রবিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

হজমক্রিয়ায় অত্যন্ত সহায়ক ৬টি খাবার

toxin1স্বাস্থ্য ডেস্ক : আমরা প্রতিদিন নানা ধরনের খাবার খেয়ে থাকি কিন্তু সব ধরনের খাবারই আমাদের হজমে সহায়তা করে না। এছাড়া এমন অনেক খাবার আছে যেগুলো হজমক্রিয়াকে অচল করে দেয়। ফলে বদহজমের সমস্যা দেখা যায়। এক্ষেত্রে প্রতিদিনের খাবার তালিকায় এমন কিছু খাবার রাখা উচিৎ যেগুলো হজমক্রিয়াকে স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে।

১. আদা :

আদা এমন একটি খাবার যা মেটাবলিজম তৈরিতে সহায়তা করে অর্থাৎ হজমক্রিয়া চালিয়ে নিতে সহায়তা করে এবং দেহের অতিরিক্ত টক্সিন দূরীকরণে সহায়তা করে। আদার রস হজম প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করে এবং দেহের ডিটক্সিফিকেশন চালিয়ে নেয়। এছাড়া প্রতিদন সকালে চায়ের সাথে আদার রস খেলে গলাব্যথাসহ নানা ধরনের সমস্যা দূর হয়ে যায়।

২. শালগম :

শালগম জাতীয় সবুজ রঙ্গীন সবজিতে প্রচুর পরিমাণে বিটাসিয়ানিন এবং মিনারেল জাতীয় পদার্থ যেমন আয়রন, জিঙ্ক, ম্যাগনেশিয়াম এবং ক্যালসিয়াম রয়েছে। এছাড়া ভিটামিন বি৩, বি৬ এবং সি এবং বিটাক্যারোটিন সমৃদ্ধ এই শালগম লিভার এবং গলব্লাডারের জন্য বেশ উপকারী।

৩. রসুন :

রসুন হল দেহে ডিটক্সিফাই তৈরি করার একটি উৎকৃষ্ট উপকরণ। রসুন মোটামুটিভাবে একটি প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে। এটি ঠান্ডা লাগা থেকে বাঁচায় এবং বিভিন্ন ভাইরাল অ্যাটাক থেকে দেহকে রক্ষা করে। এছাড়া হজমক্রিয়ায় বেশ সহায়ক ভূমিকা রাখে।

৪. ব্রকলি :

ব্রকলি স্বাস্থ্য উপযোগী একটি খাবার যা আপনার ডায়েটের তালিকাটিকে পরিপূর্ণ করতে সহায়তা করে। ব্রকলি তার গুণাগুণ দ্বারা হজমক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করে থাকে।

৫. বাঁধাকপি :

বাঁধাকপিতে প্রচুর পরিমাণে সালফার রয়েছে যা দেহে প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে। বাঁধাকপি দেহের দূষিত পদার্থসহ বিভিন্ন ধরনের টক্সিন দেহ থেকে বের করে দিতে সহায়তা করে। হজম প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করে।

৬. দারুচিনি :

একটি ছোট্ট আকারের দারুচিনিতে নির্দিষ্ট পরিমাণে ম্যাঙ্গানিজ থাকে যা বিভিন্ন মানসিক চাপ থেকে মুক্ত রাখতে সহায়তা করে এবং পাশাপাশি দেহে ডেটোক্স প্রতিনিধি হিসেবেও কাজ করে। এটি দেহের ফ্যাটি উপাদান ধ্বংস করে দেয় এবং দেহের সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণে রাখে।