মঙ্গলবার, ২৪শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সাংবাদিককে পুড়িয়ে হত্যা, মন্ত্রীসহ গ্রেপ্তার ৫

news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্কদুর্নীতির খবর প্রকাশ করায় সাংবাদিককে জীবন্ত পুড়িয়ে মারার অভিযোগে ভারতের উত্তর প্রদেশের অনগ্রসর শ্রেণি কল্যাণ মন্ত্রী রামমূর্তি সিং ভার্মাসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নিহত ওই সাংবাদিকের নাম যোগেন্দ্র সিং। তাঁর বাড়ি উত্তর প্রদেশের শাহজাহানপুর জেলায়।

জানা গেছে, যোগেন্দ্র সিং উত্তর প্রদেশের ক্ষমতাসীন সমাজবাদী পার্টির বিধায়ক ও রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেণি কল্যাণ মন্ত্রী রামমূর্তি সিং ভার্মার জমি দখল এবং বেআইনিভাবে খনির দখল নেওয়ার অভিযোগ তুলে ফেসবুকে মন্তব্য প্রকাশ করেছিলেন। এ ছাড়া সংবাদপত্রে নিয়মিত ওই মন্ত্রীর দুর্নীতির বিরুদ্ধে কলম ধরেছিলেন তিনি। এতে যোগেন্দ্র সিংয়ের ওপর ক্ষুব্ধ হন মন্ত্রী। পরে মন্ত্রীর নির্দেশে পুলিশ পরিদর্শক শ্রী প্রকাশ রাইয়ের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ১ জুন যোগেন্দ্র সিংয়ের বাড়িতে তল্লাশি চালায়। এ সময় যোগেন্দ্র সিংয়ের গায়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। পরে তাঁকে উত্তর প্রদেশের রাজধানী লক্ষ্ণৌর হাসপাতালে ভর্তি করানো হলে গত সোমবার রাতে তাঁর মৃত্যু হয়। গতকাল দুপুরে সাংবাদিক যোগেন্দ্রর ছেলে রাঘবেন্দ্র শাহজাহানপুরের পুওয়ান থানায় ওই মন্ত্রী, পুলিশ পরিদর্শকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ এনে মামলা করেন।

মৃত্যুর আগে হাসপাতালে এক জবানবন্দিতে সাংবাদিক যোগেন্দ্র জানান, ‘তাঁর মৃত্যুর জন্য মন্ত্রী রামমূর্তি সিং ভার্মা দায়ী। বাড়িতে তল্লাশির সময় তাঁর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয় পুলিশ পরিদর্শক শ্রী প্রকাশ রাই। সঙ্গে ছিলেন আরও পুলিশ।’

যোগেন্দ্রর এই জবানবন্দি পাওয়ার পর প্রথমে পরিদর্শক প্রকাশ রাইকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তাঁর জবানবন্দির ওপর ভিত্তি করে মন্ত্রী এবং আরও তিন পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মৃত্যুর আগে সাংবাদিক যোগেন্দ্র সিং উত্তর প্রদেশের পুলিশের আইজি (সিভিল ডিফেন্স) অমিতাভ ঠাকুরের কাছে এ ব্যাপারে অভিযোগ করেছিলেন বলে জানা গেছে।