বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা জজের আদেশ বাতিল বিষয়ে রুল

High-Court650-e1405426703852ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ব্যবসায়ী শাহিনুর হত্যা মামলায় জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্র্রেটের দেয়া আদেশকে সংশোধন করে জেলা ও দায়রা জজের দেয়া আদেশ কেন অবৈধ ও বাতিল ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।মঙ্গলবার বিচারপতি শওকত হোসেন ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ একটি ফৌজদারি কার্য বিধির আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে এ আদেশ দেন এ বিষয়ে আবারো শুনানির জন্য আগামী ৩ সেপ্টেম্বর পরবর্তী দিন নির্ধারণ করা হয়েছে।রিটে বিবাদী র‌্যাব-১৪ (ভৈরব ক্যাম্প) এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর এ জেড এম সাকিব সিদ্দিক, র‌্যাবের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. এনামুল হক এবং স্থানীয় নজরুল ইসলাম ও আবু তাহের মিয়াকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

আদালত সূত্রমতে, শাহিনুরকে হত্যার অভিযোগে র‌্যাব-১৪ এর অধিনায়ক মেজর এ জেড এম সাকিব সিদ্দিককে প্রধান আসামি করা হয়। এছাড়া এসআই এনামুল হক, নবীনগরের কৃষ্ণনগর গ্রামের নজরুল ইসলাম ও উপজেলা সদরের আবু তাহেরের নাম উল্লেখসহ র‌্যাবের অজ্ঞাতনামা আরও সাতজনকে আসামি করা হয়।

গত ১ জুন শাহিনুরের ছোট ভাই মেহেদী হাসান বাদী হয়ে ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুন নাহারের কাছে এ আবেদন করেন।ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ৪ জুন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত সু্ষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে পুলিশকে এ মামলায় প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদন (এফআইআর) দাখিল করে তদন্তের নির্দেশ দেন। একই সঙ্গে তদন্তভার সিআইডির ওপর অর্পণের জন্য বলা হয়।

এরপর আসামি র‌্যাব-১৪ এর এসআই এনামুল হক ওই আদেশের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা দায়রা জজ আদালতে ফৌজদারি রিভিশন দায়ের করেন। তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ৮ জুন জেলার দায়রা জজ মো. কাওসার ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের আদেশ সংশোধন করেন এবং অভিযোগের ওপর অনুসন্ধান করার পর এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার আদেশ দেন।

আসামিরা আত্মসমর্পণ না করেই দায়রা জজ আদালতে রিভিশন আবেদন করতে পারে কীনা এবং দায়রা জজ এ বিষয়ক আদেশ দিতে পারেন কিনা সে বিষয়কে চ্যালেঞ্জ করে ১৩ জুলাই  হাইকোর্টে এ আবেদন করা হয়।

মামলা সূত্রমতে, গত ২৯ এপ্রিল দুপুরে র‌্যাব-১৪ এর কোম্পানি কমান্ডার মেজর এ জেড এম সাকিব সিদ্দিকের নেতৃত্বে একটি দল বগডহর গ্রামের হাজী রহিস উদ্দিনের ছেলে শাহীনূরকে নবীনগরের বগডহর তার নিজ বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়। এরপর তাকে নবীনগর থানায় হস্তান্তর না করে ভৈরব ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে শাহীনূরকে নির্মমভাবে পিটিয়ে জখম করা হয়। বেধরক পেটানোর কারণে একপর্যায়ে তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরদিন ৩০ এপ্রিল র‌্যাব নবীনগর থানায় মামলা দিয়ে তাকে কারাগারে পাঠায়।

এদিকে, নির্যাতনে আহত শাহীনূর ব্রাহ্মণবাড়িয়া কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়লে ৪ মে কারা কর্তৃপক্ষ প্রথমে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সদর হাসপাতাল থেকে তাকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬ মে সকালে শাহীনূরের মৃত্যু হয়।

এব্যাপারে নিহতের ভাই ইমাম মেহেদী হাসান বাদী হয়ে গত ১ জুন ব্রাহ্মণবাড়িয়া ম্যজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন। ম্যাজিস্ট্রেট মামলার শুনানির জন্য ৪ জুন দিন নির্ধারণ করেন। মামলায় র‌্যাব-১৪ এর অধিনায়ক এ জেড এম সাকিব সিদ্দিক ও র‌্যাবের একজন এসআই, দুজন সোর্সসহ অজ্ঞাতনামা সাতজনকে আসামি করা হয়।

 

 

বাংলামেইল২৪ডটকম

 

 

এ জাতীয় আরও খবর

সেপটিক ট্যাঙ্কে মিলল আনারের দেহের ‍অংশ

এমপি আনার খুন: দেহাংশ খুঁজতে ভাঙা হবে সঞ্জীবা গার্ডেনসের স্যুয়ারেজ লাইন

প্রাথমিকে ৪৬ হাজার শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া হাইকোর্টে স্থগিত

বেনজীর ও তার স্ত্রী-সন্তা‌নদের সব বিও হিসাব ফ্রিজ

ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিলো স্পেন-নরওয়ে

কাল ঢাকায় আসছেন আইএমও মহাসচিব

আরও তিন উপজেলার ভোট স্থগিত

ঈদুল আজহায় ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির তারিখ ঘোষণা

উপকূলে এখনো থামেনি ঘূর্ণিঝড় রিমালের দাপট

বিয়ের ১২ দিন পর স্ত্রী হয়ে গেলেন পুরুষ

অপরাধী হলে শাস্তি পেতেই হবে, সাবেক সেনাপ্রধান-আইজিপির বিষয়ে কাদের

সরকারি চাকরিতে ৩ লাখ ৭০ হাজার পদ ফাঁকা : জনপ্রশাসনমন্ত্রী