শনিবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ক্রিমিয়ার স্বাধীনতা ঘোষণা

image_116566বহুল আলোচিত গণভোটের পর ইউক্রেন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে শেষ পর্যন্ত নিজেদের স্বাধীনতার ঘোষণা দিল ইউক্রেনের স্বায়ত্বশাসিত উপদ্বীপ ক্রিমিয়ার পার্লামেন্ট। একই সাথে, রুশ ফেডারেশনের সাথে যুক্ত হওয়ার জন্যেও সংসদে আনুষ্ঠানিকভাবে আবেদন করা হয়েছে। দেশটির পার্লামেন্টে রবিবার অনুষ্ঠিত গণভোটের রায়ের ফলাফল গতকাল সোমবার প্রকাশ করা হয়। এতে দেখা যায় প্রায় ৯৭ শতাংশ ভোটার ক্রিমিয়াকে রাশিয়ার সঙ্গে একীভূত করতে তাদের মত দিয়েছেন।


স্বাধীনতা ঘোষণার পরই ক্রিমিয়ার প্রশাসন জানিয়ে দিয়েছে, সেখানে এখন থেকে আর ইউক্রেনের মুদ্রা চলবে না। পাল্টে ফেলা হবে ক্রিমিয়ার স্থানীয় সময়ও। ৩০ মার্চের পর থেকে মস্কোর সময় মেনে চলবে ক্রিমিয়া। ঘড়ির কাঁটা এগিয়ে যাবে দুই ঘণ্টা করে।


তবে ইউক্রেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্র এই গণভোটের কঠোর নিন্দা জানিয়েছে। তারা গণভোটের এই ফলাফলকে প্রত্যাখ্যান করেছে। রাশিয়া ও ইউক্রেনের ২১ জন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা এবং তাদের সম্পদ জব্দের ঘোষণা দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। অপরদিকে, যুক্তরাষ্ট্রও দুই দেশের ১১ জন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার উপর একই নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে।তবে হাজার নিন্দা ও প্রতিবাদ সত্ত্বেও রাশিয়া বলেছে ক্রিমিয়ার গণভোটের রায়কে মস্কো সম্মান জানাতে প্রস্তুত। সকল প্রকার নিয়মাকনুন মেনেই ক্রিমিয়ার জনগণ গণভোটের মাধ্যমে রাশিয়ার সাথে একীভূত হবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে দাবি করেছে রাশিয়া। 


গত ফেব্রুয়ারিতে মস্কোপন্থি প্রেসিডেন্ট ভিক্টর ইয়ানুকোভিচের ক্ষমতাচ্যুতির পর ইউক্রেনের জাতিগত রুশ অধ্যুষিত ক্রিমিয়া ছিল কার্যত রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণে। পশ্চিমা দেশগুলোর তীব্র আপত্তি এবং হুমকি সত্ত্বেও মস্কোর সরাসরি সমর্থনে রবিবার ক্রিমিয়াতে এই গণভোট হয়। প্রত্যাশা অনুসারেই ভোটাররা রাশিয়ার সাথে যুক্ত হওয়ার পক্ষেই রায় দিয়েছে ক্রিমিয়ার জনগণ। ক্রিমিয়াতে রুশ হস্তক্ষেপের জবাবে রাশিয়ার ওপর সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়ে আলোচনা করতে গতকালই ইউরোপের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা ব্রাসেলসে বৈঠকে বসেন। যদিও স্বাধীন ক্রিমিয়াকে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্যে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের প্রতি আহবান জানিয়েছে রাশিয়া। ক্রিমিয়ার পার্লামেন্ট স্বাধীনতা ঘোষণা করে বলেছে, ক্রিমিয়াতে এখন থেকে ইউক্রেনের আইন প্রযোজ্য নয়। ইউক্রেনের সব রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি জাতীয়করণ করা হবে। একমাসের মধ্যেই রাশিয়ার মুদ্রা রুবল কে ক্রিমিয়ার স্থানীয় মুদ্রায় পরিণত করা হবে। ক্রিমিয়ার সংখ্যালঘু মুসলিম তাতার জনগোষ্ঠী এই গণভোট বয়কট করেছিল। অধিকাংশ জাতিগত ইউক্রেনিয়ানরাও ভোট দিতে যায়নি। 


মুসলিম তাতারদের কথা হলো তারা ইউক্রেনের নাগরিক হিসাবেই থাকতে চান, এবং তাদের মতে ক্রিমিয়া ইউক্রেনেরই অংশ। ক্রিমিয়ার একজন এমপি বলেছেন, ইউক্রেনের যে সৈন্যদের ক্রিমিয়ার জাতীয়তা আছে তারা রুশ সেনাবাহিনীতে কাজ করার জন্য আবেদন করতে পারে। আর যাদের ইউক্রেনের নাগরিকত্ব – তারা দেশে ফিরে যেতে পারে। কিন্তু কিয়েভে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইগর তেনিউখ বলছেন ইউক্রেনের সৈন্যরা ক্রিমিয়াতেই থাকবে।


