বুধবার, ২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সোনালী ব্যাংকে রূপকথার সুড়ঙ্গ

sonali bankডেস্ক রিপোর্ট : 

সোনালী ব্যাংক কার্যক্রম ঝুঁকিতে আছে। খেলাপি ঋণের ফাঁদে আটকে গেছে ব্যাংকটি। শুধু ২০ প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ ঋণখেলাপির কাছেই আটকে আছে প্রায় সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা। এখন ৫ হাজার ২৬১ কোটি টাকার ঘাটতি মূলধন নিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ব্যাংকটি চলছে। ঘটনাগুলো তো এক দিনে ঘটেনি। সংশ্লিষ্ট দপ্তর সবই জানে। তবু 'খতিয়ে' দেখবে তারা। কী খতিয়ে দেখবে, তা বলে না কেউ। ঋণ জঙ্গিদের শাস্তির কথাও বলে না কেউ। আমরা বেকার ছটফট করি।আগেকার আমলে ধনাঢ্য ব্যক্তিরা টাকা, সোনা রেখে দিত মাটির নিচে। লোকে জানতে পেত না সেই গুপ্তধনের কথা। কখনো সেই ধনরত্ন আর তোলাই হতো না। স্থায়ী গুপ্তধন হয়ে তা পড়ে থাকত মাটিচাপা হয়ে। খোঁড়াখুঁড়ির নানা কাজে কেউ কেউ নাকি পেয়েও যেত কখনো কারো গুপ্তধন। শুনেই গেলাম কথাটা। কখনো দেখিনি। পাওয়ার তো প্রশ্নই ওঠে না। আবার কথা আছে। গুপ্তধন পাহারা দেয়ার জন্য মাটির নিচে আস্ত মানুষও পুঁতে রাখার গল্প তো রবীন্দ্রনাথই লিখেছেন। ওই পাহারাদারদের বলা হতো যক্ষ। কেমন রূপকথার মতো শোনায় শব্দগুলো। বাবা বলতেন, আধুনিক যুগে ধনরত্ন গচ্ছিত রাখা হয় ব্যাংকে। ভূগর্ভস্থ গোপন জায়গা থেকেও তা বেশি গোপনে থাকে। চোখের সামনেই থাকে, কিন্তু কেউ নিতে পারে না কারো টাকা। ব্যাংকে টাকা রাখার ব্যাপারে বাবাদের আমলে সে কী আস্থা! বাবা আরো বলতেন, ব্যাংক হলো একালের যক্ষ, আর ব্যাংকের গুপ্তধন পাহারা দেয় বহু খুদে যক্ষ। ঘরের চেয়ে নিরাপদে থাকে সম্পদ।
আমরাও তাই জানতাম। বয়স তো কম হলো না। ব্যাংকে টাকা রাখার নিরাপত্তা আমরাও পেয়েছি। এফডিআর খাত থেকে টাকা আয়ও করেছি। ঠকিনি কোনো দিন। কিন্তু সোনালী ব্যাংকে এসব কী সর্বনাশা কাজকর্ম চলছে? ঋণ জালিয়াতি কম-বেশি ছিল ব্যাংকে। এখন তা বিপুল আকারে প্রসারিত হয়েছে। অস্তিত্বহীন প্রকল্প এবং প্রকল্পসংশ্লিষ্ট প্রামাণ্য কাগজপত্র ছাড়াই ঋণ সংগ্রহ করতে পারে এখন দেশি-বিদেশি ব্যবসা উদ্যোক্তারা। ব্যাংক পরিচালনার দায়িত্বে থাকা লোকজনের জন্য ব্যাংক ঋণ নেয়াটা বাবার পকেট থেকে টাকা নেয়ার মতোই সোজা। কাজটাকে হালালই মনে করে তারা। ঋণখেলাপিরা বিরক্ত হয় ঋণের টাকা ফেরত চাইলে। কেউ কেউ বলে, সুদের টাকা তো দেয়াই হচ্ছে, আসলটা নিয়ে এত মাথা ঘামানোর প্রয়োজন কী? সুদের টাকা নিয়মিত দেয়া নিয়েও সমস্যা আছে বেশুমার। ব্যাংকের যক্ষগুলোর ভয়ানক সৎ চরিত্র কেমন যেন স্খলিত হয়ে পড়েছে। নিশ্চয়ই ঋণগ্রহীতারা আরো বড় যক্ষ। পুরো ব্যাংকই পাহারা দিতে পারে তারা। বাবা থাকলে এসব কথা বিশ্বাস করতে চাইতেন না। কিন্তু করতেই হতো অবশেষে।

