সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভারতে প্রতিবাদের মুখে ইন্টারনেট ডট অর্গ

news-image

প্রযুক্তি ডেস্ক : ইন্টারনেট সুবিধাবঞ্চিত বিশ্বের দুই-তৃতীয়াংশ মানুষের কাছে বিনা মূল্যে ইন্টারনেট পৌঁছে দিতে ফেসবুকের সহপ্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গের উদ্যোগে বিভিন্ন দেশে ইন্টারনেট ডট অর্গ কার্যক্রম চালু করা হচ্ছে। ভারতেও উন্মুক্ত করা হয় এই সেবা। নির্বাচিত কিছু ওয়েবসাইট এবং অনলাইন সেবা জায়গা করে নিয়েছে ইন্টারনেট ডট অর্গে। বিপত্তিটা বাঁধে এখানেই। নেট নিউট্রালিটি বা ইন্টারনেটে সমতার ব্যাপারটা এতে বিঘ্নিত হচ্ছে বলে জোরালো দাবি উঠেছে। কিছু ওয়েবসাইট বিনা মূল্যে সবার কাছে পৌঁছে যাচ্ছে, অথচ বাকিরা সে সুবিধা পাচ্ছে না। প্রতিবাদ এতটাই জোরালো যে মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছেন স্বয়ং জাকারবার্গ। ধীরে ধীরে আরও ওয়েবসাইট এই সেবার আওতায় আসবে বলে আশ্বাস দেন তিনি।

ইন্টারনেট ডট অর্গের আওতায় আসতে হলে কী কী নিয়ম মানতে হবে তা-ও ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে ফেসবুক ডেভেলপার ওয়েবসাইটে। ফেসবুকে প্রকাশ করা এক ভিডিওবার্তায় জাকারবার্গ বলেন, ‘ইন্টারনেট চালাতে প্রতিবছর খরচ হয় কোটি কোটি ডলার। কোনো মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের পক্ষেই সব কিছু বিনা মূল্যে দেওয়া সম্ভব হবে না।’ আর তাই প্রয়োজনীয় সেবা, যেগুলো কম ডেটা খরচ করে যেকোনো মানের মুঠোফোনে চলতে পারে সেগুলোই প্রাথমিকভাবে ইন্টারনেট ডট অর্গের আওতায় আসবে বলে উল্লেখ করেন তিনি। জাকারবার্গ আরও বলেন, ‘ইন্টারনেট সমতার চরম এই সংজ্ঞা রক্ষা করতে গিয়ে কাউকে ইন্টারনেট ব্যবহার থেকে দূরে রাখা উচিত না।’

এই সীমিতসংখ্যক সেবা ব্যবহার করে পুরো ইন্টারনেটে মানুষের আগ্রহ বাড়বে এবং তখন তারা অর্থ খরচ করে ইন্টারনেট ব্যবহার শুরু করতে পারে বলে বিশ্বাস মুঠোফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর। গত বছর চালুর পর থেকে জাম্বিয়া, ভারত, কলাম্বিয়া, গুয়াতেমালা, তানজানিয়া, কেনিয়া, ঘানা, ফিলিপাইন এবং ইন্দোনেশিয়ায় ইন্টারনেট ডট অর্গ চালু হয়েছে।

ইন্টারনেট ডট অর্গে ডেটা এনক্রিপশন চালু রাখা যাবে না। অর্থাৎ মানুষ ইন্টারনেট কী করছে তা ফেসবুকসহ সহযোগী নেটওয়ার্ক পরিচালন প্রতিষ্ঠানের হাতে চলে যাচ্ছে। এটাকেও হুমকি হিসেবে দেখছেন আন্দোলনকারীরা।

এ জাতীয় আরও খবর