সোমবার, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ভারতে ২০০ মুসলিমকে ‘গণধর্মান্তর’ নিয়ে পার্লামেন্টে হৈচৈ

92810_muslismআন্তর্জাতিক ডেস্ক :ভারতের আগ্রা শহরে ২০০ মুসলিমকে হিন্দু ধর্মে গণধর্মান্তর করানোর খবর সংবাদমাধ্যমে বেরুনোর পর তা নিয়ে বুধবার ভারতের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভার অধিবেশনে তুমুল হৈচৈ হয়েছে।

 

ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের কাছে এ ঘটনার ব্যাপারে ব্যাখ্যা দাবি করেছে কংগ্রেস, কমিউনিস্ট পার্টি এবং সমাজবাদী পার্টির মতো বিরোধীদলগুলোর নেতারা।

 

তারা এ ব্যাপার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ব্যাখ্যা দাবি করেন।

 

এ ব্যাপারে একটি এফআইআর-ও করাও হয়েছে পুলিশের কাছে।

 

অভিযোগে বলা হয়, আগ্রার একটি বস্তির ৫০টি পরিবারের প্রায় ২০০ লোককে উগ্র হিন্দু সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ বা আরএসএস-সংশ্লিষ্ট লোকেরা দরিদ্রদের রেশন কার্ড দেয়ার কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার কথা বলে একটি মাঠে নিয়ে যায়।

 

কিন্তু যাবার পর সেখানে যজ্ঞ এবং প্রায়শ্চিত্ত করিয়ে তাদের হিন্দু ধর্মে ধর্মান্তর করানো হয়।

 

ধর্মান্তরিত লোকেরা বলেছে, অনেক লোকের ভিড় দেখে তারা ভয় পেয়ে এর কোনো প্রতিবাদ করতে পারেনি।

 

আরএসএস, বজরঙ্গ দল ও বিশ্বহিন্দু পরিষদের মতো উগ্র হিন্দু সংগঠনগুলো এ ধরণের কর্মসূচিকে ‘ঘর ওয়াপসি’, অর্থাৎ তাদের ভাষায় ‘ভারতের আদি বাসিন্দাদের’ মধ্যে যারা ‘বিপথগামী হয়ে অন্য ধর্মে চলে গিয়েছিল’ তাদের ‘ঘরে ফিরিয়ে আনার’ কর্মসূচি বলে অভিহিত করে থাকে।

 

আগামী ২৫ ডিসেম্বর একই ধরণের অনুষ্ঠান করে আরো কিছু খ্রিস্টান ও মুসলিমকে ধর্মান্তরিত করার পরিকল্পনা ছিল বলেও সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়।