রবিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

র‌্যাব কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলা করার আদালতের আদেশ থানায় পৌঁছেনি, বিক্ষোভ শেষে কর্মসুচী ঘোষনা

RAB Logoতিন দিনেও আদালতের আদেশ সম্বলিত কপি পৌছেনি নবীনগর থানায়। র‌্যাব ১৪র মেজর ও ৮ র‌্যাব সদস্য সহ ১১ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করার নির্দেশ প্রদান করে ব্রাক্ষণবাড়িযার জুডিশিয়াল আদালত। বুধবার ব্রাক্ষণবাড়িয়ার নবীনগরের জুডিশিয়াল আদালত র‌্যাব-১৪র ভৈরব ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর এ, জেড, এম সাকিব সিদ্দিক সহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আওয়ামীলীগ নেতা রহিস মিয়ার পুত্র ব্যবসায়ী শাহনুর আলমকে নির্যাতন করে হত্যা ঘটনায় মামলা দায়েরের নির্দেশ প্রদান করেন। তিন দিনে ও আদালতের আদেশ সংক্রান্ত কপি না পৌছানোয় জনমনে নানা প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। নবীনগরে সৃষ্টি হয়েছে ভিন্ন প্রশ্ন। সাধারন মানুষের মধ্যে প্রবল প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিদিন ব্রাক্ষবাড়িয়া থেকে সরকারী বেসরকারী বহু ডাক ফাইল পৌছলে ও রহস্যজনক কারনে গুরুত্বপূর্ন এ আদেশ কপি পৌছায় নি। নবীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রুপক কুমার সাহা জানান, আমি আদেশের কপির অপেক্ষায় আছি। পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান পিপি এম সেবা (বার) বলেন, আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। অন্যদিকে আদালতের আদেশ কপি নিযে সময় ক্ষেপনের কারনে বাদী পক্ষ বলছে, মামলাটি নষ্ট করার আলামত চলছে। কারণ ইতোমধ্যেই র‌্যাব কর্মকর্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার নির্দেশ প্রদানকারী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রট নাজমুন নাহার এর আমলী আদালত থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। র‌্যাবের ‘হত্যাকান্ডের’ শিকার শাহনূরের প্রধান আইনজীবী মো. খায়রুল আনাম সাংবাদিকদেরকে বলেন, ‘আমি মনে করি র‌্যাবের বিরুদ্ধে আদেশ দেওয়ার কারণেই বিচারকের আমলী ক্ষমতা কেড়ে নেয়া হয়েছে। অন্যদিকে, শাহনুর হত্যাকান্ডের পর থেকেই বিক্ষুব্দ হয়ে উঠছে নবীনগরের সাধারন মানুষ। প্রতিবাদ বিক্ষোভ হয়েছে। নিহতের ভাই জানান, আজ শনিবার ৭ জুন ব্রাক্ষবাড়িয়ার নবীনগরে সমাবেশ ও বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হবে। এরপরই হত্যা মামলার আসামীদের গ্রেফতারের দাবীতে কমৃসচী ঘোষনা করা হবে।