বুধবার, ২২শে মার্চ, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ৮ই চৈত্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

প্রতিবাদের ভাষা যখন হাসি

1406749756209296200

তুরস্কের উপপ্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি এক বক্তব্যে নারীদের নৈতিকভাবে ঠিক থাকতে বলেছেন। আর এর অংশ হিসেবে তিনি তাদের জনসমক্ষে হাসাহাসি করতেও বারণ করেছেন। তবে তার এ নিষেধ হিতে বিপরীত হয়ে গেছে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ইনডিপেনডেন্ট।

তুর্কি উপপ্রধানমন্ত্রী বুলেন্ত আরিঞ্চর দেওয়া সে ভাষ্যের পর বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাকে নিয়ে হাসাহাসি ও বিদ্রুপ শুরু হয়। এ ছাড়াও বহু নারী তাদের হাসিখুশি ছবি অনলাইনে পোস্ট করা শুরু করে। এর একটি বড় অংশ ছিল সেলফি বা নিজেই নিজের তোলা ছবি।

নৈতিকতার ওপর বক্তব্য দেওয়ার সময় মি. আরিঞ্চ বলেছিলেন, ‘নারীদের জনসমক্ষে হাসা উচিত নয়। তার আচরণ দিয়ে অন্যকে আকর্ষণ করা উচিত নয় এবং তাদের শুদ্ধতা রক্ষা করা উচিত।’

এ বক্তব্যের পর হাজার হাজার তুর্কি নারী তাকে হাস্যকর হিসেবে অভিহিত করে। এ জন্য তারা তাদের হাসিখুশি ছবি অনলাইনে প্রকাশ করা শুরু করে। তাদের এ ছবিগুলো হ্যাশট্যাগ #kahkaha (হাসি) and #direnkahkaha (প্রতিবাদ, হাসি)-এ প্রকাশ করা হয়।

বিবিসির এক হিসাবে অনলাইন হ্যাশট্যাগে প্রায় তিন লাখ নারী মন্তব্য ও ছবি দিয়ে উপপ্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদ করেন।

বক্তব্যের এমন প্রতিক্রিয়ার বিষয়ে উপপ্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘আমার বক্তব্যের একটি অংশ তুলে ধরে কিছু মানুষ সমালোচনা শুরু করেছে। আমার বক্তব্য ছিল দেড় ঘণ্টার। এ প্রতিক্রিয়া ভিত্তিহীন ও বিরক্তিকর। যারা আমার সম্পূর্ণ বক্তব্যটি শুনবেন, তারা বিষয়টি বুঝতে পারবেন।’

এ জাতীয় আরও খবর