বৃহস্পতিবার, ১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কোস্টগার্ডের ক্ষমতা বৃদ্ধিসহ একনেকের ৮ প্রকল্প অনুমোদন

news-image

ডেস্ক রির্পোট : সমুদ্রসীমায় নজরদারি বৃদ্ধি, মানবপাচার রোধ, চোরাচালান প্রতিরোধ ও অবৈধ মৎস্য আহরণ বন্ধে কোস্টগার্ড বহরের ক্ষমতা বাড়াতে একটি প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি একনেক। 'এনহ্যান্সমেন্ট অব অপারেশন ক্যাপাবিলিটি অব বাংলাদেশ কোস্টগার্ড'  নামে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে খরচ পড়বে ৪৬৮ কোটি টাকা। এছাড়াও আজ আরো ৭টি প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে একনেক। আজ মঙ্গলবার পরিকল্পনা কমিশনের এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ওই ৮টি প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রকল্পগুলোর বিভিন্ন দিক নিয়ে সাংবাদিকদের বিফ্রিং দিয়েছেন।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, 'আজকের একনেক বৈঠকে মোট ১ হাজার ৫৯১ কোটি ৮ লাখ টাকা ব্যয়ে ৮ প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন (জিওবি) ১ হাজার ৫৬৫ কোটি ৫৮ লাখ এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ২৫ কোটি ৫০লাখ টাকা।'

কোস্টগার্ডের ক্ষমতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রকল্পটি সম্পর্কে পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, 'কোস্টগার্ডের অপারেশন ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে এ প্রকল্পটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প। পত্রপত্রিকায় আপনারা দেখছেন মানবপাচার সম্পর্কে সংবাদ প্রচারিত হচ্ছে। এ কারণে আমরা কোস্টগার্ডের সক্ষমতা বাড়াতে এ প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছি। প্রকল্পটি দ্রুত বাস্তবায়ন করা হবে।' তিনি বলেন, 'এ প্রকল্পে ব্যয় হবে ৪৬৮ কোটি ২৩ লাখ টাকা। সম্পূর্ণ সরকারি অর্থায়নে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন করবে প্রকল্পটি।'

মুস্তফা কামাল বলেন, 'প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে সমুদ্র সীমায় নজরদারি বৃদ্ধি, মানবপাচার রোধ, চোরাচালান প্রতিরোধ ও অবৈধ মৎস্য আহরণ বন্ধ হবে। এ প্রকল্পের অধীনে জলযান ও সরঞ্জামাদি সংগ্রহের তালিকায় আছে ইনশোর প্যাট্রেল ভেসেল ৩টি, হাইস্পিড বোট বড় ৬টি, ভাসমান ক্রেন ১টি, অফিস সরঞ্জামাদি ১৩টি এবং ফার্নিচার ৩৩টি।’

অনুমোদিত অন্য প্রকল্পগুলোর মধ্যে 'রাজশাহী কল্পনা সিনেমা হল থেকে তালামাইরী পর্যন্ত সড়ক প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন' প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ১২৭ কোটি ৫০লাখ। অার ১৩৪ কোটি টাকা ব্যয়ে করা হবে বাবুবর হাট-মতলব পেন্নাই সড়ক উন্নয়নের সংশোধনী প্রকল্পে।

বাকি প্রকল্পগুলো হচ্ছে গাজীপুর-আজমতপুর–ইটাখোলা সড়কে চরসিন্দুরে শীতলক্ষ্যা নদীর ওপর সেতু নির্মাণ। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ১২০ কোটি টাকা। দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলে পানি সম্পদ উন্নয়ন' প্রকল্পে ব্যয় ধরা হযেছে ৫৫ কোটি ৪৮ লাখ টাকা। কুড়িগ্রাম জেলার ভুরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাইহাট ব্রিজের কাছে ভুরুঙ্গামারী মাদারগঞ্জ সড়কপথকে দুধকুমার নদীর ভাঙন হতে রক্ষা এবং উলিপুর ঘোনাগাছ হতে বজরা মাদ্রাসা পর্যন্ত তিস্তা নদীর তীর সংরক্ষণ প্রকল্প। এটি বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ৫৫ কোটি টাকা।

এছাড়া 'যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ' প্রকল্পটির ব্যয় ধরা হয়েছে ৪২১ কোটি টাকা এবং ২১০ কোটি টাকা ব্যয়ে 'চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজলোর ক্ষতিগ্রস্তদের স্থায়ী পুনর্বাসন' প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। বিফ্রিংয়ের সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান,পরিকল্পনা সচিব শফিকুল আজম, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য শামসুল আলম, আরস্ত খান প্রমুখ।

এ জাতীয় আরও খবর

হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়লো

খালেদাকে পদ্মা সেতুতে তুলে নদীতে ফেলে দেওয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী

বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় হত্যা, চারজনের যাবজ্জীবন

সিলেটে বন্যার্তদের পাশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ক্লাসরুমে ফ্যান খুলে পড়ে চার ছাত্রী আহত

ঘরে বসে খুব সহজেই করে ফেলুন পার্লারের মতো হেয়ার স্পা

সামরিক সহায়তা চাইলো মিয়ানমারের ছায়া সরকার

হত্যা মামলায় তিন ভাইসহ চারজনের যাবজ্জীবন

এমপির গাড়িবহরে ট্রাকচাপায় লাশ হলেন ছাত্রলীগ নেতা

কান উৎসবে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের ট্রেইলার, ফ্রান্সের পথে তথ্যমন্ত্রী

শ্রমিকের তীব্র সঙ্কট, বৃষ্টিতে তলিয়ে যাচ্ছে ধান

পল্লবীর অনুপস্থিতিতে ফ্ল্যাটে কে আসতেন, মুখ খুললেন পরিচারিকা