সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আর্জেন্টিনার বড় জয়

news-image

ক্রীড়া ডেস্কআগুয়েরো-ডি মারিয়া, দুজন মিলে ৫ গোল ঢুকিয়েছেন প্রতিপক্ষের জালেদুজনই এখন একই শহরের বাসিন্দা। খেলেন অবশ্য ভিন্ন ক্লাবে। এই মৌসুমটাও দুজনের গেছে ভিন্ন রকম। ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে লিগ না জিতলেও এই মৌসুমে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন সার্জিও আগুয়েরো। অন্য দিকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে মৌসুমটা ঠিক ভালো যায়নি অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়ার। তবে কাল রাতে জাতীয় দলের সতীর্থ লিওনেল মেসি যখন চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের আনন্দে ভাসলেন, আগুয়েরো-ডি মারিয়াও পেলেন জয়ের আনন্দ। কোপা আমেরিকার প্রস্তুতি হিসেবে প্রীতি ম্যাচে বলিভিয়াকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিল আর্জেন্টিনা। আগুয়েরো জাতীয় দলের হয়ে তাঁর প্রথম হ্যাটট্রিকটি করেছেন। জোড়া গোল করেছেন ডি মারিয়া। কোপা আমেরিকা শুরুর আগে প্রতিপক্ষদেরও একটা বার্তা দিয়ে রাখল আর্জেন্টিনা। ১৩ জুন প্যারাগুয়ের বিপক্ষে গ্র“প পর্বে তাদের প্রথম ম্যাচ। ২০১৫ সালে অপরাজিত থেকেই কোপা শুরু করতে যাচ্ছে মেসির দল।
কাল আর্জেন্টিনার সান হুয়ান বাইসেন্তেনারিও স্টেডিয়ামে আর্জেন্টিনা খেলতে নেমেছিল ডি মারিয়ার নেতৃত্বে। ২৫ মিনিটে গোলের শুরুটাও ডি মারিয়াই করেছিলেন। ০-০ থেকে স্কোরলাইন ৬ মিনিটের মধ্যে ৩-০ হয়ে যায়। ২৯ ও ৩১ মিনিটে জোড়া গোল করেন আগুয়েরো। প্রথম গোলটি ছিল পেনাল্টি থেকে।
জোড়া গোল তিনি আগেও করেছিলেন। কোস্টা রিকা আর বসনিয়া-হার্জেগোভিনার বিপক্ষে। কিন্তু কালই প্রথম জাতীয় দলের হয়ে হ্যাটট্রিকের স্বাদ পেলেন ৫১ মিনিটে। ৫৫ মিনিটে ৫-০ করেন ডি মারিয়া।
কালকের তিন গোলে আর্জেন্টিনার সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় গঞ্জালো হিগুয়েইন (২৩) ও লুইস আর্তিমকে (২৪) ছাড়িয়ে গেলেন আগুয়েরো (২৬)। সাবেক শ্বশুর ডিয়েগো ম্যারাডোনার গোলসংখ্যাও (৩৪) খুব নাগালে।
কাল প্রথম একাদশে হিগুয়েইন ছিলেনও না। এর মধ্যে কালকের চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল খেলে জাতীয় দলে ফিরছেন মেসি ও তেভেজ। আক্রমণভাগ নিয়ে আর্জেন্টিনার কোনো সমস্যা নেই। কোপায় মেসিকে পুরোদস্তুর প্লে মেকারের ভূমিকায় খেলানো হবে বলে মাঝমাঠের সমস্যাও হয়তো কাটিয়ে উঠবে আর্জেন্টিনা। কিন্তু রক্ষণ নিয়ে একটা দুশ্চিন্তা থাকছেই।
যদিও গত বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনাকে ফাইনালে তুলেছিল তাদের রক্ষণই। সাবেলা এ নিয়ে বিশেষ কাজ করলেও জে​রার্ডো মার্টিনোর অধীনে বিশ্বকাপের পর আট ম্যাচের ছয়টিতে আর্জেন্টিনা জিতেছে বটে, কিন্তু এর মধ্যে পাঁচ ম্যাচেই গোল হজম করতে হয়েছে। এরই মধ্যে আবার কাল হাঁটুর চোট নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরো। এটাও দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে থাকছে বৈকি।

এ জাতীয় আরও খবর