মঙ্গলবার, ১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ম্যাগি নুডলসে সীসা, বাজার থেকে সরানোর নির্দেশ

news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ম্যাগি নুডলসে বিপজ্জনক মাত্রায় সীসা থাকায় ভারতের উত্তরপ্রদেশের সব দোকান থেকে পণ্যটি ফিরিয়ে নিতে নেসলেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 উত্তর প্রদেশ রাজ্যের খাদ্য নিরাপত্তা ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) বলেছে, নিয়মিত পরীক্ষায় নেসলে ইন্ডিয়ার প্রস্তুত করা দুই ডজন প্যাকেটের ইনস্ট্যান্ট নুডলসে উচ্চ মাত্রায় সীসা পাওয়া গেছে।

এফডিএ’র দুই কর্মকর্তা বলেছেন, উত্তর প্রদেশের রাষ্ট্রীয় গবেষণাগারে পরীক্ষা করা সবগুলো প্যাকেটের ইনস্ট্যান্ট নুডলসে দূষণ ধরা পড়েছে। এতে ১৭ দশমিক ২ পিপিএম সীসা পাওয়া গেছে, যা অনুমোদিত মাত্রার চেয়ে সাতগুণ বেশি।

শূন্য দশমিক শূন্য ১ পিপিএম থেকে ২ দশমিক ৫ পিপিএম পর্যন্ত সীসার উপস্থিতি গ্রহণযোগ্য বলে জানান তারা।

এছাড়া বিজ্ঞানীরা নুডলসে স্বাদবর্ধক মনোসোডিয়াম গ্লুটামেট-এমএসজিও উচ্চমাত্রায় পেয়েছেন।

এফডিএ’র লক্ষ্নৌয়ের উপমহাপরিদর্শক ডি জি শ্রীবাস্তব রয়টার্সকে বলেন, “ম্যাগি ইনস্ট্যান্ট নুডলসে বিপজ্জনক পরিমাণে সীসা ও এমএসজি রয়েছে। কোম্পানিটির বিরুদ্ধে আমাদের তাৎক্ষণিকভাবে নির্দেশ দিতে হয়েছে।”

তবে সুইসভিত্তিক নেসলে এসএ’র সহযোগী প্রতিষ্ঠান নেসলে ইন্ডিয়ার দাবি, ম্যাগি নুডলস তৈরিতে সব কাঁচামালের ক্ষেত্রে যথাযথ নিরাপত্তা ও গুণগত মানের দিকটি দেখা হয়ে থাকে।

“আমরা ম্যাগি নুডলসে এমএসজি যোগ করি না এবং গ্লুটামেট থেকে থাকলে তা প্রাকৃতিক উৎসগুলো থেকে আসতে পারে। মানদণ্ড ঠিক থাকছে কি না তা দেখার জন্য নিয়মিতভাবে সীসার উপস্থিতি তদারক করি বলে নমুনায় ওই সব উপাদানের উচ্চমাত্রায় উপস্থিতির খবরে আমরা বিস্মিত হয়েছি।”

২০১৪ সালের মার্চের আগে প্রস্তুত ম্যাগি নুডলস প্রত্যাহারের জন্য উত্তর প্রদেশের নির্দেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোম্পানির একজন মুখপাত্র। তবে সেগুলো হয় এরইমধ্যে খাওয়া বা বিক্রি হওয়ায় সেগুলো বাজার থেকে ফিরিয়ে নেওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

শ্রীবাস্তব জানান, রাজ্যজুড়ে বিভিন্ন স্টোর থেকে দুই ডজনের বেশি প্যাকেট ইনস্ট্যান্ট নুডলস সংগ্রহ করেন এবং ফলাফল প্রকাশের আগে প্রতিটি প্যাকেট আলাদাভাবে পরীক্ষা করেন তারা।

নুডলস নিয়ে আরো বিস্তৃত পরিসরে তদন্ত শুরু করতে নয়া দিল্লির কেন্দ্রীয় খাদ্য পরিদর্শকদের অনুরোধ করার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, “আমাদের বিশেষজ্ঞরা বেশ কয়েকবার পরীক্ষা করেছেন এবং প্রতিবারের ফলই ছিল দুঃখজনক।

এ জাতীয় আরও খবর