বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সৌদি আরবে যৌন নির্যাতনকারিদের সাজা বাড়ল

Sex-400x241আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যৌন হয়রানি ও নির্যাতন এবং চাঁদাবাজি রোধ করার জন্য সৌদি আরব সরকার একটি নতুন বিধি চালু করতে যাচ্ছে। এ ধরনের অপরাধের সাথে কেউ জড়িত থাকলে সর্বোচ্চ এক বছরের সাজা ও সর্বোচ্চ এক লক্ষ রিয়াল জরিমানার বিধান করে আইন প্রণয়ন করতে যাচ্ছে দেশটির শুরা কাউন্সিল।
অপরাধের ধরন অনুযায়ী সাজা ও জরিমানার পরিমাণ বিভিন্ন হতে পারে। জরিমানা সর্বনিম্ন ৫০ হাজার রিয়াল থেকে সর্বোচ্চ ১ লাখ রিয়াল হবে। দেশটিতে অপরাধ রোধ করতে যুব ও সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয় শুরা কাউন্সিলের সভায় নতুন এ আইন করার প্রস্তাবনা দিয়েছে।
নতুন প্রস্তাবনায় যৌন নির্যাতনসহ চাঁদাবাজি, মানব পাচার, আর্থিক ও মানসিক শোষণ রোধেও এ বিধানটি কার্যকরি ভূমিকা রাখবে। দেশটির কিছু প্রদেশের নাগরিকদের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে বলে এ ধরনের জরিমানার বিধান চালু করতে যাচ্ছে।
নতুন শাস্তি ও জরিমানার এ বিধান অনৈসলামিক কাজের সাথে জড়িতদের রোধ করতে সহায়তা করবে। অপরাধীদের শাস্তির আওতায় আনা হলে তারা অসামাজিক, ইসলামবিরোধী ও অনৈতিক কার্যকলাপ করা থেকে বিরত থাকবে। তাছাড়া ভিকটিমরাও ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে ওঠতে পারবে, এ উপলব্ধি থেকেই নতুন এ বিধি করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে।
 
খসড়া এ আইনটির শিরোনাম দেয়া হয়েছে ‘ যৌন নির্যাতন ও হয়রানির বিরুদ্ধে লড়াই’। খসড়াটি শুরা কাউন্সিলের মানবাধিকার সংগঠন, ইসলামিক ও বিচারবিভাগীয় কমিটিসহ অন্যান্য কমিটি যাচাই বাচাই করছে।
দেশটির বিদ্যমান আইন আর্টিকেল ৬ অনুযায়ী, যারা এ ধরনের অপরাধের সাথে সম্পৃক্ত থাকবে তাদের ছয় মাস জেল ও বিশ থেকে পঞ্চাশ হাজার সৌদি রিয়াল জরিমানার নিয়ম রয়েছে। প্রস্তাবিত নতুন আইনে এ সাজা ও জরিমানার পরিমাণ দ্বিগুণ করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর