শুক্রবার, ২৪শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ক্যারিয়ার ধ্বংস হতে পারে যে ৮টি বদ অভ্যাসের কারণে

careear finishকর্মক্ষেত্রে শুধু কাজ নয় আরো কিছু বিষয় আছে, যার সঠিক ব্যবহারে উন্নতি হতে পারে আপনার। শুধু 'মুখ গুজে' কাজ করলেই প্রতিষ্ঠান আপনাকে মূল্যবান কর্মী বলে মনে করবে না। অন্যকে জানাতে হবে আপনার কাজের সাফল্য। এসব বিষয়ে ব্যর্থতা আপনাকে অন্যদের পেছনে ফেলে দেবে। এমনকি এতে নষ্ট হতে পারে আপনার ক্যারিয়ারও। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিজনেস ইনসাইডার। এ লেখায় থাকছে আপনার ক্যারিয়ার নষ্ট করতে পারে এমন আটটি বদ অভ্যাস।
১. নিজের কাজের সাফল্য অন্যের কাছে তুলে না ধরা
আপনার কাজে আপনি খুবই দক্ষ। এ ক্ষেত্রে আপনার সফলতাও প্রচুর। কিন্তু তা যদি অন্যরা জানতে না পারে তাহলে তা কোনোই কাজে আসবে না। নিজেকে উপস্থাপন না করলে প্রতিষ্ঠানে আপনার বেতন, পদ ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা বাড়বে না।
নীরবে কাজ করতে থাকলে অন্য কেউ আপনার কথা জানতে পারবে না। তা সেটা যত বড় কাজই হোক না কেন, অন্যরা আপনার কথা বলতে এগিয়ে যাবে না। এ কারণে 'নিজের ঢোল নিজেই পেটান'- এ নীতি অনুযায়ী চলতে না পারলে বাস্তবে আপনার ক্যারিয়ার নষ্ট হয়ে যেতে পারে।
২. কাজকর্মে রক্ষণশীল হওয়া
কর্মক্ষেত্রে আপনার কাজ যদি নিয়ম রক্ষার মতো হয়ে দাঁড়ায়, কোনো উন্নতি বা অবনতি ছাড়া তাহলে তা অন্যদের কাছে একঘেঁয়ে হয়ে পড়তে পারে। আর এ ক্ষেত্রে আপনার কাজের উদ্দেশ্য যদি হয় শুধুই নিজেকে রক্ষা করা তাহলে তা ক্যারিয়ারের মারাত্মক ক্ষতির কারণ হতে পারে।
আপনার পেশাগত জীবনে উন্নতির জন্য প্রয়োজন নিজের ভালো ও কর্মঠ ইমেজ গড়ে তোলা। এর বদলে শুধুই রক্ষণশীলভাবে কাজ করতে থাকলে তা ক্যারিয়ারের ক্ষতি করে।
৩. তাড়াহুড়া করে সিদ্ধান্ত নেওয়া
সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে চিন্তাভাবনা না করা একটা বাজে অভ্যাস। এটি হতে পারে তা কর্মক্ষেত্রের কোনো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত, যা তাড়াতাড়ি নিতে গিয়ে ভুল করলে আপনার কর্মক্ষেত্রে ক্ষতি হতে পারে। এ ছাড়া আপনার চাকরি বেছে নেওয়া কিংবা চাকরি ছাড়ার সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রেও তাড়াহুড়া করলে বিপদে পড়ার আশঙ্কা থাকে।
হঠাৎ চাকরি ছাড়ার ফলে তা শুধু আপনার মানিব্যাগের ওপরই চাপ ফেলবে না, আপনার সুনাম ও জীবনযাত্রায়ও প্রভাব ফেলবে।
৪. আত্মবিশ্বাসের অভাব
