মঙ্গলবার, ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিয়ে দ্বন্দ্বে, বেতন বন্ধ

b bari schoolব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার ব্রাহ্মণবাড়িয়া উচ্চবিদ্যালয়ের ১৯ জন শিক্ষকসহ ২৪ জন চার মাস ধরে সরকারি বেতন-ভাতা পাচ্ছেন না। প্রধান শিক্ষক নিয়ে শিক্ষা বোর্ড ও ব্যবস্থাপনা কমিটির মধ্যে দ্বন্দ্বের জের ধরে এ সমস্যার সৃষ্টি হওয়ায় তাঁরা বিপাকে পড়েছেন।


তিন মাস ধরে বেতন-ভাতা বন্ধ থাকার প্রতিবাদে বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা গতকাল সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। গতকাল সকাল ১০টায় তাঁরা এ ঘোষণা দেন। শিক্ষকেরা ক্লাসে না যাওয়ায় শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফিরে যায়।


সহকারী প্রধান শিক্ষক গোলাম মোস্তফা অভিযোগ করেন, প্রধান শিক্ষককে নিয়ে দ্বন্দ্বের জের ধরে গত মে মাস থেকে তাঁদের বেতন-ভাতা বন্ধ রয়েছে। বেতনের বিষয় নিয়ে কথা বলায় গত ৩০ আগস্ট ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য এনামুল হক তাঁকে প্রধান শিক্ষক আবুল কাসেমের কক্ষে লাঞ্ছিত করেছেন। সরকারি বেতন না পাওয়ায় শিক্ষকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। দীর্ঘদিন ধরে বিষয়টির সুষ্ঠু সমাধান হচ্ছে না। তাই যতক্ষণ পর্যন্ত বিষয়টির কোনো সমাধান না হবে, শিক্ষকেরা ক্লাসে ফিরে যাবেন না।


কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের নথিপত্র সূত্রে জানা গেছে, ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কাসেম ১৯৭৩ সালের ৭ নভেম্বর সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগ দেন। ২০০৪ সালের ১৫ জুলাই তিনি প্রধান শিক্ষক হন। ২০১১ সালের ৩১ ডিসেম্বর তাঁর ৬০ বছর পূর্ণ হয়। এরপর ব্যবস্থাপনা কমিটি তাঁর চাকরির মেয়াদ প্রথম দফায় দুই বছর বাড়ানোর জন্য বোর্ডে আবেদন করে। চলতি বছর ব্যবস্থাপনা কমিটি তাঁর চাকরির মেয়াদ আরও দুই বছর বাড়ানোর জন্য বোর্ডে আবেদন করে। কিন্তু বোর্ড ওই আবেদন গ্রহণ করেনি। গত ৬ মার্চ বোর্ড চিঠির মাধ্যমে প্রধান শিক্ষককে অবসর নিয়ে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষককে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দেওয়ার নির্দেশ দেয়। এর পরও নির্দেশ না মানায় ২৭ এপ্রিল আবার একই নির্দেশ দেয় বোর্ড।


মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) সূত্রে জানা গেছে, অবৈধভাবে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালনের কারণে বিদ্যালয়ের এমপিও কেন সাময়িক স্থগিত করা হবে না, এর ব্যাখ্যা চেয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কুমিল্লা বোর্ডের চেয়ারম্যানের কাছে গত ১৮ জুন একটি নোটিশ পাঠানো হয়। একই তারিখে বিদ্যালয়ে নতুন ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনের নির্দেশও দেওয়া হয়। কিন্তু বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি অধিদপ্তরের চিঠির উত্তর না দিয়ে আদালতে পর পর তিনটি মামলা দায়ের করে। এ ব্যাপারে কুমিল্লা বোর্ডের চেয়ারম্যান ইন্দু ভূষণ ভৌমিকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, জেলা প্রশাসক বিষয়টি ভালো জানেন। এ ব্যাপারে তাঁর সঙ্গে কথা বলেন।


জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন বলেন, মাউশি ওই বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটিকে প্রধান শিক্ষকের পদ থেকে আবুল কাসেমকে সরানোর নির্দেশ দিয়েছে। কমিটি সেই নির্দেশ মানছে না। পরে ব্যবস্থাপনা কমিটি ভেঙে অ্যাডহক কমিটি গঠন করার নির্দেশ দিয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর। ইতিমধ্যে মাউশির মহাপরিচালক সেই শিক্ষকের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে কী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জেলা প্রশাসক তা বলেননি।


জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা কাজি সলিম উল্লাহ বলেন, ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে প্রধান শিক্ষক পদে কেউ থাকতে পারেন না। ৬০ বছর পার হওয়ার পরও তিনি যে দুই বছর থেকেছেন সেটাই বেআইনি। তিনি আরও বলেন, বোর্ড ওই প্রধান শিক্ষকের চাকরির মেয়াদ বাড়ানোর কোনো আবেদন মঞ্জুর করেনি। এখন প্রধান শিক্ষক সরে গেলেই শিক্ষকদের বেতন-ভাতা নিয়ে জটিলতা কেটে যাবে।


প্রধান শিক্ষক আবুল কাসেম দাবি করেন, ‘আমার মেয়াদ শেষ হয়ে যায়নি। সদরের ইউএনও কীভাবে চিঠি দিয়ে ব্যাংককে আমার স্বাক্ষর করা কাগজ গ্রহণ করতে নিষেধ করেছেন, তা আমার বোধগম্য নয়। এ ছাড়া বোর্ড আমাকে যে চিঠি দিয়েছে, এরও জবাব আমি দিয়েছি।’


সদরের ইউএনও আশরাফুল আলম বলেন, যেহেতু ওই প্রধান শিক্ষকের চাকরির বয়স শেষ, তাঁর স্বাক্ষর এবং পদে থাকাটা সম্পূর্ণ অবৈধ।

 

এ জাতীয় আরও খবর

মেয়রের সামনে কাউন্সিলরকে জুতাপেটা করলেন চামেলী!

নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানার আবেদন

নির্বাচনের পর আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে সরকার : ফখরুল

২৪ উপজেলায় ইভিএমে ভোট হবে মঙ্গলবার

এলজিইডি’র সেই প্রকৌশলীর স্ত্রীরও ৬ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ!

রাইসির হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় আমরা জড়িত নই: ইসরায়েলি কর্মকর্তা

কঠোরভাবে বাজার মনিটরিংয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

‘গিভ অ্যান্ড টেকের অফার অনেকেই দেয়, মেডিকেলের স্যারও দিয়েছিল’

বিয়ের পর আমার কাজের মান ভালো হয়েছে

৪ দিনেও খোঁজ মেলেনি ভারতে নিখোঁজ এমপি আনারের

বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক দেবে সরকার, পুরস্কার কোটি টাকা ও স্বর্ণ পদক

অটোরিকশা চালকদের তাণ্ডবের ঘটনায় ৪ মামলা, আসামি প্রায় ২৫০০