সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রাজধানীতে কোচিং বাণিজ্যে প্রতারণার ফাঁদ

news-image

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক রাজধানী ঢাকাতে সংবর্ধনার নামে কৃতি ছাত্রদের ছবি সংগ্রহ করে প্রতারণার ফাঁদ পেতে পুরোদমে বাণিজ্য চালাচ্ছে ইউএসি নামের একটি কলেজ ভর্তি কোচিং প্রতিষ্ঠান। অভিনব এই প্রতারণার শিকার রাজধানীর  নটরডেম কলেজের ছাত্ররা দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছে ওই কোচিং সেন্টার কর্তৃপক্ষের।
গত জানুয়ারি মাসের দিকে রাজধানীর নটরডেম কলেজের গেটের বাইরে দাঁড়িয়ে সংবর্ধনা দেয়ার নামে ছাত্রদের মধ্যে লিফলেট বিতরণ করে ইউএসি কোচিং সেন্টারের প্রতিনিধিরা। গিফট ও ফুড কুপন দিয়ে প্রত্যেক ছাত্রের কাছ থেকে ২ কপি ছবিসহ একটি ফরম পূরণ করে নেয় তারা।
প্রথমে বুঝতে না পরলেও প্রতারণার বিষয়টি পরে পরিষ্কার হয় ছাত্রদের কাছে। দীর্ঘদিনেও সংবর্ধনা না পাওয়া ছাত্ররা কলেজ সংলগ্ন ঐ কোচিং সেন্টারে গিয়ে দেখতে পায়, তাদের ছবি প্রসপেকটাসে ছাপিয়ে দাবি করা হয়েছে ইউএসিতে কোচিং করেই তারা নটরডেম কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে।
কীভাবে প্রতারিত হয়েছে তা বর্ণনা করতে গিয়ে ছাত্ররা জানায়, কলেজের বাহিরে কোচিং সেন্টারটি জিপিএ ফাইভ পাওয়া শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা দেয়ার জন্য লিফলেট বিলি করছিলো। তাই আমরা কোচিংটিতে গিয়ে ফরম পূরণ করি। বিভিন্ন ধরণের লোভ দেখিয়ে বাবা-মার নাম, ফোন নম্বর নিয়েছে আমাদের কাছ থেকে। পরে কোচিংটিতে গিয়ে তাদের প্রসপেক্টাসে আমাদের নাম দেখতে পাই। কোচিংয়ের কর্মকর্তাদের এই বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে তারা বলেন যে তারা আমাদের নাম, ছবি ভুলে ছাপিয়েছে।
ইউএসি কোচিং সেন্টারের প্রতারণার শিকার কয়েকশ ছাত্র লিখিত অভিযোগ করেছে নটরডেম কলেজ কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে ।
নটরডেম কলেজের ছাত্র পরিচালক ফাদার সুশান্ত গমেজ বলেন, কোচিং সেন্টারটি আমাদের কলেজের অনেক ছাত্রের ছবি ছাপিয়ে প্রচার করছে যে সেই কোচিং সেন্টারটিতে কোচিং করে ছাত্ররা নটরডেম কলেজে চান্স পেয়েছে।
নটরডেম কলেজের অধ্যক্ষ ডক্টর ফাদার হেমন্ত পিউস রোজারিও সিএসসি বলেন, আমাদের ছেলেরা কোচিং সেন্টারটিতে কোচিং করেনি।
কলেজের পাশের আরামবাগ গলিতে এবং ১৩ শান্তিনগরে গিয়ে দেখা যায় জনপ্রতি ৮ হাজার টাকা করে নিয়ে ব্যবসা করছে ইউএসি কোচিং সেন্টার।
ইউএসি কোচিং সেন্টারের চেয়ারম্যান মো: কুতুব-ই-জাহান বলেন, আমাদের অপারেটর প্রায় শ’খানেক শিক্ষার্থীদের ছবি ভুল করে নিয়ে এসেছিলো। আমরা ওই প্রসপেক্টাসটি পরিবর্তন করেছি।
কলেজ ভর্তি কোচিং এর বিরুদ্ধে কড়া বিধিনিষেধ আছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের। এবছর আরো কঠোর অবস্থান নিয়েছে সরকার। তার পরেও বন্ধ হয়নি কোচিং এর নামে কোমলমতি ছাত্রদের প্রতারণা।

এ জাতীয় আরও খবর