে বোকা বনে যান মুশফিকুর রহিম। লেগ স্লিপে রোহিত শর্মাকে ক্যাচ দিয়ে মাত্র ২ রান করে সাজঘরে ফেরেন তিনি।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ১১১ রান। ইমরুল কায়েস ৫৯ ও সাকিব ০ রান নিয়ে ক্রিজে রয়েছেন।

বৃষ্টির কারণে প্রায় দুদিন ভেসে যাওয়ায় নিজেদের ইনিংসকে আর দীর্ঘায়িত করেনি বিরাট কোহলির ভারত। আগের দিনের ৬ উইকেটে ৪৬২ করা ভারত ইনিংস ঘোষণা করেছে। ফলে বাংলাদেশ দল প্রথম ইনিংসে ব্যাটিং করতে নেমেছে।

বুধবার টেস্টের প্রথম দিন বৃষ্টির কারণে ৫৬ ওভারের বেশি খেলা হয়নি। দ্বিতীয় দিন তো বৃষ্টির কারণে কোনো বলই মাঠে গড়াতে পারেনি। আর শুক্রবার চার দফা বৃষ্টির কারণে ৪৭.৩ ওভার খেলা হয়।

tamimপ্রথম ইনিংসে ভারতের ৬ উইকেটে ৪৬২ রানের পেছনে বড় অবদান রাখেন দুই ওপেনার  শেখর ধাওয়ান ও মুরালি বিজয়। ধাওয়ান ১৭৩ ও বিজয় করেন ১৫১ রান। এছাড়া আজিঙ্কা রাহানে ৯৮ রানের দর্শনীয় ইনিংস উপহার দেন।

বাংলাদেশের হয়ে সাকিব আল হাসান ৪টি এবং জুবায়ের হোসেন ২টি উইকেট লাভ করেন। ৪ উইকেট নেয়ার পথে প্রথম বাংলাদেশি বোলার হিসেবে ঘরের মাঠে ১০০ টেস্ট উইকেট নেয়ার কৃতিত্ব গড়েন সাকিব আল হাসান।