অনেকেই কর্মক্ষেত্রে সাফল্যের জন্য কাজের অগ্রগতিকে প্রধান নিয়ামক বলে মনে করে। আর আত্মবিশ্বাসকে তেমন গুরুত্ব দিতে চায় না। কিন্তু বাস্তবে আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে সাফল্যের গুরুত্বপূর্ণ যোগসূত্র আছে। তাই আত্মবিশ্বাসের অভাব কর্মক্ষেত্রে মারাত্মক ক্ষতির কারণ হয়।
ধরুন প্রতিষ্ঠানের একটি সিদ্ধান্ত পুরোপুরি ভুল বলে আপনি বুঝতে পারলেন। এরপর প্রতিষ্ঠানের সে সিদ্ধান্তের বিষয়ে আপনি কি চুপচাপ থাকবেন, নাকি জোর গলায় ব্যাপারটা তুলে ধরবেন? এ ক্ষেত্রে আত্মবিশ্বাসী মানুষরা ভুল সিদ্ধান্তের বিষয়টি সবাইকে জানিয়ে দিয়ে এ থেকে নিজের সাফল্য তুলে নেবে। কিন্তু আত্মবিশ্বাসের অভাব থাকলে এটি সম্ভব হবে না।

৫. নেতিবাচক মনোভাব
অনেকেরই সারাক্ষণ নেতিবাচক মনোভাব প্রকাশ করার অভ্যাস থাকে। এ ধরনের মানুষ সারাক্ষণ নানা বিষয় নিয়ে অভিযোগ করতে ভালোবাসে। প্রতিষ্ঠানের এটা খারাপ, ওটা খারাপ, এটা কেন হলো না, ওটা এমন কেন, এসব দিয়ে কিচ্ছু হবে না- সারাক্ষণ এমন মন্তব্য করতে থাকলে তা আশপাশের মানুষের বিরক্তির কারণ হয়। এতে কর্মক্ষেত্রে আপনার সুনাম নষ্ট হয়।
৬. মিথ্যা বলা
আপনার যদি মিথ্যা বলা অভ্যাস থাকে, তবে তা একসময় না একসময় ধরা পড়বেই। কর্মক্ষেত্রে মিথ্যা বলা, তা যত ছোটই হোক না কেন, এর বাজে প্রভাব পড়বেই। বিশেষ করে আপনার মিথ্যা যদি ধরা পড়ে যায়, তাহলে তা অন্যদের মাঝে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করে। ছোট মিথ্যা থেকে বড় মিথ্যার অভ্যাস তৈরি হয় ও তা কর্মক্ষেত্রে আপনার সর্বনাশ ডেকে আনে।
৭. অগোছাল স্বভাব
কাজের ক্ষেত্রে আপনার যদি অগোছাল স্বভাব থাকে তাহলে তা ক্ষতি করতে পারে। এ স্বভাবের ফলে কর্মক্ষেত্রে কাজের ক্ষতির মাত্রার ওপর নির্ভর করবে আপনার ক্যারিয়ারের ক্ষতির পরিমাণ। গুছিয়ে কাজ করার ক্ষমতা যদি আপনার না থাকে তবে তা আপনার বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট করে।
৮. নতুন প্রযুক্তি গ্রহণে অপারগতা
কর্মক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানগুলো প্রায়ই নতুন নতুন প্রযুক্তি গ্রহণ করে। আপনি যদি এগুলোর সঙ্গে মানিয়ে নিতে না পারেন তাহলে তা আপনার ক্যারিয়ারের মারাত্মক ক্ষতি করবে। অতীতে প্রচলিত কাগজ-কলমের ব্যবহার ক্রমে উঠে যাচ্ছে। এর বদলে এখন কম্পিউটারেই সংরক্ষিত হয় তথ্য। এসব বিষয় যদি আপনি গ্রহণ করতে না পারেন তাহলে প্রতিষ্ঠান আপনাকে কখনোই কাজের উপযুক্ত বলে মনে করবে না। এতে আপনার ক্যারিয়ারও ধ্বংস হবে।