শনিবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৩০শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মেরামতের পরও উত্তরার রাস্তায় গ্যাস বের হওয়া বন্ধ হয়নি

1413390458_thনিজস্ব প্রতিবেদক:উত্তরার বিভিন্ন রাস্তায় গ্যাস লিকেজ বন্ধ হয়নি। তিতাসের পক্ষ থেকে এ পর্যন্ত ৩০ জায়গায় মেরামতের কাজ করা হলেও এখনো গ্যাস বের হচ্ছে। 

গত মঙ্গলবার সরেজমিন উত্তরার ১২ নম্বর সেক্টরের ১২, ১৩ এবং ১৬ নম্বর রাস্তা ঘুরে গ্যাস লিকেজের দৃশ্য দেখা যায়। রাস্তার যেসব স্থানে বৃষ্টির কারণে পানি জমে আছে সেখানে পানির মধ্যে বুদবুদ বের হচ্ছে। কোথাও কোথাও সেই বুদবুদ তিন ইঞ্চি পর্যন্ত উপরে উঠে যাচ্ছে। আর যেসব জায়গা শুকনা সেখানে ছোট ছোট গর্ত দেখা যায়। গর্তের মুখে হাত দিয়ে গ্যাস বের হওয়া অনুভব করা যায়। কোথাও কোথাও গ্যাসের হালকা গন্ধও পাওয়া যাচ্ছে। সবচেয়ে বেশি বুদবুদ বের হচ্ছে ১২ নম্বর সেক্টরের ১৩, ১৪, ১৫ এবং ১৬ নম্বর প্লটের সামনের রাস্তায়। ১৬ নম্বর সেক্টরের ১৩ নম্বর বাড়ির মালিক ডা. হায়দার আলী খান। বাড়ির কেয়ারটেকার আনোয়ার জানান, গত কয়েক বছর ধরেই তাদের বাড়ির পানির পাইপের মধ্য দিয়ে গ্যাস বের হচ্ছিল। পানির মোটর ছাড়া থাকলেও গ্যাস বের হয় আবার বন্ধ থাকলেও গ্যাস বের হয়। গত ঈদের সময় থেকে এর মাত্রা বেড়ে গেছে। তিনি জানান, ঈদের পরদিন অর্থাৎ ৭ ও ৮ অক্টোবর তিতাসের টেকনিশিয়ানরা রাস্তা খুঁড়ে মেরামতের কাজ করেছে। কিন্তু মেরামতের পরও গ্যাস উবে যাওয়া বন্ধ হয়নি। 
১৪ নম্বর বাড়ির তিন তলার বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম জানান, এই এলাকায় প্রায় ৫০টি ছিদ্র দিয়ে গ্যাস বের হচ্ছে। তিতাসের লোকজন কথায় যা কাজে তা নয়। তিতাসের মেরামতের পরও গ্যাস বের হওয়া বন্ধ হয়নি। বাড়ির কেয়ারটেকার আবু সাইদ বলেন, তিতাস অল্প অল্প করে মেরামতের কাজ করছে। তিতাসের পক্ষ থেকে তাদের জানানো হয় যে, পানির চাপে গ্যাসের পাইপ ফেটে গিয়ে এ সমস্যা তৈরি হয়েছে। 
এলাকার অনেকেই জানান, ২০১০ সাল থেকেই এখানে গ্যাস লিকেজের সমস্যা ছিল। তিতাসের স্থানীয় অফিসে বার বার অভিযোগ করেও কোনো লাভ হয়নি। এ পর্যন্ত ১৯টি অভিযোগ করা হয়েছে বলে এক বাসিন্দা জানান। মোর্শেদা বেগম জানান, গ্যাসের গন্ধে পানি খাওয়া যায় না। 
১২ নম্বর সেক্টরের ১৩ নম্বর রাস্তায় গিয়ে দেখা মেলে তিতাসের টেকনিশিয়ানের। সেখানে মাটি খুঁড়ে পাইপ মেরামতের কাজ করছেন। সেখানে দায়িত্বে থাকা মো. আলাউদ্দিন জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর ঈদের পরদিন থেকে এ পর্যন্ত ৩০ জায়গায় পাইপ মেরামত করা হয়েছে। আরো কমপক্ষে ১৫ থেকে ২০টি জায়গার পাইপ ঠিক করতে হবে। তিনি জানান, গ্যাসের লাইনের ছয় ইঞ্চি ওপর দিয়ে ওয়াসার পানির পাইপ লাইন স্থাপন করা হয়েছে। এতে গ্যাসের পাইপলাইনের ওপর চাপ পড়েছে। এ কারণে পাইপলাইন ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে তিনি ধারণা করেন। 
তিতাস গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির পরিচালক (অপারেশন) মসিউর রহমান বলেন, আমাদের জনবল কম আছে। তবুও অভিযোগ পেলেই সঙ্গে সঙ্গে সেখানে মেরামত করা হয়। উত্তরার কয়েকটি জায়গাতে পাইপ ফেটে গ্যাস বের হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। সেগুলো পর্যায়ক্রমে মেরামতের কাজ চলছে।

এ জাতীয় আরও খবর

ক্যানসার আক্রান্ত অভিনেত্রীর পাশে ফারহান

যুক্তরাষ্ট্রে ঈদ উদযাপনে গোলাগুলি, আহত ৩

ফিলিস্তিন রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিতে প্রস্তুত স্পেন

গোর-এ-শহীদ ময়দানে ৬ লাখ মুসল্লির ঈদের নামাজ আদায়

একদিনে শীর্ষস্থান হারালেন মুস্তাফিজ

মায়ের জমানো টাকা ও গাড়ি বেচে সিনেমা, হল না পেয়ে কাঁদলেন নায়ক

অপরাজনীতি যেন চিরতরে দূর হয়, প্রার্থনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে আড়ালেই থাকে তাদের কষ্ট

শুধু বিএনপি নয়, পুরো দেশ দুঃসময় পার করছে : মির্জা ফখরুল

ঈদের আনন্দ থেকে কেউ যেন বঞ্চিত না হয় : রাষ্ট্রপতি

রোজায় এক হাজার ইফতার পার্টি করেছে বিএনপি : প্রধানমন্ত্রী

মিরপুর চিড়িয়াখানায় হাতির আঘাতে কিশোরের মৃত্যু