মঙ্গলবার, ২৪শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ইংল্যান্ডের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলার অপেক্ষায় বাংলাদেশ!

news-image

বাতাসের ঘনত্ব বাড়ছে। বাড়ছে নানা হিসেব আর অংক কষাকষি! প্রতিপক্ষ যে ভারত! তাও লড়াইটা আবার বাংলার মাটিতে। একটি রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের পুর্বাভাস এলোমেলো করে দিচ্ছে মানুষের ভাবনাগুলো। কারা থাকছেন সেরা ১১ তে? বাংলাদেশ কয়টা ম্যাচ জিততে পারে? র‍্যাংকিংয়ে কি বড় ধরনের পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে?

এদেশের ক্রিকেটে লেগেছে জয়ের হাওয়া! ২০১৫ এর শুরু থেকেই জয়ের পাল উড়িয়ে চলা বাংলাদেশ ১৬ বছরের সকল হিসাব নিকাশ পদদলিত করে পাকিস্তানকে করেছে বাংলাওয়াশ! স্বপ্ন বড় হচ্ছে, বাড়ছে জয়ের পরিধিও! সব কিছুই যেখানে বাড়ন্ত সেখানে ভারত সিরিজে টাইগারদের প্রতি ক্রিকেট প্রেমীদের প্রত্যাশাই বা কমতি থাকবে কেন। বর্তমানে একদিনের ক্রিকেটের আইসিসি র‍্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের অবস্থান অষ্টম। এই নিয়ে ৩য় বারের মত এই অবস্থানে আসা বাংলাদেশের এবারের লক্ষটা যে আরেকটু এগিয়ে যাওয়া সেটা আরো স্পষ্ট করে বলার অবকাশ আছে বলে বোধ হয়না।  

বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট ৮৮। সমান রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ৭ এ দাঁড়িয়ে ক্যারিবিয়ানরা। আর ৯৪ পয়েন্ট পাওয়া ইংলিশরা দখল করে আছে তালিকার ৬ নং আসনটি। ভারতের বিপক্ষে হোম সিরিজে ঘরের ছেলেরা ২-১ এ সিরিজ জিতলে বাংলাদেশ ৫ রেটিং পয়েন্ট পেয়ে প্রথমবারের মত চড়ে বসবে ৭ এ! আর ক্রিকেটের মোড়ল খ্যাত ভারতকে ৩-০ হারাতে পারলে ক্রিকেটের আরেক মোড়ল ইংল্যান্ডকে টপকে বাংলাদেশ চলে যাবে সাফল্যের অভাবনীয় এক স্থানে।  তখন টাইগাররা ৯৬ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে থাকবে ৬ষ্ট অবস্থানে।   

প্রতিপক্ষ যেই হোক, সেটা এখন কোন গুরুত্বপুর্ণ বিষয় নয়। একটাই পরিকল্পনা, লক্ষ একটাই! সামনে এগিয়ে যাওয়া। দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর সবচেয়ে নিকটতম প্রতিবেশি দল ভারত আসছে এ দেশে। ১০ জুন থেকে শুরু হওয়া একমাত্র টেস্টের পর ১৮, ২১ এবং ২৪ তারিখে খেলবে ৩টি একদিনের ম্যাচ। এই ম্যাচ তিনটি ঘিরে স্বপ্নীল এক সম্ভবনার পাড়ে দাড়িয়ে বাংলাদেশ। দরকার ঠিকঠাক একটি লাফ, তারপর মধুর বাস্তবতার ছায়ায় নিজেদেরকে উপভোগ করার পালা।  

সহজ হবেনা! বিশ্বের অন্যতম সেরা ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপ তো আছেই, সেই সাথে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ হিসেবে যেকোন সময় হাজির হতে পারে বৃষ্টি। আর তাছাড়া বাংলাদেশ সফরে আসা পাকিস্তানি দলের চেয়ে ভারতীয় দলটি অভিজ্ঞতা ও সাম্প্রতিক পারফরমেন্সে অনেক এগিয়ে। তবুও গৌরবময় অনিশ্চয়তার খেলা ক্রিকেটে কত কিছুই না সম্ভব হয়েছে যেগুলোকে একসময় ভাবা হতো অসম্ভব!

টাইগারদের ব্যাট-বল জ্বলে উঠুক বারবার,  এগিয়ে যাক এ দেশের দামাল ছেলেরা, বাংলার আকাশে সফলতার সুর্য্য উঁকি দিক প্রতিদিনই। টাইগারদের অর্জন, বিজয়ের উল্লাস আর সামনে এগিয়ে যাওয়ার পদধ্বনিতে রোমাঞ্চিত হোক গোটা দেশ। এখন অপেক্ষা শুধু সেই রোমাঞ্চের!