বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্ত্রীর পরকিয়ায় খুশি স্বামী!

love-254বর্তমান যুগে লিভ টু গেদারের ঘটনা অহরহ। এবার লিভ টু গেদার ছাড়িয়ে পরকীয়ার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েছে বেশীরভাগ। কিন্তু কোন কোন পরিবারের অশান্তি, বিবাদ আর বিবাহ বিচ্ছেদের মূলেও রয়েছে পরকীয়া। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ঝগড়া বা খুনের ঘটনা অবৈধ সম্পর্ক বা পরকীয়াকে কেন্দ্র করেই হয়ে থাকে। কিন্তু এক্ষেত্রে ঘটনা সম্পূর্ণ উল্টো। 

সম্প্রতি এক ব্যক্তি সেক্স এক্সপার্টকে চিঠি লিখে জানিয়েছেন, বন্ধুর সঙ্গে নিজের স্ত্রীকে সহবাসে লিপ্ত দেখলে তার আনন্দ হয়! এই ব্যক্তির বয়স ৩৩ এবং তার স্ত্রীর বয়স ২৮। এমনিতে তিনি তার স্ত্রীকে খুবই ভালোবাসেন কিন্তু সহবাসের সময় তার থ্রীসাম [ তিন জনে মিলে কোনো কাজ] করতেই বেশি ভালো লাগে। আসলে এই ব্যক্তির জীবনে এটি হলো একটি ফ্যান্টাসি। সে কারণেই তিনি বন্ধুদের সঙ্গে মিলে স্ত্রীর সঙ্গে সহবাস করেন।

তিনি জানান, গত ছয় মাস ধরে আমরা থ্রীসামে লিপ্ত। কিন্তু আমরা বর্তমানে মানসিক অবসাদে ভুগছি। আমাদের ধারণা, আমরা ক্রমাগত থ্রীসাম করার ফলে এটির নেশাগ্রস্থ হয়ে নিজেদের সাধারণ যৌন জীবন হারিয়ে না ফেলি। থ্রীসাম চলাকালীন আমরা একত্রে তিন থেকে চার ঘণ্টা কাটায়। অন্য পুরুষের সঙ্গে নিজের স্ত্রীকে সহবাসে লিপ্ত দেখে আমি আনন্দ অনুভব করি এবং মনেকরি এতে কোনো ভাবেই আমার যৌন জীবন বিঘিœত হতে পারে না।

বিশেষজ্ঞের মতে, ব্যক্তিটি বর্তমানে থ্রীসামে আনন্দ অনুভব হলেও তার গভীর চিন্তা ভাবনার প্রয়োজন। এতে দাম্পত্য জীবন নষ্ট হতে পারে। স্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে তাকে আশ্বাস দেওয়া উচিত যে তিনি তাকে খুব ভালো বাসেন এবং তাদের এগুলো বন্ধ করা উচিত। এই ব্যক্তিকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে। তবে তার বোঝা উচিত, যদি বন্ধুর সঙ্গে স্ত্রীকে যৌন ক্রিয়ার লিপ্ত দেখে তার আনন্দ অনুভব হতে পারে তবে তার স্ত্রীও তাকে ভালোবেসে সেই আনন্দ দিতে পারেন। এই দম্পতি থ্রীসাম ছাড়াও অন্যান্য কিছু যৌন প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে পারেন যাতে তাদের যৌন জীবন আরো অনেক বেশি রোমাঞ্চকর হয়।

এ জাতীয় আরও খবর