মঙ্গলবার, ১৭ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৩রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বদলে গিয়েছেন স্বামী বা স্ত্রী, হারিয়ে গেছে সুখ? জেনে নিন আপনি কী করবেন…

news-image

টিপস ডেস্ক : বিয়ের পর কিছু বিশেষ কারণে অনেকেই একদম বদলে যান। বিয়ের আগে বা নতুন নতুন বিয়ের পর যে স্বামী বা স্ত্রী হয়তো আপনার জন্য পাগল ছিলেন আর তাঁর পৃথিবী ছিল আপনাকে ঘিরেই, কিছুদিন পার হবার পরই সে ব্যাপারটি সম্পূর্ণ বদলে যায়। অনেকেই জীবনসঙ্গীকে অবহেলা করতে শুরু করেন, অনেকেই হয়ে ওঠেন খিটখিটে। যদিও বলা হয় যে সন্তান নিলে এই সমস্যা ঠিক হয়ে যায়, যদিও তা একেবারেই ভুল ধারণা। দাম্পত্য একটি দ্বৈত সম্পর্ক, আর বিয়ের পর দাম্পত্য ফিকে হওয়া খুবই সাধারণ একটি সমস্যা। তবে জীবনসঙ্গীর এই বদলে যাওয়া ঠেকাতে ও নিজে সুখী হয়ে উঠতে আপনারও কিছু করার আছে বৈকি। কী করবেন? চলুন জেনে নিই।

জীবনসঙ্গীকে বেশী বিরক্ত করবেন না
মানুষ সর্বদা একরকম থাকে না, বয়স আর সময়ের সাথে সকলেই বদলে যায়। এছাড়াও কাজের চাপ, জীবনের স্ট্রেস, পারিবারিক অশান্তি ইত্যাদি সব মিলিয়ে মানুষের আচরণ বদলে যেতেই পারে। নিজের দিকে তাকিয়ে দেখুন, আপনিও কত বদলে গেছেন। তাই "তুমি বদলে গেছো" বলে সঙ্গীকে সর্বদা জ্বালাতন করবেন না। এতে দূরত্ব আরও বাড়বে। পরিবর্তনকে মেনে নিন, ধরে নিন এটাই জীবন।

নিজের একটি পৃথিবী তৈরি করুন
আপনার সঙ্গীর পৃথিবী কি শুধু আপনাকে ঘিরেই? একদম কিন্তু না। তাহলে আপনার পৃথিবী কেন শুধু তাঁকে ঘিরে হবে? নিজের পৃথিবী তৈরি করা মানে কিন্তু পরকীয়া না বা অন্য সম্পর্ক তৈরি করা না। নিজের কর্মক্ষেত্রে মন দিন, জিমে যান, নিজের দেহের যত্ন করুন, কিছু একটা শিখুন, শৌখিন কাজ করুন, নিজের পরিবার ও বন্ধুদের সময় নিন, সন্তানদের সময় দিন, সমাজ সেবা বা নতুন কিছু করুন। সঙ্গীর ওপর থেকে মানসিক নির্ভরশীলতা কমিয়ে নিন, খুঁজে নিন বেঁচে থাকার আনন্দ।

আপনি নিজেও খিটখিট শুরু করবেন না
তিনি আপনার স্বামী বা স্ত্রী বলেই যে সারাক্ষণ আপনাকে নিয়েই থাকবেন, এমনটা ভাবার ভুল করবেন না একেবারেই। কোন কারণে আজকাল হয়তি তিনি মেজাজ করছেন, এমনটাও হতে পারে যে আপনি কোনভাবে তাঁকে কষ্ট দিয়ে ফেলেছেন। পাল্টা খিটখিট করলে কেবল সম্পর্কই খারাপ হবে, আর কিছু না।

ধৈর্য ধারণ করুন
দাম্পত্যে উত্থান পতন আসবেই। আপনি নারী হোন বা পুরুষ, এই উত্তাল সময়টা পারি আপনাকে দিতেই হবে। তাই অস্থির হবেন না। জানবেন যে খারাপ সময় যেমন এসেছে তেমনই ভালো সময়ও আসবে।

সম্পর্ক উন্নয়নে চেষ্টা করুন
অভিমান করে দূরে সরে যাবেন না, বরং চেষ্টা করুন সঙ্গীর মন পুনরায় জয় করে নেয়ার। চেষ্টা করুন আপনাদের দুজনের মাঝের সেই মিষ্টি ভালোবাসাকে জাগ্রত করতে। তিনি সাড়া দিক বা না দিক, আপনি নিজের মত চেষ্টা চালিয়ে যান।

মনে রাখবেন, সন্তান নেয়াই সমাধান নয়
হ্যাঁ, আশেপাশের প্রচুর মানুষ আপনাদের সন্তান নিতে বলবে। কিন্তু জেনে রাখুন, এমন অবস্থায় সন্তান নিলে সমস্যা বাড়বে বৈ কমবে না। তাই সন্তান নেয়াই সমাধান নয়। সন্তানের জন্ম পিতামাতার ভালোবাসা থেকে হওয়া উচিত, সমস্যা সমাধানের মাধ্যম হিসাবে নয়।

নিজের কর্তব্য পালনে অবহেলা করবেন না
সম্পর্কে যতই উত্তাল সময় আসুক, স্বামী বা স্ত্রী হিসাবে নিজের দায়িত্ব পালনে অবহেলা করবেন না ভুলেও। বরং এই সময়েই দায়িত্ব পালনে রাও অনেক বেশী সতর্ক থাকুন।

এ জাতীয় আরও খবর