মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্যাখ্যা খুঁজে পাচ্ছেন না হাথুরুসিংহে

1e15c1fc478c470c6a55bc28126bdf33-BANGLADESH-1ST-TE‘হতাশ’ শব্দটা বার চারেক উচ্চারণ করলেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। কখনো ‘আমরা খুবই হতাশ’, কখনো ‘আমি যারপরনাই হতাশ’, কখনো বা ‘আমি চরম হতাশ’। কিন্তু এর পরও কি তিনি ভেতরে থাকা পুরো হতাশাটা প্রকাশ করতে পারলেন? মনে হয় না। সেটা না পেরে সম্ভবত বাংলাদেশ কোচ আরেকবার হতাশ।

সত্যি বলতে কি, ওয়েস্ট ইন্ডিজে কিছুই হচ্ছে না বাংলাদেশ দলের। না বোলিং, না ব্যাটিং। এ বছরের শুরু থেকে যে বাংলাদেশ দলকে দেখে আসছে সবাই, এখানেও সেই বাংলাদেশই। এক ফোঁটা উন্নতি নেই। সেন্ট ভিনসেন্ট টেস্টের প্রথম ইনিংসে নির্বিষ বোলিংয়ের পর দায়িত্বজ্ঞানহীন ব্যাটিং আবারও প্রশ্নটা তুলছে—এটা কি সামর্থ্যেরই অভাব, নাকি কমে এসেছে সামর্থ্যকে পারফরম্যান্সে অনুবাদ করার সামর্থ্য?

পরশু বাংলাদেশ ড্রেসিংরুমের সামনে দাঁড়িয়ে কোচের কথা শুনে মনে হলো ব্যর্থতার কারণ হিসেবে দ্বিতীয়টাই মনে ধরছে তাঁর, ‘ওদের প্রায় সবারই গড় রান ২০ থেকে ৩০-এর মধ্যে। সে সঙ্গে নিজেদের প্রয়োগক্ষমতার অভাব তো আছেই। এই উইকেটে ভয়ের কিছু ছিল না। সামর্থ্য যেটুকুই হোক না কেন, সেটার সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। কিন্তু আজকের (পরশু) ব্যাটিং দেখে আমি চরম হতাশ।’

আর্নস ভেল মাঠের ব্যাটিং-স্বর্গ থেকেও কীভাবে ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হয়ে ফিরল, তার সমীকরণ মেলাতে পারছেন না হাথুরুসিংহে। আট ব্যাটসম্যান খেলিয়েও ১৮২ রানে অলআউট হয়ে যাওয়া যেন তাঁর কল্পনারও অতীত, ‘এমন ব্যাটিং দেখা কঠিন। কিন্তু কেন এমন হলো, সেই কারণও খুঁজে বের করতে হবে। আজকের (পরশু) কথা যদি বলি, আমরা খুবই হতাশ। এটা দারুণ এক ব্যাটিং উইকেট। অথচ আমাদের ব্যাটসম্যানরা যেভাবে আউট হলো, তাতে আমি যারপরনাই হতাশ। এত অল্প রানে গুটিয়ে যাওয়ার কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছি না।’

বাংলাদেশ দলের ব্যাটসম্যানদের আউটগুলোর মধ্যে সবচেয়ে দৃষ্টিকটু লেগেছে নাসির হোসেনের ছক্কা মারতে গিয়ে ক্যাচ তুলে দেওয়াটা। এক সাংবাদিক সেটা নিয়ে আলাদা প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলেন কোচের। কিন্তু হাথুরুসিংহের কাছে যে এদিন নাসির-শামসুর-তামিম সবই এক! একটু কঠিন গলায়ই বললেন, ‘কোনোটারই কোনো ব্যাখ্যা নেই। বললামই তো খুব হতাশ। ব্যাখ্যা দেওয়ার কিছু নেই। আমি কেবল ওদের দেখছি। বাংলাদেশের দায়িত্ব নেওয়ার পর এটাই আমার প্রথম টেস্ট ম্যাচ। আমি ওদের টেস্ট ক্রিকেট খেলাটা দেখছি।’

c06b708387bc8f3143c2916359a25b4b-_HAT7881তবে শ্রীলঙ্কান এই কোচ একটা বিশ্বাস এখনই মন থেকে দূর করতে চাচ্ছেন না। সেই বিশ্বাস থেকেই বললেন, ‘আজ (পরশু) যা করল, তার চেয়ে ভালো ওরা করতে পারে। সে প্রতিভা ওদের আছে। এটা নিশ্চিত যে আজকে (পরশু) ওদের যেমন দেখলেন, ওরা তার চেয়ে অনেক ভালো।’


