বৃহস্পতিবার, ৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

কোহলি-সাঙ্গার চেয়েও জনপ্রিয় সাকিব!

‘বাংলাদেশের জনসংখ্যা ১৬ কোটি। সাকিবের ফেসবুক অনুসারীর সংখ্যা ২০ লাখ। অর্থাৎ বাংলাদেশের শতকরা ১.২৫ ভাগ মানুষ সাকিবকে অনুসরণ করে। অন্যদিকে ভারতের ১২৫ কোটি মানুষের মধ্যে কোহলির ভক্ত এক কোটি। শতকরা ০.৮ ভাগ। ভারতীয় তারকার চেয়ে সাকিবের জনপ্রিয়তাই তো বেশি।’ সাকিবের ফেসবুক পেজে এমন হিসাবই কষেছেন মোহাম্মদ সাইফুর রহমান নামের এক সাকিব ভক্ত। শ্রীলঙ্কার অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান কুমার সাঙ্গাকারার চেয়েও যে সাকিব বেশি জনপ্রিয়, সেটা বলার জন্য অবশ্য এত হিসাবেরও প্রয়োজন পড়ছে না। ফেসবুকে সাঙ্গার অনুসারী ১৯ লাখ ৯২ হাজার। আর সাকিব সদ্যই পেরিয়েছেন ২০ লাখের মাইলফলক।



মাত্র দুই দিন আগেই সাকিবের ফেসবুক পেজকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিয়েছে ফেসবুক। তারপর থেকেই হু হু করে বেড়েছে অনুসারীর সংখ্যা। ফেসবুকে প্রিয় তারকাকে আরও সহজে খুঁজে পেয়েছেন সাকিব ভক্তরা। একজন মন্তব্য করেছেন, ‘বাংলাদেশের সব মানুষ যদি ফেসবুক ব্যবহার করতে পারত তাহলে সাকিবের অনুসারীর সংখ্যা ১২ কোটি ছাড়িয়ে যেত।’



শুধু বাংলাদেশেই না, কলকাতা নাইট রাইডার্সে খেলার সুবাদে সেখানেও অনেক ভক্ত জুটিয়ে ফেলেছেন বাংলাদেশের এই অলরাউন্ডার। এমনই একজন লিখেছেন, ‘আমি কলকাতায় থাকি। আর সাকিবের অনেক বড় ভক্ত। সাকিব বাংলার নাম উজ্জ্বল করেছে। সে এপার বাংলাই হোক কি ওপার বাংলা।’ সাকিবকে দলে না নিলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের খেলা দেখতে ইচ্ছা হয় না বলে মন্তব্য করেছেন আরেকজন, ‘আমি ইন্ডিয়ান। সাকিবের অনেক বড় ভক্ত। আমারও বাংলাদেশিদের মতো একই ব্যাপার হয়ে গেছে। কেকেআর সাকিবকে না নিলে খেলা দেখতেই ইচ্ছা করে না।’



২০ লাখ অনুসারীর মাইলফলক ছোঁয়ার পর ভক্তদেরও ধন্যবাদ জানিয়ে একটা ছবি পোস্ট করেছেন সাকিব।



বাংলাদেশে ফেসবুক পেজগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি লাইক অবশ্য সাকিবের নয়।তবে সেটিও ক্রিকেটেরই। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজের লাইকসংখ্যা ২৬ লাখ।সাকিবের পেজটি আছে দুইয়ে।

এ জাতীয় আরও খবর