সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আশুগঞ্জ উপজেলার এস.এস.সি, দাখিল ও কারিগরীর পরীক্ষার ফলাফল-২০১৫ইং

news-image

আশুগঞ্জ প্রতিনিধি : আশগঞ্জ উপজেলার এস.এস.সি ও সমমানের পরীক্ষার প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক ফলাফল মাধ্যমিক বিদ্যালয়েরআশুগঞ্জ সারকারখানা কলেজে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১২৩ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ১২২ জন। পাশের হার ৯৯.১৯। জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩৭জন। আশুগঞ্জ তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৯২ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৯০ জন। পাশের হার ৯৭.৮৩। জিপিএ ৫ পেয়েছে ২২ জন। হাজী আব্দুল জলিল উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৭৬ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৭৫ জন। পাশের হার ৯৮.৬৮। জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫জন। রওশন আরা জলিল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১২৫ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ১১৮ জন। পাশের হার ৯৪.৪০। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০১জন। তালশহর এ.এ.আই উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১৮৪ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ১৬৬ জন। পাশের হার ৯০.২২। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০৫জন। হাজী আব্দুল কুদ্দুছ এন্ড কলেজে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৩৯ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৩৬ জন। পাশের হার ৯২.৩১। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০৩জন। দূর্গাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৭৯ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৭৫ জন। পাশের হার ৯৪.৯৪। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০৫জন। খন্দকার সাহানা ফরিদ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৪১ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৩৭ জন। পাশের হার ৯০.২৪। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০জন। আড়াইসিধা কে.বি. উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১৩৩ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ১২১ জন। পাশের হার ৯০.৯৮। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০১জন। লালপুর এস.কে.দাস চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৯৭ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৮৯ জন। পাশের হার ৯১.৭৫। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০১জন। তারুয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৪৬ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৪২ জন। পাশের হার ৯১.৩০। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০৪জন। শাহ ফরাসত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১০৫ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৯১ জন। পাশের হার ৮৬.৬৭। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০২জন। আলাল শা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৫০ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৪৫ জন। পাশের হার ৯০.০০। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০জন। সোহাগপুর আছিয়া সাফিউদ্দিন আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১০২ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৯৩ জন। পাশের হার ৯১.১৮। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০২জন। কামাউড়া শহিদ স্মৃতি বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে কলেজে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৬৭ জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৬৩ জন। পাশের হার ৯৪.০৩। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০৪জন।
আশগঞ্জ উপজেলার দাখিল মাদ্রাসার পরীক্ষার প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক ফলাফল বিবরনী:
তালশহর করিমিয়া ফাজিল মাদ্রাসায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৫৪জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৫৩ জন। পাশের হার ৯৮.১৪। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০৭জন। খোলাপাড়া উমেদ আলী শাহ দাখিল মাদ্রাসায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২০জন, উত্তীর্ন হয়েছে ১৯ জন। পাশের হার ৯৫.০০। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০২জন। আড়াইসিদা কামিল মাদ্রাসায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৬৯জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৬৩ জন। পাশের হার ৯১.৩০। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০১জন। নাওঘাট এ.আর.বি.দাখিল মাদ্রাসায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২৩জন, উত্তীর্ন হয়েছে ১৯ জন। পাশের হার ৮২.৬০। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০জন। পানিশ্বর মাদিনিয়া গাউছিয়া দাখিল মাদ্রাসায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৩৯জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৩০ জন। পাশের হার ৭৬.৯২। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০জন। চরচারতলা ইসলামিয়া আলিম মাদ্রাসায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৪৭জন, উত্তীর্ন হয়েছে ৩৬ জন। পাশের হার ৭৬.৫৯। জিপিএ ৫ পেয়েছে ০জন।
আশগঞ্জ উপজেলার মাধ্যমিক কারিগরি পরীক্ষার প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক ফলাফল বিবরনী:
হাজী আব্দুল কুদ্দুছ এন্ড কলেজে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২২জন, উর্ত্তীন হয়েছে ১৭জন, পাশের হার ৭৭.২৭, জিপিএ ৫ পেয়েছে ০জন।
উপজেলার মাধ্যমিক পর্যায়ে ১৫টি বিদ্যালয়ে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১৩৬৯জন এর মধ্যে উত্তীর্ন হয়েছে ১২৬৩জন, পাশের হার ছিল ৯২.২৫, জিপিএ ৫ পেয়েছে ৯২জন। দাখিল পর্যায়ে সরাইল উপজেলার ১টি মাদ্রাসা সহ মোট ৬টি মাদ্রাসায় পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২৫২জন, এর মধ্যে উত্তীর্ন হয়েছে ২২০জন, পাশের হার ছিল ৮৭.৩০, জিপিএ ৫ পেয়েছে ১০জন। কারিগরি পর্যায়ে ১টি প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ২২জন এর মধ্যে উত্তীর্ন হয়েছে ১৭জন, পাশের হার ছিল ৭৭.২৭, জিপিএ ৫ পেয়েছে ০জন।