এই টেস্টে টসে জিতে মুশফিকুর রহিমের আগে ফিল্ডিং নেওয়ার সিদ্ধান্তটা নিয়েও বিতর্ক আছে। কোচ ব্যাখ্যা দিতে চাইলেন, ‘উইকেটে আর্দ্রতার ভিত্তিতেই সিদ্ধান্তটি নেওয়া। আমাদের মনে হয়েছিল, শুরুর দিকে উইকেটে কিছু একটা থাকবে। আমরা সেটা কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। ইতিহাসও বলে এখানকার উইকেট দ্বিতীয় কিংবা তৃতীয় দিনে ব্যাটিংয়ের জন্য সহায়ক হয়।’ বোলারদের সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করাটাও নাকি টসে জিতে ফিল্ডিং নেওয়ার একটা কারণ। ‘আর্দ্রতার সুবিধা কাজে লাগিয়ে কিছু উইকেট তুলে নেওয়ার আশা করেছিলাম। আশা ছিল স্পিনাররাও বাড়তি টার্ন পাবে। বোলিং নেওয়ার পেছনে এসব চিন্তাও কাজ করছিল’—বলছিলেন কোচ।


চিন্তাগুলো যে বুমেরাং হয়েছে, তা তো এখন ভালোভাবেই প্রমাণিত। লাভ হয়নি আট ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলেও। আট ব্যাটসম্যানের ব্যাপারে কোচের ব্যাখ্যা, ‘এই একাদশে আমাদের আটজন ব্যাটসম্যান। আমরা লম্বা সময় ব্যাটিং করার চিন্তা করেছিলাম। যেটা আমরা একদমই করতে পারিনি। তার ওপর বোলার যখন মাত্র তিনজন, তখন এমন ব্যাটিংয়ে কাজটা আসলেই কঠিন হয়ে যায়।’


যখন কথা বলছিলেন, সেন্ট ভিনসেন্ট টেস্টের এক ইনিংস তখনো বাকি। এরপর আছে সেন্ট লুসিয়া টেস্টও। হাথুরুসিংহে তাই আশায় বুক বাঁধছিলেন, ভুল শুধরে নতুন করে ফিরে আসবে সবাই, ‘ওরা নিজেদের মেলে ধরতে পারছে, এটাই দেখতে চাইব। আশা করছি, সবাই খুব তাড়াতাড়ি শিখবে এবং টেস্ট ক্রিকেটের চাপটা বুঝবে। ওরা যা করতে পারে, তার সর্বোচ্চটাই যেন দেওয়ার চেষ্টা করে।’


চন্ডিকা হাথুরুসিংহে একা নন, এই বিশ্বাস, এই আশা সবারই। কিন্তু আশা পূরণের ভার যাঁদের কাঁধে, নিজেদের ওপর তাঁদের বিশ্বাস কতটুক?




স্কোরকার্ড


ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনিংস: ৪৮৪/৭ ডি.


