শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিক্ষকের কীর্তি, ৪৫ দিনে ৭ ছাত্রীর গর্ভপাত!

gorbopathডেস্ক রিপোর্ট : ভারতের পূর্ব বেঙ্গালোরের কানাকাপুরা রোডের একটি বেসরকারি স্কুলে ৪৫ দিনে সাত ছাত্রীর গর্ভপাত ঘটানোর মতো ঘটনা ঘটেছে। আর এর সঙ্গে জড়িত ৬৪ বছর বয়সী এক খ-কালীন শিক্ষক।
চন্দ্রমৌলি নামে ওই শিক্ষক একজন অবসরপ্রাপ্ত পোস্টম্যান। চাকরি থেকে অবসর নেওয়ার পর শিক্ষকতার মতো মহান পেশায় তিনি আগ্রহ দেখান। এরপর এক বন্ধুর মাধ্যমে ওই স্কুলটিতে চাকরি নেন তিনি। অভিযোগ উঠেছে, ওই শিক্ষক একাধিক ছাত্রীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের ধর্ষণ করেন। পরে ওইসব শিক্ষার্থীর কেউ কেউ অন্তঃসত্তা হয়ে পড়লে জোরপূর্বক তাদেরকে গর্ভপাত করাতে বাধ্য করেন।
গত পাঁচ আগস্ট আট বছর বয়সী এক ছাত্রীর অভিভাবকের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এই খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে স্কুলটি সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করা হয়।
গতকাল সোমবার স্কুলটি আবার চালু করা হলে ওই ছাত্রী ভয়ে স্কুলে ফিরতে অসম্মতি জানায়। এরপর কেঁচো খুড়তে বেরিয়ে আসে সাপ। সাতজন ছাত্রী জানিয়েছে, তারাও একই রকম নোংরামির শিকার হয়েছেন। এখন পর্যন্ত নতুন করে তালঘাট্টাপুরা পুলিশের কাছে ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন তিন শিক্ষার্থীর অভিভাবক।
প্রসঙ্গত, এর আগে ওই ঘটনার প্রতিবেদন জমা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় স্কুলের প্রিন্সিপাল লক্ষ্মীকান্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তিনি এখন জামিনে মুক্ত আছেন।