মঙ্গলবার, ১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

উন্নয়নকে গণতন্ত্রের ভিত্তির উপর দাঁড় করাতে হবে, মোদিকে খালেদা (ভিডিও)

news-image

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকে বাংলাদেশের সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। বেগম জিয়া বলেছেন, দেশে গণতন্ত্র নেই। উন্নয়নের জন্যে গণতন্ত্র পূর্বশর্ত। হোটেল সোনারগাঁওয়ে এ বৈঠক প্রায় ৫০ মিনিট স্থায়ী হয়। প্রথমে বেগম খালেদা জিয়া সহ বিএনপির শীর্ষ বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বৈঠক শুরু হয়। এরপর বেগম জিয়ার সঙ্গে মোদির একান্ত বৈঠক হয়।

বৈঠকে চেয়ারর্পাসন বেগম খালেদার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন, ড. আব্দুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী। এছাড়াও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য রিয়াজ রহমান, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ ছিলেন।

এই বৈঠকে বাংলাদেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, গণতন্ত্র, নির্বাচন ইত্যাদি ইস্যুতে মোদির সঙ্গে বিএনপির চেয়ারপারসন কথা বলেন।

বেগম জিয়ার সঙ্গে নরেন্দ্র মোদির বৈঠকের বিষয়বস্তু সাংবাদিকদের মাঝে তুলে ধরেন ড. আব্দুল মঈন খান। তিনি বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। তার সঙ্গে অত্যন্ত চমৎকার পরিবেশে আলাপ আলোচনা হয়েছ। যারা গণতন্ত্রে বিশ্বাসী তাদের সঙ্গেই আলাপ আলোচনা হয়। সরকারকে আমরা বারবার বলেছি আলোচনায় বসার জন্যে। কিন্তু গণতন্ত্রে বিশ্বাস করেন না তাদের সঙ্গে আলোচনা করা কঠিন। তবুও বিএনপির আলোচনার চেষ্টা করে যাচ্ছে। তিনি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জীবন থেকে শিক্ষা নেয়ার আহবান জানান।

ড. মঈন খান বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে আমরা বলেছি, উন্নয়নকে গণতন্ত্রের ভিত্তির উপর দাঁড় করাতে হবে। আগে উন্নয়ন, পরে গণতন্ত্র নয়। বাংলাদেশ ও ভারতের জনগণের মধ্যে সত্যিকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক যাতে দীর্ঘস্থায় হয় আমরা তা চাই। তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বাংলাদেশের যুব সমাজ, শিশু ও দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেছি। গণতন্ত্রের অনুপস্থিতি রয়েছে তা বলেছি। উন্নয়নকে গণতন্ত্রের ভিত্তির উপর শক্তিশালী করে দাঁড় করাতে হবে। বাস্তবতার দিক থেকে সমন্বয় করাতে হবে।

এ জাতীয় আরও খবর