শুক্রবার, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

‘কোরিয়ার নাগরিকত্ব পেতে জাতীয় সংগীত জানা আবশ্যক’

news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকত্ব পেতে বিদেশীদের জন্য কোরিয়ান জাতীয় সংগীত জানা আবশ্যক বলে রায় দিয়েছে সিউলের একটি আদালত। জাতীয় সংগীত গাইতে না পারায় কোরিয়ার নাগরিকত্ব থেকে বঞ্চিত হওয়া এক চীনা ভদ্রমহিলার আবেদন খারিজ করে দিয়ে এ রায় প্রদান করেছে সিউলের প্রশাসনিক আদালত।

korean_citizenship

বৈবাহিক সূত্রে কোরিয়ান নাগরিকত্ব পাওয়া একদল অভিবাসী।

খবরে প্রকাশ, ছই নামের ওই চীনা বংশোদ্ভূত মহিলা ২০০৪ সালে এক কোরিয়ান নাগরিককে বিয়ে করেন। বিয়ের ছয় বছরের মাথায় ২০১০ সালে তিনি কোরিয়ার নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করেন। নাগরিকত্ব প্রদানের জন্য দেশটির আইন মন্ত্রণালয়ের ভাইভা বোর্ডে তাঁকে কোরিয়ার জাতীয় সংগীত গাইতে বলা হয়। কিন্তু ভদ্রমহিলা তা গাইতে ব্যর্থ হন। আইন মন্ত্রণালয়ের ভাষ্যমতে ছই আরও দুটি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেন নি। এমতাবস্থায় মন্ত্রণালয় ছইয়ের নাগরিকত্বের আবেদন বাতিল করে দিলে তিনি আদালতের দ্বারস্থ হন।

তবে আদালত মন্ত্রণালয়ের পক্ষ নিয়ে জাতীয় সংগীত গাইতে জানাকে নাগরিকত্ব লাভের আবশ্যকীয় অনুষঙ্গ বলে অভিমত ব্যক্ত করেন। আদালত তাঁর রায়ে বলেন, “ছই কেবল জাতীয় সংগীত গাইতেই ব্যর্থ হন নি, তিনি আরও দুটি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারে নি। এমন পরিস্থিতিতে মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তকে অন্যায় ও অবৈধ বলার কোন সুযোগ নেই।”

প্রসঙ্গত, কোরিয়ায় বসবাসরত বিদেশীদের নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করার পদ্ধতি দুটি প্রধান ভাগে বিভক্ত। কোন কোরিয়ান নাগরিককে বিয়ে করেছেন এমন বিদেশীরা দুই বছর কোরিয়ায় বসবাসের পর নাগরিকত্বের আবেদন করতে পারেন এবং এক্ষেত্রে কেবল মৌখিক সাক্ষাৎকারে উত্তীর্ণ হওয়াই যথেষ্ট। বাকিরা পাঁচ বছর বসবাসের পর নাগরিকত্বের জন্য আবেদনের সুযোগ পান এবং তাঁদেরকে লিখিত ও মৌখিক উভয় পরীক্ষাতেই উত্তীর্ণ হতে হয়।