বাংলাদেশ ১ম ইনিংস


রান বল ৪ ৬


তামিম ক ব্রাভো ব রোচ ১ ১১ ০ ০


শামসুর ক ব্রাভো ব বেন ৩৫ ৯৫ ৫ ০


ইমরুল ক ব্রাভো ব টেলর ৯ ১২ ১ ০


মুমিনুল ক রামদিন ব গ্যাব্রিয়েল ৫১ ১১২ ৭ ০


মাহমুদউল্লাহ এলবিডব্লু ব ব্ল্যাকউড ২ ২৩ ১ ০


মুশফিক অপরাজিত ৪৮ ৭৯ ৬ ০


নাসির ক বেন ব ব্ল্যাকউড ২ ২৪ ০ ০


শুভাগত ক ও ব বেন ১৬ ২৫ ৩ ০


তাইজুল ক ব্রাভো ব বেন ২ ১৫ ০ ০


রুবেল ক রামদিন ব বেন ১ ১৮ ০ ০


আল আমিন ক ব্রাভো ব বেন ৫ ১৭ ১ ০


অতিরিক্ত (লেবা ২, ও ২, নো ১) ৫


মোট (৭১.৪ ওভারে অলআউট) ১৮২


উইকেট পতন: ১-১ (তামিম, ৩.২ ওভার), ২-১৮ (ইমরুল, ৬.৩), ৩-৮০ (শামসুর, ৩৩.৩), ৪-১০৫ (মুমিনুল, ৪০.৬), ৫-১১০ (মাহমুদউল্লাহ, ৪২.৪), ৬-১১৮ (নাসির, ৪৮.৫), ৭-১৪৭ (শুভাগত, ৫৪.৪), ৮-১৫৫ (তাইজুল, ৫৮.৪), ৯-১৬৬ (রুবেল, ৬৫.৬)।


বোলিং: টেলর ১৫-৪-৪৬-১ (ও ২), রোচ ১৩-৪-৩১-১, গ্যাব্রিয়েল ১৩-২-৫০-১, বেন ২৪.৪-৮-৩৯-৫ (নো ১), ব্ল্যাকউড ৬-১-১৪-২।


বাংলাদেশ ২য় ইনিংস (ফলো অন)


তামিম ব বেন ৫৩ ১০৭ ৪ ৩


শামসুর ক রামদিন ব রোচ ৪ ৮ ১ ০


ইমরুল ক এডওয়ার্ডস ব গেইল ২৫ ৭২ ৪ ০


মুমিনুল ক রামদিন ব বেন ১২ ২৬ ২ ০


মাহমুদউল্লাহ ব্যাটিং ৪১ ১০২ ৪ ১


মুশফিকুর ব্যাটিং ৩৩ ১০০ ৩ ০


অতিরিক্ত (বা ১০, লেবা ৩, ও ২, নো ১) ১৬


মোট (৬৯ ওভারে, ৪ উইকেটে) ১৮৪


উইকেট পতন: ১-১১ (শামসুর, ৩.২), ২–৮১ (ইমরুল, ২৫.৩), ৩–১০৪ (মুমিনুল, ৩২.২), ৪–১০৭ (তামিম. ৩৬.৪)।


বোলিং: টেলর ৯-০-৩৫-০, রোচ ১১-৫-২৪-১ (ও ১), গ্যাব্রিয়েল ৯-৭-৫-০ (ও ১), ব্ল্যাকউড ৭-১-২৬-০, বেন ২০-৬-৩৪-২ (নো ১), গেইল ১৩–১–৪৭–১।


*চতুর্থ দিন চা–বিরতি পর্যন্ত

এ জাতীয় আরও খবর

মেয়রের সামনে কাউন্সিলরকে জুতাপেটা করলেন চামেলী!

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আবেদন

নির্বাচনের পর আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে সরকার : ফখরুল

২৪ উপজেলায় ইভিএমে ভোট হবে মঙ্গলবার

এলজিইডি’র সেই প্রকৌশলীর স্ত্রীরও ৬ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ!

রাইসির হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় আমরা জড়িত নই: ইসরায়েলি কর্মকর্তা

কঠোরভাবে বাজার মনিটরিংয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

‘গিভ অ্যান্ড টেকের অফার অনেকেই দেয়, মেডিকেলের স্যারও দিয়েছিল’

বিয়ের পর আমার কাজের মান ভালো হয়েছে

৪ দিনেও খোঁজ মেলেনি ভারতে নিখোঁজ এমপি আনারের

বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক দেবে সরকার, পুরস্কার কোটি টাকা ও স্বর্ণ পদক

অটোরিকশা চালকদের তাণ্ডবের ঘটনায় ৪ মামলা, আসামি প্রায় ২৫০০