সোমবার, ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘রিং মাস্টার’কে ‘চাবুক’ মারলেন ভাজ্জি, জাহির, লক্ষ্ণণ। শচীনের পাশে মুরলিথরন

30806-chabukওয়েব ডেস্ক: 'রিং মাস্টার' ক্রমশ কোণঠাসা হয়ে পড়ছেন। ভারতীয়রা তো বটেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ক্রিকেটাররাও শচীনের পাশেই দাঁড়াচ্ছেন। শচীন টেন্ডুলকরের সুরেই গ্রেগ চ্যাপলকে আক্রমণ করলেন তাঁর পুরনো তিন শিষ্য হরভজন সিং, জাহির খান, ভিভিএস লক্ষ্মণ। হরভজন সিং তো বলেই ফেললেন, তিন বছর কোচিংয়ের দায়িত্ব নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটকে ৬ বছর পিছিয়ে দিয়েছিলেন গ্রেগ। জাহির খান আবার অভিযোগ করলেন, গুরু গ্রেগ তাঁর কেরিয়ার শেষ করে দিতে চেয়েছিলন। জাহির বলেন, কোচ থাকাকালীন গ্রেগ চ্যাপেল তাঁকে বলেছিলেন , "আমি থাকাকালীন তুমি আর ভারতের হয়ে খেলতে পারবে না।"ভিভিএস লক্ষ্ণণ আবার এ বিষয়ে বললেন, গ্রেগের অধীনে খেলার অভিজ্ঞতা দুঃস্বপ্নের মত। সঙ্গে লক্ষ্ণণ বলে, দলে সিনিয়র ও জুনিয়র ক্রিকেটারদের মধ্যে বিভাজন তৈরির চেষ্টা করেছিলেন গুরু গ্রেগ।

শচীন টেন্ডুলকর তাঁর আত্মজীবনীতে ভারতের প্রাক্তন কোচ গ্রেগ চ্যাপেল সম্পর্কে বিষোদগার করেছেন। তিনি লিখেছেন একসময় রাহুল দ্রাবিড়কে সরিয়ে তাঁকে অধিনায়ক হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন গ্রেগ। শচীনের অভিযোগ আসলে ভারতীয় ক্রিকেটকে নিয়ন্ত্রন করার পরুকল্পনা ছিল গ্রেগের। গ্রেগ চ্যাপেল অবশ্য এই বক্তব্য সত্য নয় বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। যদিও গ্রেগ চ্যাপেলের বক্তব্যকে উড়িয়ে দিয়ে শচীন টেন্ডুলকরের পাশে দাঁড়ালেন কিংবদন্তী স্পিনার মুথাইয়া মুরলিথরন। মুরলি বলেন, শচীন টেন্ডুলকর আত্মজীবনীতে গ্রেগ সম্পর্কে যে কথাগুলি লিখেছেন তা কখনই মনগড়া হতে পারে না। কারন শচীন একজন সত্‍ ক্রিকেটার।

সোমবার এবিষয়ে শচীনের হয়ে ব্যাট ধরেছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলিও। ভবিষ্যতে সুযোগ পেলে গ্রেগ সম্পর্কে আরও বিস্ফোরক তথ্য প্রকাশ্যে আনার ইঙ্গিতও দিয়েছিলেন মহারাজ।

এ জাতীয় আরও খবর