মঙ্গলবার, ৪ঠা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৯শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়ার, মোবারক হোসেনের রায় যেকোনো দিন

mobarok rajakar।।বার্তা কক্ষ।।একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত ও আটক আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেতা মোবারক হোসেনের বিরুদ্ধে ও পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে মামলাটি রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখা হয়েছে। এখন যেকোনো দিন মোবারক হোসেনের মামলায় রায়  হতে পারে। সোমবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ এর চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বেঞ্চ এ রায় দেন। এর আগে মামলাটির অভিযোগের উপর সমাপনি যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়। এসময় মোবারকের পক্ষে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের ওপর সমাপনি যুক্তি উপস্থাপন করেন অ্যাডভোকেট মিজানুল ইসলাম ও তাজুল ইসলাম। আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষ হলে এর পাল্টা জবাব দেন প্রসিকিউটর সাহিদুর রহমান ও প্রসিকিউটর হায়দার আলী।

এর আগে গত ১৮ মে মোবারকের মামলায় যুক্তি উপস্থাপন শুরু হয়। এর মধ্যে প্রসিকিউশন দুই দিন এবং আসামিপক্ষ তিন দিন করে যুক্তি উপস্থাপন করে। উল্লেখ্য, গত বছরের ২৩ এপ্রিল মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত হন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মোবারক হোসেন। তার বিরুদ্ধে হত্যা, আটক, নির্যাতন ও অপহরণের পাঁচটি অভিযোগ এনে ট্রাইব্যুনাল অভিযোগ (চার্জ) গঠন করেন। আখাউড়া উপজেলার মোগড়া ইউনিয়নের একজন বাসিন্দা প্রথম ২০১১ সালে স্থানীয় থানা পুলিশের কাছে একটি মামলা করেছিলেন। সেই মামলায় মোবারক হোসেনের বিরুদ্ধে মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ আনা হয়েছিল।

এরপর ট্রাইবুনালের তদন্তকারী সংস্থা অভিযোগ আমলে নিয়ে তদন্তের পর গত ফেব্রুয়ারি মাসে অভিযোগ দাখিল করে। গত বছরের ২০ মে এ মামলায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। ১৬ মে সূচনা বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে এ মামলার বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়। মোবারকের বিরুদ্ধে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘটিত হত্যা, অপহরণ, আটক ও নির্যাতনসহ মানবতাবিরোধী চার ধরনের অপরাধে ৫টি অভিযোগে গতবছর ২৫ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করে প্রসিকিউশন।

জামায়াত থেকে আওয়ামী লীগ

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, মোবারক হোসেন মুক্তিযুদ্ধের সময় জামায়াতে ইসলামীর রুকন ছিলেন এবং আখাউড়া উপজেলার মোগড়া ইউনিয়নে তার কর্মকাণ্ড বেশি ছিল। তবে স্থানীয়ভাবে জানা গেছে, এই জামায়াত নেতা স্বাধীনতার পর দলত্যাগ করেন। ৯৬ সালে তিনি আওয়ামীলীগে যোগ দিয়ে ঐ মোগড়া ইউনিয়নে সাংগঠনিক সম্পাদক হয়েছিলেন। এরপর ১৬ বছর আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। দু’বছর আগে তার বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ উঠলে তাকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়।

এ জাতীয় আরও খবর