শুক্রবার, ৩১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফিলিস্তিনে মানবতার উন্মেষ ঘটুক

filistinমধ্যপ্রাচ্যের সমস্যা আন্তর্জাতিক সমস্যাগুলোর মধ্যে এখন অন্যতম তীব্র ও ভয়াবহ। তিন জাতি তথা ইহুদি, খ্রিস্টান ও মুসলমানদের পবিত্র স্থান ইসরাইল-ফিলিস্তিন অঞ্চল তথা জেরুজালেম। কারও কারও বিশ্বাস, এ অঞ্চলে বায়তুল মোকাদ্দাসে একটি বিশেষ স্থানে মহান আল্লাহ সতত অবস্থান করেন।
 
ধর্মপুস্তক তাওরাতে ইহুদিদের জন্য ‘প্রতিশ্র“তি ভূমি’ ওই অঞ্চলে প্রদানের ঘোষণা দেয়া রয়েছে। কাজেই ধর্মীয় অনুভূতিতে ইহুদিরা এ মাটির অধিকার ছাড়তে একটুও রাজি নয়। আবার ইসলামের তৃতীয় পবিত্র স্থান হলো জেরুজালেম।
 
অন্যদিকে যিশুখ্রিস্টও জন্মগ্রহণ করেন ইসরাইল-ফিলিস্তিন অঞ্চলে। এ ত্রিমাত্রিক দাবির পবিত্র ভূমি জেরুজালেম বা ইসরাইল-ফিলিস্তিন ভূমি মানবিক বিপর্যয়ের দ্বন্দ্বভূমিতে পরিণত হয়েছে বহু বছর আগে থেকেই।
 
উল্লেখ্য, এক সময় ইসরাইল-ফিলিস্তিন অঞ্চলটি রোমান সম্রাটের অধীনে চলে যায়। আবার ইসলামের আবির্ভাবের পর মুসলমানরা খ্রিস্টানদের কাছ থেকে দখল করে নেয় এবং প্রায় ৭০০ বছর নিজেদের দখলে রাখে। এ ৭০০ বছর ইহুদিরা পৃথিবীর বিভিন্ন ভূখন্ডে যাযাবর জাতি হিসেবে বসবাস করত। আবার খ্রিস্টানরা ওই ভূমি পুনরুদ্ধারের জন্য ক্রুসেড বা ধর্মযুদ্ধে অংশ নেয়। এরপর ১৯৪৮ সালের ১৪ মে ইহুদিরা ইসরাইল নামক স্বাধীন রাষ্ট্র গঠন করে। তাদের স্বাধীন জাতীয় আবাসভূমি গঠনে নেতৃত্ব দেন থিওডর হার্জল। ইহুদিরা ইসরাইল নামক রাষ্ট্র গঠনের আগে যখন যাযাবর ছিল, তখন তাদের জীবনের ইতিহাসও সুখকর ছিল না।
 
ফিলিস্তিনকে নিজেদের অধিকারে রাখার অদম্য ইচ্ছার কারণে যুগে যুগে ফিলিস্তিনে শান্তি বিঘ্নিত হয়েছে, মানবাধিকার লক্সঘন হয়েছে, মানবিক বিপর্যয় ঘটেছে বারবার। পৃথিবীর একক পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র বলে বিশ্বের অধিকাংশ মানুষ মনে করে। একইভাবে মধ্যপ্রাচ্যের পরাশক্তি হচ্ছে ইসরাইল-এটিও অনেকের ধারণা। ফলে এ কথাও সত্য, ইসরাইলকে চ্যালেঞ্জ করার মতো শক্তিশালী দেশ মধ্যপ্রাচ্যে নেই।
 
