বৃহস্পতিবার, ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

হাজী মোঃ আমিনুল ইসলাম ভূইয়া ইন্তেকাল

Brahmanbaria Pic-02নিজস্ব প্রতিবেদক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের কৃতি সন্তান, জেলা আওয়ামীলীগের নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাজী মোঃ আমিনুল ইসলাম ভূইয়া  ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। গত শনিবার রাত পৌনে ১২টায় ঢাকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে লিভার জনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ২ ছেলে, ২ কন্যা সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে যান।
রবিবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের লোকনাথ উদ্যান জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে মহুমের প্রথম নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়।  দুপুর সাড়ে ১২টায় আশুগঞ্জ হাজী আব্দুল জলিল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দ্বিতীয় নামাজে জানাযা এবং পরে আড়াইসিধা কে.বি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তৃতীয় নামাজে জানাযা শেষে আড়াইসিধা গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তাঁর লাশ দাফন করা হয়।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের কৃতি সন্তান, জেলা আওয়ামীলীগের নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাজী মোঃ আমিনুল ইসলাম ভূইয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন প্রধান মন্ত্রীর সাবেক একান্ত সচিব, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা, লেখক, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি এবং জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এম.পি।
এক শোকবার্তায় তিনি বলেন, ছাত্র জীবন থেকেই আমিনুল ইসলাম ভূইয়ার সাথে আমার ঘনিষ্টতা ছিল। তাকে আমি একজন সহযোদ্ধা ও ছোট ভাইয়ের মতো দেখতাম। ৭৫ পরবর্তী প্রতিটি গনতান্ত্রিক আন্দোলনে তার ভূমিকা ছিল চোখে পড়ার মতো। আওয়ামী রাজনীতিতে তিনি ছিলেন একজন ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা। তার মৃত্যুতে আওয়ামীলীগের অপূরনীয় ক্ষতি হয়েছে। যা কখনো পূরন হওয়ার নয়। শোকবার্তায় তিনি মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের কৃতি সন্তান, জেলা আওয়ামীলীগের নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী হাজী মোঃ আমিনুল ইসলাম ভূইয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও খাদ্য মন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এম.পি।
এক শোকবার্তায় খাদ্য মন্ত্রী কামরুল ইসলাম এম.পি বলেন,  আমিনুল ইসলাম ভূইয়া ছিলেন, আওয়ামীলীগের একজন ত্যাগী ও পরীক্ষিত  নেতা।  তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসম্প্রদায়িক, গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ গঠনে সারা জীবন কাজ করে গেছেন। তার মৃত্যুতে আওয়ামীলীগের অপূরনীয় ক্ষতি হয়েছে। যা কখনো পূরন হওয়ার নয়। শোকবার্তায় তিনি মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

 

 

এ জাতীয় আরও খবর