বৃহস্পতিবার, ১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মানব পাচার ঠেকাতে পারছে না কোষ্টগার্ড

news-image

থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার উপকূলে ভাসছে পাচার হওয়া ট্টলার ভর্তি মানুষ। এরা সবাই বাংলাদেশী ও রোহিঙ্গা।  বাংলাদেশের টেকনাফ উপকূল দিয়ে পাচার হচ্ছে এসব মানুষ। অথচ বাংলাদেশের উপকূলে পাহারায় কাজ করছে কোষ্ট গার্ড, নৌবাহিনী, বর্ডার গার্ড । এসব বাহিনীর চোখ এড়িয়ে কিভাবে ঘটছে মানবপাচারের মত ঘটনা।

এ বিষয়ে টেকনাফ কোষ্ট গার্ডের ষ্টেশন কমান্ডার শাহীদ হোসেন চৌধুরী কথা বলেছেন বিবিসির সঙ্গে। শাহীদ হোসেন বলেন, সবাইকে বুঝতে হবে যে আমাদের কোষ্টগার্ড খুব উন্নত না। যদি দীর্ঘ ৬ কি.মি. কোষ্ট গার্ডের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এই ৬ কিলোমিটার ২৪ ঘন্টা পেট্টল করতে কোষ্ট গার্ড দেওয়ার জন্য অনেক বোট দরকার হয়। এপ্রিল মাস থেকে সাগর উত্তাল থাকে। এই উত্তাল সাগরে যাওয়ার জন্য সেরকম বোট আমাদের নেই। আমাদের যেগুলো রয়েছে হাইস্পীড বোট। সেগুলো দিয়ে সেন্টমার্টিন থেকে ৮-১০ নটিকেল মাইল যেতে পারি। তার ভিতরে যাওয়া সম্ভব হয় না এই সময়ে।

বিবিসি : এরা যখন ছোট ছোট নৌকায় করে গভীর সমুদ্রে যায় আপনাদের সন্দেহ হয় না, এরা কোথায় যাচ্ছে কেন যাচ্ছে?

শাহীদ হোসেন চৌধুরী : আমরা যখন নিয়মিত পেট্রল করি। আমাদের দায়িত্ব থাকে আমদের জল সীমায় যেসব নৌকা চলাচল করে তাদের সেগুলোকে রুটিন চেক করা। সমুদ্রে অনেক মৎস্য ট্রলার আছে সবাইকে সব সময় চেক করা সম্ভব হয় না। শুধু কিছু গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গিয়ে সন্দেহ জনক ট্রলারগুলো চেক করা হয়। তা না হলে সমুদ্রে প্রত্যেকটি বোট চেক করা সম্ভব হয় না।

বিবিসি : এসমস্ত নৌকায় করে মাছ ধরার নামে জেলে সেজে গভীর সমুদ্রে যাচ্ছে দু’তিন জন করে গভীর সমুদ্রে গিয়ে বড় ট্রলারে উঠছে, যারা থাইল্যান্ড ইন্দোনেশিয়ার মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য সাগরে ভাসছে, যারা সেখানে নেমেছে, সংবাদপত্রের ছবিতে দেখেছি অনেক শিশু ও মহিলাও আছে তারাও কি মাছ ধরতে যাচ্ছে?

শাহীদ হোসেন চৌধুরী : কিছু কিছু হতে পারে এমন করে যাচ্ছে। নারী ও মহিলা যাদের পাওয়া যায় তাদের বেশির ভাগই রোহিঙ্গা। বাংলাদেশ থেকে যায় নারী ও শিশুর সংখ্যা তেমন নেই।

বিবিসি : একটা অভিযোগ আছে, এই ধরনের পাচারে স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি, কোষ্টগার্ডের কর্মকতাদের একটা যোগসাজস আছে। তা না হলে তারা যেতে পারত না, তাদের সহযোগিতা ছাড়া অনায়াসে দিনের পর দিন এসব যাওয়া সম্ভব?

শাহীদ হোসেন চৌধুরী : বাইরে থেকে এর সাথে যারা জড়িত না মন্তব্যটা করা অতি সহজ। চোখ এড়িয়ে কিভাবে যায়। তারা রাত দুটা তিনটার সময় যেতে পারে। সবসময় তো আমরা সংবাদ পাচ্ছি না। আর যারা যাচ্ছে তারাও আমাদের মনিটর করছে কখন আমরা টহলে থাকি না থাকি। তাদেরও একটা নেটওর্য়াক আছে। আমি দৃঢভাবে অস্বীকার করছি এর সাথে কোষ্ট গার্ড জড়িত না ।

বিবিসি

এ জাতীয় আরও খবর

হজযাত্রী নিবন্ধনের সময় বাড়লো

খালেদাকে পদ্মা সেতুতে তুলে নদীতে ফেলে দেওয়া উচিত: প্রধানমন্ত্রী

বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় হত্যা, চারজনের যাবজ্জীবন

সিলেটে বন্যার্তদের পাশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ক্লাসরুমে ফ্যান খুলে পড়ে চার ছাত্রী আহত

ঘরে বসে খুব সহজেই করে ফেলুন পার্লারের মতো হেয়ার স্পা

সামরিক সহায়তা চাইলো মিয়ানমারের ছায়া সরকার

হত্যা মামলায় তিন ভাইসহ চারজনের যাবজ্জীবন

এমপির গাড়িবহরে ট্রাকচাপায় লাশ হলেন ছাত্রলীগ নেতা

কান উৎসবে বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকের ট্রেইলার, ফ্রান্সের পথে তথ্যমন্ত্রী

শ্রমিকের তীব্র সঙ্কট, বৃষ্টিতে তলিয়ে যাচ্ছে ধান

পল্লবীর অনুপস্থিতিতে ফ্ল্যাটে কে আসতেন, মুখ খুললেন পরিচারিকা