সোমবার, ২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদ সহ ১৫ বিশিষ্ট নাগরিককে ক্ষমা করলেন ট্রাইব্যুনাল

img-single_23536traibbunal-400x256ডেস্ক রির্পোট : বৃটিশ সাংবাদিক ডেভিড বার্গম্যানের সাজার বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে বিবৃতি দেওয়া ৪৯ বিশিষ্ট নাগরিকের মধ্যে ১৫ জনকে ক্ষমা করেছেন ট্রাইব্যুনাল। গত ২৭ জানুয়ারি ওই নাগরিকদের নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনার ভিত্তিতে গতকাল সোমবার বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ তাদের ক্ষমা করেন।
ক্ষমাপ্রাপ্ত ১৫ জন হলেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শাহদীন মালিক, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা এম হাফিজউদ্দিন খান ও রাশেদা কে চৌধুরী, সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার, বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) নির্বাহী পরিচালক সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদ, আসিফ নজরুল, শাহনাজ হুদা ও আমেনা মহসীন, বাংলাদেশ শিশু বিকাশ কেন্দ্রের জাতীয় সমন্বয়ক নায়লা জামান খান, সংগীতশিল্পী অরূপ রাহী, লেখক শাহীন আখতার ও তাহমিমা আনাম এবং মানবাধিকারকর্মী জাকির হোসেন এবং ইলিরা দেওয়ান।
এছাড়া বাকি ৩৪ জনের বিষয়ে শুনানির জন্য আগামী ৩ মার্চ দিন ধার্য করেছেন ট্রাইব্যুনাল। এর মধ্যে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ ৯ জন নিজে হাজির হয়ে ট্রাইব্যুনালে লিখিত ব্যাখ্যা দিয়েছেন।
এর আগে ট্রাইব্যুনাল নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য লেখায় গত বছরের ২ ডিসেম্বর আদালত অবমাননার অভিযোগে ডেভিড বার্গম্যানকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৭ দিনের কারাদণ্ডাদেশ দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। পরে ওই সাজার বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে বিবৃতি দেন দেশের ৫০ বিশিষ্ট নাগরিক। আর এ নিয়ে ২০ ডিসেম্বর দৈনিক প্রথম আলোতে ‘বার্গম্যানের সাজায় ৫০ নাগরিকের উদ্বেগ’ শীর্ষক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। পরে অবশ্য মানবাধিকারকর্মী খুশী কবির বিবৃতি থেকে তার নাম প্রত্যাহার করে নেন।
পরবর্তিতে ২৮ ডিসেম্বর প্রথম আলোকে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে ওই বিবৃতির অনুলিপি দাখিলের নির্দেশ দেন ট্রাইব্যুনাল। সে সময় শাহদীন মালিক ও হানা শামস আহমেদ ট্রাইব্যুনালে বিবৃতিদাতাদের ঠিকানা দাখিল করেন। আর এ বছরের ১৪ জানুয়ারি ট্রাইব্যুনাল এক আদেশে ৪৯ জন বিবৃতিদাতার কাছে তাদের বিবৃতির বিষয়ে ব্যাখ্যা জানতে চান।