বৃহস্পতিবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মিটার না দেখেই বিদ্যুতের বিল

electric metar billডেস্ক রিপোর্ট : বিদ্যুতের মিটার না দেখেই বিল তৈরি করছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিদ্যুৎ অফিস। বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের একজন কর্মকর্তা বিষয়টি স্বীকার করে জানিয়েছেন লোকবল কম থাকায় এটি ঘটছে।

গ্রাহকদের অভিযোগ, তারা মাসব্যাপী বিদ্যুতের যে ইউনিট খরচ করেছেন তা থেকে বিলের কাগজে ইউনিটের পরিমাণ বেশি দেখানো হচ্ছে। ফলে গুনতে হচ্ছে বিলের বাড়তি টাকা।

শহরের মৌড়াইল এলাকার ভুক্তভোগী মইনুল ইসলাম জানান, খোঁজ নিয়ে তিনি দেখেছেন মে মাসে তিনি ৪০ ইউনিট বিদ্যুৎ ব্যবহার করেছেন। কিন্তু তার বিলে ৪০০ ইউনিট দেখানো হয়েছে।
একই অবস্থা কাউতলি এলাকার শফিক, শাহনুর, কাজী পাড়ার মিঠুর বিদ্যুৎ বিলেও।
কাউতলি এলাকার শফিক জানান, বিল পরিশোধের জন্য বিদ্যুৎ বিভাগ গ্রাহকদের সময় দিয়েছেন মাত্র একদিন। যে দিন বিল পেপার হাতে পৌঁছেছে তার পরদিন বিল জমা দেওয়ার শেষ দিন ছিল। ফলে তাড়াহুড়ো করে বিল জমা দিতে হয়, না হলে জরিমানা দিতে হবে।
সরেজমিনে বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগে গিয়ে দেখা যায় ভুক্তভোগীদের ভিড়। মিটার না দেখে মনগড়া বিল তৈরির প্রতিবাদ জানাতে এসেছেন বেশ কয়েকজন গ্রাহক। ক্ষুব্ধ গ্রাহকরা এ সময় কর্মকর্তাদের গালিগালাজও করেছেন।
বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের উপ-প্রকৌশলী মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘যারা মিটার দেখে বিল করবেন এ রকম ৩৪ জন লোক থাকার কথা। লোকবল কম থাকার কারণে অনেক সময় মিটার দেখার সুযোগ থাকে না। অফিসে মাত্র তিনজন বিল তৈরির দায়িত্বে রয়েছেন। গ্রাহকদের ভোগান্তি নিরসনে লোকবল চেয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে বারবার আবেদন করা হলেও তাতে সাড়া মেলেনি।’