সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সন্ত্রাসীদের হামলায় আইনজীবী আহত ॥ বাড়িতে ককটেল বিষ্ফোরন

hamla=2নিজস্ব প্রতিবেদক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরণের ঘটনায় মামলা দেওয়ায় এক আইনজীবীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে তাকে মারধোর করে আহত করেছে সন্ত্রাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার সকালে পৌর এলাকার শিমরাইলকান্দি গ্রামে। আহত আইনজীবীর নাম তারেকুল ইসলাম মৃধা নোমান-(২৯)। তিনি শিমরাইলকান্দি গ্রামের বিশিষ্ট ঠিকাদার মলাই মৃধার ছেলে।
আহত তারেকুল ইসলাম মৃধাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পরিবারের লোকজন জানান, মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শিমরাইলকান্দি গ্রামের নোমান মিয়া, বাবু মিয়া, জাবেদ মিয়া, আরাফাত গুড্ডু, সোহেল মিয়া, সাদ্দাম মিয়াসহ একদল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে একই এলাকার আইনজীবী তারেকুল ইসলাম মৃধার বাড়িতে হামলা চালায়। হামলাকারীরা বাড়িতে ককটেল বিষ্ফোরন ঘটিয়ে আতংক সৃষ্টি করে। পরে হামলাকারীরা অ্যাডভোকেট তারেকুল ইসলামের ঘরে প্রবেশ করে তাকে বেদম মারধোর করে এবং ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে। আহতবস্থায় তারেকুলকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
জানা গেছে, গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর একই এলাকার নোমান মিয়া, সোহেল মিয়া ও আরাফাত গুড্ডুর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী তারেকুল ইসলামের কাছে চাঁদা দাবি করে। তারেকুল ইসলাম চাঁদা দিতে আপারগতা প্রকাশ করলে ওই দিন রাতে তারা তারেকুল ইসলামের বাড়িতে  ককটেল হামলা করে। এ ঘটনায় তারেকুল ইসলাম বাদী হয়ে সোহেল ও গুড্ডুকে আসামী করে সদর থানায় একটি চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরণ মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্ত শেষে গত ৮ মার্চ  পুলিশ সোহেল ও গুড্ডুকে ঘটনায় জড়িত দেখিয়ে আদালতে মামলার অভিযোগপত্র দায়ের করে।
হাসপাতালে আহত অ্যাডভোকেট তারেকুল ইসলাম বলেন, চাঁদাবাজি ও বোমা হামলার ঘটনায় অভিযোগপত্র দায়ের করায় এলাকার সন্ত্রাসীরা তাঁর বাড়িতে আবার হামলা চালিয়ে তাকে মারধর করে। সন্ত্রাসীরা তাঁর বাড়িতে ককটেল বিষ্ফোরণ করে।  
এ ব্যাপারে সদর থানার এস.আই যুবরাজ বিশ্বাস জানান, চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরণ ঘটনায় গুড্ডু ও সোহল জড়িত থাকায় তাদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আকুল চন্দ্র বিশ্বাস জানান, আইনজীবীর  বাড়িতে হামলার ঘটনার খবর শুনে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়।  তিনি বলেন, এ ঘটনায় এখনো মামলা দায়ের হয়নি। অভিযোগ পেলেই জাড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।