শনিবার, ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাসিরনগরে পৃথক সংঘর্ষে দেড় শতাধিক আহত

Nasirnagar

নাসিরনগর সংবাদদাতা : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে  পৃথক সংঘর্ষে দেড় শতাধিক লোক আহত হয়েছে। আজ সোমবার নাসিরনগর উপজেলার বুড়িশ্বর ইউনিয়নের আশুরাইল গ্রামে এবং পূর্বভাগ ইউনিয়নের মকবুলপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ২৭ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে।
পুলিশ ও গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, চট্রগ্রামে কর্মরত মুড়াকড়ি গ্রামের হকার ও আশুরাইল গ্রামের হকারের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনার জের ধরে সোমবার সকালে সড়ক দিয়ে যাওয়ার সময় মুড়াকড়ি গ্রামের হকারদের আশুরাইল গ্রামের হকাররা বাঁধা দেয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আশুরাইল গ্রামের বর্তমান মেম্বার ফরিদ মিয়া ও সাবেক মেম্বার করিম মিয়ার লোকজন লাঠিসোঁটা, বল্লম, ইটপাটকেল ও দা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।
প্রায় তিন ঘন্টা স্থায়ী সংঘর্ষে উভয় পক্ষের শিশু ও নারীসহ শতাধিক লোক আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে করীম মেম্বার (৫০),সফিকুল ইসলাম (২৫) ও নাইম মিয়াসহ (৪০) আটজনকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এছাড়া আহত ১১২ জনকে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
খবর পেয়ে নাসিরনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ২৭ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে এলাকাবাসীর সহায়তায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
নাসিরনগর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ ইয়াছিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন পক্ষই থানায় অভিযোগ দেয়নি। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।
এদিকে একই দিন সকালে উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের মকবুলপুর গ্রামে মালিকানাধীন পুকুরে মাছ ধরা নিয়ে গ্রামের জিতু মিয়া ও অলি মিয়ার লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ঘন্টাব্যাপী স্থায়ী সংঘর্ষে উভয় পক্ষের নারীসহ প্রায় ৩০ জন আহত হয়েছে।
আহতদের মধ্যে ফকরুল ইসলাম (৫০) ও ফুলতারা বেগমকে(৩০) জেলা সদর হাসপাতালে এবং দুইজনকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া ২০ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।