সোনালী ব্যাংকেই টাকা রাখতাম একসময়। একটা লকারও ছিল আমার। নানা সময় বাসা বদল করতে গিযে বাড়িসংলগ্ন ব্যাংক পছন্দ করতে হয়েছে। তখন বেসরকারি ব্যাংকে লেনদেন করার ব্যাপারে প্রবীণ স্বজনরা সতর্ক করেছেন। বলেছেন, সরকারি ব্যাংকই বেশি আস্থাযোগ্য। তবু বাধ্য হয়ে নতুন ঠিকানার কারণে একসময় লেনদেন বন্ধ করি সোনালী ব্যাংকের সঙ্গে। কিন্তু এখন সোনালী ব্যাংকের স্খলন দেখলে কষ্ট পাই। বিদেশি ব্যাংকে অনলাইন সুবিধা পেয়েছি। যখন সরকারি ব্যাংকে অনলাইন সুবিধা দেয়া চালু হলো, তখনো খুশি হয়েছি সোনালী ব্যাংকের আপগ্রেড দেখে।

কোন ব্যাংক কোন গ্রেডে গেল, এসব খবরে আমাদের মতো স্বল্পবিত্ত মানুষের কোনোই আগ্রহ নেই। প্রয়োজনও নেই। কিন্তু সুড়ঙ্গ কেটে খুব কৌশলী বুদ্ধিতে যখন কোটি কোটি টাকা লুট হয় এবং পত্রপত্রিকার সে খবরগুলো ছাপা হয় ফলাও করে, তখন তো চোখ বন্ধ করে থাকা যায় না। পড়তে হয়, জানতেও হয় রূপকথার মতো ঘটনাগুলো। সোনালী ব্যাংকে পর পর দুবার সুড়ঙ্গ কেটে টাকা লুট হলো। ভাবলাম, সোনালী ব্যাংক তবে কি পুরাকীর্তি খননের প্রশিক্ষণ কেন্দ্র খুলেছে? কিশোরগঞ্জে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে ব্যাংক ডাকাতির প্রতিকার না হতেই বগুড়ার আদমদীঘিতে ঘটল একই ঘটনা। অপরাধ দমনের কর্মকর্তারা বিষয়টা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা অসহায়ের মতো অপেক্ষা করে থাকি খতিয়ে দেখার ফল জানার জন্য।

প্রতিবেদন সূত্র মতে, সংশ্লিষ্টদের কথা হলো_ ব্যাংক ব্যবস্থাপনার দুর্বলতা, শৃঙ্খলা না থাকা, ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে অনিয়ম-দুর্নীতি, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অদক্ষতা, সরাসরি দুর্নীতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়া, রাজনৈতিক হস্তক্ষেপ, নিরাপত্তায় ঘাটতি এবং সর্বোপরি ব্যাংক পরিচালনায় কোনো মনিটরিং না থাকায় বার বার অর্থ কেলেঙ্কারিতে পড়তে হচ্ছে রাষ্ট্রীয় সোনালী ব্যাংককে। এ ব্যাংকের খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১২ হাজার ৪৭১ কোটি টাকা। অর্থমন্ত্রী বলেন, সোনালী ব্যাংকের এসব লুটের ঘটনা ঠেকাতে ব্যাংকটির অবকাঠামোগত উন্নয়নের উদ্যোগ এবং অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা জোরদারে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কোরবানীর হাটে জন্য প্রস্তুত খামারিরা,শেষ সময়ে পরিচর্যায় ব্যস্ত

নতুন নোট বাজারে আসছে বুধবার

শিগগিরই ৫-১২ বছরের শিশুদের করোনার টিকা দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

এক দিনে রেকর্ড ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

বিষাক্ত হলুদ ধোঁয়ায় ঢেকে গেল জাহাজ! মুহূর্তে ১২ জনের মৃত্যু

বিয়ের আসরে কনের পা ছুয়ে প্রণাম বরের!

বিশ্বের সব স্বৈরাচারকে টেক্কা দিয়েছে আওয়ামী সরকার : ফখরুল

আসছে ‘ডিজিজ এক্স’! অজানা রোগের মহামারীর শঙ্কা বিজ্ঞানীদের

রেসলিংয়ের মঞ্চে আরব নারী!

শ্রীলঙ্কায় এবার পেট্রল বিক্রি বন্ধ

পদ্মা সেতুর টোল প্লাজার বেরিয়ারে বাসের ধাক্কা

গাড়ি আমদানিতে চট্টগ্রাম বন্দরকে পেছনে ফেলল মোংলা‍