শুক্রবার, ১৯শে আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সরাইলে ইউএনও র‌্যাব-১৪’র ভেজাল বিরোধী অভিযান

sarail pic-23.09মাহবুব খান বাবুল: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে নির্বাহী কর্মকর্তা ও র‌্যাব-১৪ এর একটি দল ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করেছে। মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার ইসলামাবাদ গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলীর মসলার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এ অভিযান হয়েছে। অভিযানকালে তারা মসলায় ভেজাল মেশানোর দায়ে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। র‌্যাব-১৪ ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দফতর সূত্রে জানা য়ায়, ইসলামাবাদ গ্রামের মোহাম্মদ আলী (৫৫) তার নিজ বাড়িতে দীর্ঘদিন ধরে মসলা ভাঙ্গিয়ে সরাইল সহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বাজারজাত করে আসছেন। তিনি মসলার পরিমান বৃদ্ধির উদ্যেশ্যে মরিচের সাথে ইটের গুড়া, হলুদের সাথে কাঠের গুড়া ও ধনিয়ার সাথে ধানের তোষ মিশিয়ে মেশিনের সাহায্যে গুড়া মসলা উৎপাদন করছেন। মোটা অংকের টাকা কামাইয়ের উদ্যেশ্যে তিনি এ অবৈধ কাজ করছেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোেহাম্মদ এমরান হোসেন ও র‌্যাব-১৪ এর অধিনায়ক মেজর সাকিব সিদ্দিকি সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে মোহাম্মদ আলীর মসলা উৎপাদনের কারখানায় অভিযান চালান। এ সময় তারা হাতে নাতে মসলায় ভেজাল মেশানো অবস্থায় ধরে ফেলেন। পরে ভ্রাম্যমান আদালত ভেজাল মেশানোর দায়ে মোহাম্মদ আলীকে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। সেই সাথে ১১’শ ৭০ কেজি পঁচা খাবার অনুপযোগী শুকনো মরিচ ও দুই বস্তা ইটের গুড়া জব্দ করেন। প্রসঙ্গতঃ গত ২/৩ বছর পূর্বে মসলায় ভেজাল মেশানোর দায়ে মোহাম্মদ আলী ও তার ছেলেকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা। দুই মাস হাজত বাসের পর তারা জামিনে বেরিয়ে এসে আবার আগের ব্যবসা শুরু করেন। বিএসটিআই- এর সনদ পত্র ছাড়াই মোহাম্মদ আলী এ কারখানা পরিচালনা করে আসছেন।