আর এ জন্যই মধ্যপ্রাচ্যে ব্যালান্স অব পাওয়ার বা শক্তিসাম্য নষ্ট হয়েছে। এ কারণেই ইসরাইল হয়ে উঠেছে মারাত্মক ও ভয়ঙ্কর রকমের আশাবাদী, ফিলিস্তিনকে তারা দখল করে নিতে পারবে এবং তারা যেমন এক সময় যাযাবর ছিল ফিলিস্তিনের মুসলিমদেরও যাযাবর করতে হবে প্রতিশোধ হিসেবে। প্রতিশোধ একটি নেতিবাচক মানসিক অবস্থা, যা নীতি-নৈতিকতা ও মানবতাবিবর্জিত। যে ব্যক্তি বা যে জাতির মধ্যে প্রতিশোধ স্পৃহা চরম আকার ধারণ করে সে ব্যক্তি বা জাতি হয়ে ওঠে ভীষণ স্বেচ্ছাচারী, নিষ্ঠুর ও প্রাণসংহারি। ধর্মীয় অনুভূতি ভালো, প্রবল ধর্মীয় অনুভূতিও মানুষের কল্যাণে আরও ভালো হতে পারে। নিজেদের ধর্মীয় পবিত্র জায়গা দখল করে বা অন্যদের ধর্মীয় পবিত্র জায়গা জবরদখল করে মানুষ নিধন বা নরহত্যার মতো পাপের ভয় থাকাটা যে কোনো ধর্মভীরু মানবগোষ্ঠীর স্বাভাবিক। সব ধর্মই মানুষকে নৈতিকতা শিক্ষা দেয়।
 
স্রষ্টা কর্তৃক এমন কোনো সম্মতি নেই বা থাকতে পারে না যে, মানুষ হত্যা করে, পুড়িয়ে, ঘরবাড়ি, জমিজমা, দেশ, মাটি, ভিটা ছাড়া করে ধর্মচর্চা, রাজ্য জয়, শাসন, শোষণ করতে হবে। যিশুখ্রিস্টের এমন শিক্ষা, আল্লাহর এমন শিক্ষা বা মুসা (আ.) এর এমন শিক্ষা নেই যে, নারী-শিশু, বৃদ্ধ আপামর জনসাধারণ যারা নিরীহ, নিষ্পাপ, নিরপরাধ তাদের হত্যা করতে হবে। লোভ, স্বার্থপরতা, প্রতিহিংসা, ক্ষমতার উদগ্র বাসনা যে মানুষকে শুধু অজ্ঞ ও পাগল বা উন্মাদ করে তাই নয়-গোটা জাতিকেও উন্মাদ করে দেয়-তার বড় প্রমাণ আজকের ইসরাইলি বা ইহুদি জাতির রক্তপিপাসা।
 
আমরা লক্ষ করছি- মধ্যপ্রাচ্যে শিশু-নারী ও সাধারণ মানুষের জীবনহানি ও নৃশংসতা সৃষ্টির মাধ্যমে গোটা ধরণী যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে। রাজ্য জয়ই হোক আর স্বর্গ জয়ই হোক কোনো জয়ই সাধারণ নিরপরাধ মানুষের জীবন ও সম্পদ ধ্বংস করে বা নষ্ট করে অর্জন করতে পারে না কোনো সভ্য মানুষ। কেউ কেউ সন্দেহ করেন, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থা কি কারও লেজুড়বৃত্তি করছে? জাতিসংঘ সৃষ্টি হয়েছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বীভৎস ভয়াবহ ধ্বংসযজ্ঞের হাত থেকে পৃথিবীকে বাঁচিয়ে শান্তিশৃক্সখলা, নিরাপত্তা ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট রুজভেল্ট ও ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিলের মহৎ উদ্দেশ্য কি জাতিসংঘ মনে রাখছে?

এ জাতীয় আরও খবর

নজরুল পুরস্কার পেলেন চার গুণী

জামানত হারিয়েছেন ওবায়দুল কাদেরের ভাই শাহাদাত

ভিসা হয়নি ২৯২ হজযাত্রীর, ৯ এজেন্সির ব্যাখ্যা তলব

শাকিবের জীবনে প্রথম প্রেমিকা আমি : অপু বিশ্বাস

সাকিবের দলে খেলবেন মিলার

র‍্যাবের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উত্তম কুমারের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

বেনজীরের বিরুদ্ধে টাকা সরানোর প্রমাণ পেয়েছে দুদক

ঈদযাত্রায় একদিন একটু কষ্ট হলে কী আসে-যায়: কাদের

ফরিদপুর-১ আসনের সাবেক এমপি মনজুর হোসেন আর নেই

দস্যুতা না ছাড়লে দুঃসংবাদের খবর দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

‘দেশের সবচেয়ে লাভজনক’ কক্সবাজার স্পেশাল ট্রেন বন্ধ

সরকারের স্বার্থ নয়, জনগণের অধিকার নিশ্চিতে কাজ করব : ইসির নতুন সচিব