বুধবার, ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভুলগুলো সব ধুলো হয়ে ঝরে

news-image

লাইফস্টাইল ডেস্ক : জীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে চাওয়া অবশ্যই বুদ্ধিমানের কাজ। কিন্তু সেই প্রতিষ্ঠার মেওয়া আপনাকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছে, কি থেকে বঞ্চিত করছে তা কি ভেবেছেন কখনো? সবকিছুকে বিসর্জন দিয়ে সোনার হরিণের পেছনে ছুটছেন তো ছুটছেন। এই ভুল বিশ্বাসগুলো জীবনকে করে চলেছে ধুলোময়। যান্ত্রিক জীবনে যখন সময় হল বোঝার তখন অনেক দেরি হয়ে গেছে। জীবনকে করে ফেলেছেন অসহনীয়। তাই কিছু বিষয় এড়িয়ে চলা খুবই জরুরি।

শুধু সফলতা

অনেকেরই ধারণা, পেশাদারি জীবনে সাফল্য মানেই জীবনের সব কিছু। এ কারণে তারা মনপ্রাণ দিয়ে কোনো প্রতিষ্ঠানে লেগে থাকেন। ফলে ব্যক্তিগত জীবনের সুখ ও স্বাচ্ছন্দ্য থাকে উপেক্ষিত। জাগতিক দুনিয়ার কোনো কিছুই তাকে ছুঁয়ে যায় না। কাজ ছাড়া সে আর কিছু বোঝেও না, বুঝতে চায়ও না। কিন্তু বাস্তবে এটি ভুল বিশ্বাস। ব্যক্তিগত জীবনের সুখ-দুঃখ পেশাদারি জীবন থেকে পৃথক রাখাই ভালো। অন্যথায় তা ব্যক্তিগত জীবনের সুখ নষ্ট করতে পারে।

সব কিছুতে আপনি

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপনার বহু বন্ধু থাকতে পারে। আপনি বহু ভালো কিংবা গুরুত্বপূর্ণ সংগঠনের সদস্য হতে পারেন। সব জায়গায় আপনার উপস্থিতি, কিন্তু পারিবারিক অবদানে আপনি আছেন শূন্যে। প্রকৃত যোগাযোগ কিংবা সম্পর্ক বিষয়টি ব্যাপক ত্যাগ, সময় ও মনোযোগ ব্যয়ের ব্যাপার। তাই আগে পরিবার, পরে যে সংগঠনকে মনে প্রাণে ভালো চান তাকে সময় দিন যথেষ্ট। সব সংগঠনে সমান অংশীদারিত্ব কাম্য উন্নতি দেবে না।

এক হাতে সব

কোনো কাজের সঢলতা অবশ্যই আপনার শারীরিক ও মানসিক নানা বিষয়ের ওপর নির্ভর করে। তাই কোনো কাজ ভালোভাবে সফল করার জন্য আপনার যেমন বিশ্রাম দরকার, তেমনি অন্যের সাহায্য নিয়ে সফলভাবে সব কিছু সমাধান করা উচিৎ। নইলে, অনভ্যাসে নিজের কৃতিত্ব দেখাতে গিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজটিই এলোমেলো হয়ে যাবে।

আসল সত্য গোপন

অপরের সামনে নিজেকে অনেক বড় প্রমাণ করার আশায় অনেকে নিজের সত্য অবস্থানটা লুকিয়ে রাখেন। নিজেকে বড় বলে সাব্যস্ত করেন। নিজের নানা দুর্বলতা ও প্রকৃত রূপ গোপন করার চেষ্টা থাকে সবসময়। যদিও বাস্তবে এ ভয়ের কোনো ভিত্তি নেই। তাছাড়া অন্যের সামনে নিজের এই সত্যটা যখন ফাঁস হয়ে যায় তখন লজ্জাটা আরও বেশি থাকে। তাই নিজেকে নিজের মতো করেই প্রকাশ করলে মনের শান্তি বজায় থাকবে।

ব্যর্থতা আমার নয়

সাফল্য ও ব্যর্থতা উভয়ই স্বাভাবিক বিষয়। আমরা সর্বশক্তি দিয়ে সফল হওয়ার চেষ্টা ও ব্যর্থতাকে দূর করার উদ্যোগ নেব- এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এ চেষ্টায় ব্যর্থতাকে স্বাভাবিকভাবে দেখার বিষয়টি আমরা ভুলে যাই। ব্যর্থতা দেখে হতাশ হয়ে পড়ি। ভেবে নিই ব্যর্থতা কোনোদিনই আমার নয়। আর তখনই যতো সমস্যা বাধে। তাই নিজেকে আর দশজনের মতো ভেবে সফলতার মতো ব্যর্থতাকেও মেনে নিতে শিখুন। এতে ভবিষ্যতের কাজ সহজ হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

বাংলাদেশকে লিডের স্বপ্ন দেখাচ্ছেন তামিম-মুশফিক-লিটন

দেশের শীর্ষ ৫ ব্যাংকের একটি হওয়ার লক্ষ্য এনসিসি ব্যাংকের

এআইইউবি রোবোটিক দলকে পৃষ্ঠপোষকতা ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের

গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে প্রবাসীর স্ত্রীর ‘আত্মহত্যা’

সুনামগঞ্জে পাহাড়ি ঢলে যোগাযোগ-বিচ্ছিন্ন

নাতির সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে দাদার মৃত্যু

ট্রেনের টয়লেট থেকে বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার

হামলায় মাথা ফাটল ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীর

প্রেমিকার বাড়ির পাশে প্রেমিকের ক্ষত-বিক্ষত লাশ

ওষুধ খাইয়ে স্বামীকে ঘুম পারান স্ত্রী, গলাটিপে হত্যা করেন পরকীয়া প্রেমিক

আকস্মিক ধুলি-ঝড়ে বিপর্যস্ত সৌদির রাজধানী রিয়াদ

রিয়াজের মাছ ধরা নিয়ে চলছে হাসিঠাট্টা