রবিবার, ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সেরা আইডিয়া দিয়ে চীন যাচ্ছেন ১০ শিক্ষার্থী

news-image

হুয়াই, বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় আইসিটি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে তাদের 'সীডস ফর দ্যা ফিউচার' প্রতিভা অন্বেষণ প্রোগ্রামের গ্র্যান্ড ফিনালের আয়োজন করেছে। অনুষ্ঠানটি গত ১১ জুন গুলশানে আমারি ঢাকা হোটেলের ইডেন বলরুমে অনুষ্ঠিত হয়। ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

হুয়াই টেকনোলজিস বাংলাদেশের চীফ অপারেটিং অফিসার ঝ্যাংমিংওয়েন বলেন, "সীডস ফর দ্যা ফিউচার হুয়াই’র বৈশ্বিক প্রতিভা অন্বেষণ প্রোগ্রাম। ২০০৮ সাল থেকে হুয়াই বিশ্বব্যাপী এই প্রোগ্রামের আয়োজন করছে এবং এই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে হুয়াই টেকনোলজিস বাংলাদেশ এককভাবে এই প্রোগ্রামের আয়োজন করল। এই প্রতিযোগতার মূল উদ্দেশ্য হলো তরুণ শিক্ষার্থীদের উদ্বুদ্ধ করা যেন তারা নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে আসতে পারে এবং আইসিটি সলিউশন নিয়ে আসতে পারে এবং ই-সার্ভিস এর মাধ্যমে মানুষের জীবনকে আরো সুখকর করতে পারে। পাঁচটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০০ এরও অধিক প্রতিযোগীদের উপস্থাপনার মধ্য থেকে ফ্যাকাল্টি মেম্বার এবং হুয়াই’র বিশেষজ্ঞ দিয়ে গঠিত প্যানেলের মাধ্যমে হুয়াই ১০ জনকে নির্বাচিত করেছে।"

প্রতিযোগিতার এই ১০ জন আগস্টের মধ্যবর্তী সময়ে বিজয়ী চীনে হুয়াই’র প্রধান কার্যালয় পরিদর্শনের সুযোগ পাবেন এবং নানাবিধ নলেজ শেয়ারিং এবং শিক্ষামূলক সেশনে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন। প্রতিযোগিতায় সেরা আইডিয়া দিয়ে নির্বাচিত ১০ জন হলেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইইই বিভাগের সাজিদ মাহমুদ, ফারহান বিন তারিক, তন্ময় পল, ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজির ইইই বিভাগের নাভিদ ইবতেনাজ নিজাম, নাজমুস সাকিব, মোহাম্মদ তাহমিদুল বারি, সিএসই বিভাগের মহশী মাসনাদ, কুয়েটের ইসিই বিভাগের তাসনিমুল ফাইকা, চুয়েটের সিএসই বিভাগের ইয়াসিন আর রহমান এবং ইইই বিভাগের পরশ চাকমা।

হুয়াই টেকনোলজিস বাংলাদেশের চীফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ঝাও হাওফু বলেন, "আমি মাত্র গত সপ্তাহে বাংলাদেশে পদার্পণ করেছি। বাংলাদেশের ব্যাপারে সমস্ত কিছু, বিশেষ করে এর আইসিটি শিল্প সম্পর্কে জানা শুরু করেছি। আমি এটা জেনে আসলেই অবাক হয়েছি বাংলাদেশের ডিজিটাল বাংলাদেশের মতো একটি সুস্পষ্ট এবং দীর্ঘমেয়াদী আইসিটি উন্নয়ন নীতিমালা রয়েছে। আমি বলতে পারি, অন্য কোন উন্নয়নশীল দেশে এরকম উদ্যোগ আমি এর আগে কখনোই দেখিনি। এমনটা বললে ভুল হবে না যে, বাংলাদেশ সরকার যেরকম নীতি এবং দর্শন বাস্তবায়ন করেছে, অনেক উন্নত দেশেরও এমন করা বাকি আছে।"

ঝাও হাওফু আরও বলেন, "সম্মানীত মন্ত্রী মহোদয়কে আবারো ধন্যবাদ জানাই এই ম্যাক্রোপলিসি নেতৃত্ব দেবার জন্য যা আমাদের বাংলাদেশ এবং সমাজের উন্নয়নের জন্য একটি সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। এই সুন্দর পলিসি, মন্ত্রী মহোদয়ের বলিষ্ঠ নেতৃত্ব, বাংলাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল বিভাগের উচ্চমানের শিক্ষাদান, এ সমস্ত কিছুই হুয়াইকে বাংলাদেশের আইসিটির এবং সমাজের উন্নয়নে আরো বৃহত্তর ভূমিকা রাখার ক্ষেত্রে উৎসাহ প্রদান করেছে।"

বাংলাদেশে আইসিটি এবং টেলিযোগাযোগ সেক্টর একটি সম্ভাবনাময় দিক ও দেশের অর্থনীতির বৃদ্ধি এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। হুয়াই টেকনোলজিস বাংলাদেশ দেশে প্রত্যক্ষভাবে প্রায় ৮০০টি এবং পরোক্ষভাবে ১০০০০ এর বেশী কর্মসংস্থান তৈরি করেছে, যার শতকরা ৯০ ভাগই স্থানীয় লোকবল। আগামী দিনগুলোতে হুয়াই বাংলাদেশে আইসিটি শিল্পের বিশাল বৃদ্ধি অনুমান করছে কারণ দেশের জনসংখ্যা ১৬ কোটিরও বেশি এবং এর অধিকাংশ যুবক ও প্রযুক্তিপ্রেমী।

 

এ জাতীয় আরও খবর

দুদকের মামলা স্থগিতে বদির আবেদন খারিজ

সকালে তীব্র, দুপুরে সহনীয় যানজট

অর্থ আত্মসাৎ: নর্থ সাউথের চার ট্রাস্টিকে গ্রেফতারের নির্দেশ

‘মুজিব’ সিনেমার ট্রেলার দেখে সবাই কেন হতাশ তার কারণ পাচ্ছেনা পরিচালক

হয়রানির শিকার বলিউড অভিনেত্রী দিয়া মির্জা

অ্যান্থনি নরম্যান আলবানিজকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন

উত্তরায় নারীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

আজ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আবেদন শুরু

কাশিমপুর কারাগারে নারী হাজতির মৃত্যু

সিঙ্গাপুরের হেড কোচ হলেন সালমান বাট

ধানুশের আসল বাবা-মা নাকি তারাই! মানতে নারাজ অভিনেতা

পাকিস্তানি নারীর ‘প্রেমের ফাঁদে’ গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচার, ভারতীয় সেনা গ্রেপ্তার