তবে হাজার সমালোচনা সত্ত্বেও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এই গণভোটকে আন্তর্জাতিক আইনের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ বলে দাবী করেছেন। তিনি বলেছেন, গণভোটের রায়কে সম্মান জানাতে রাশিয়া প্রস্তুত। গণভোটের ফল স্পষ্ট হতেই ক্রিমিয়ার মুল শহর সিমফেরোপোলের লেনিন স্কয়ারে সমবেত হয়ে হাজার হাজার মানুষ আনন্দ উত্সব করে। ক্রিমিয়া অঞ্চলের ভারপ্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রী সের্গেই আকসেনভ, ইন্টারফ্যাক্স নিউজ এজেন্সিকে জানিয়েছেন যে, ক্রাইমিয়া যত দ্রুত সম্ভব রাশিয়ার সাথে সংযুক্ত হবে। তিনি ক্রিমিয়া পার্লামেন্ট সদস্যদের একটি দল নিয়ে মস্কো গিয়ে তিনি রুশ ফেডারেশনে আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্ত হবার প্রক্রিয়া শুরু করার অনুরোধ করবেন বলে জানান।এদিকে গণভোট নিয়ে পরিস্থিতি ঘোরালো হয়েছে রুশ-মার্কিন টানাপোড়েনেও। ভোটের পর রাশিয়ার সরকারি টেলিভিশনে এক উপস্থাপক বলেন, আমেরিকাকে তেজস্ক্রিয় ছাইয়ে পরিণত করার ক্ষমতা আমাদের রয়েছে। এর পর কালক্ষেপ না করে পুতিনকে ফোন করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তিনি পুতিনকে ইউক্রেনের মাটি থেকে সরে আসতে আহ্বান জানান। সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কেও পুতিনকে সতর্ক করে দেন তিনি। পুতিনকে তিনি বলেন, পরিস্থিতি যাতে বিগড়ে না যায়, সে জন্য আপনারা পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। ইউক্রেনে রাজনৈতিক সংস্কার চলছে, তাতে সমর্থন দিন। ইউক্রেনের ঘাড়ের উপর রুশ সেনারা নিঃশ্বাস ফেললে কূটনৈতিক পথে সমস্যার সমাধান অসম্ভব। কিন্তু রাশিয়া তাতে গুরুত্ব দিয়েছে এমন কোন ইঙ্গিত মেলেনি।


ওবামার বিবৃতি: মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ক্রিমিয়ার গণভোটের রায়ের প্রতিক্রিয়ায় এক বিবৃতিতে বলেছেন, রাশিয়া যদি ক্রিমিয়া সংকট নিয়ে আরো উসকানি দিতে থাকে তবে দেশটি একঘরে হয়ে পড়বে এবং বিশ্বসভায় তার আসন হারাবে। তিনি আরো বলেন, ইউক্রেনের সার্বভৌমত্বের পক্ষে বিশ্ববাসী একত্র থাকবে। কুটনৈতিকভাবে রাশিয়া একঘরে হয়ে পড়লে দেশটির অর্থনীতির উপর বিরুপ প্রভাব পড়বে বলেও তিনি হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ওবামা রাশিয়া ও ইউক্রেনের ১১ শীর্ষ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ও সম্পদ জব্দের ঘোষণা দেন। এদের মধ্যে রয়েছেন ইউক্রেনের ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট ভিক্টর ইয়ানুকোভিচ ও ভ্লাদিমির পুতিনের কয়েকজন সহযোগী। এই গণভোট ও তার রায়কে যুক্তরাষ্ট্র কখনোই স্বীকৃতি দিবে না বলে ওবামা স্পষ্ট জানিয়ে দেন

এ জাতীয় আরও খবর

যেসব নিয়ম মানলে ঠিকমতো খাবে আপনার শিশু

শামি কাবাব এর সহজ রেসিপি

নতুন ছেলেমেয়েরা চলচ্চিত্রে আসতে চায় না: ইলিয়াস কাঞ্চ

জনপ্রিয় মার্কিন সঙ্গীতশিল্পী মিট লোফ আর নেই

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের প্রতিবাদে অবস্থান নিয়েছে শিক্ষার্থীরা

হিলি ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট দিয়ে ভারত ফেরত যুবক করোনা পজেটিভ

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ভূমিকম্প

সবই খোলা, বন্ধ শুধু স্কুল-কলেজ

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে ৬৫ লাখ টাকার ক্যাবল চুরি

শাস্তি থেকে বাঁচতে কলাপাতার ‘মাস্ক’ পরে রাস্তায়, হতবাক পুলিশ

অফিস-আদালতে অর্ধেক লোকবলের প্রজ্ঞাপন শিগগিরই : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মিরপুরে অন্তত মাঝারি স্কোরের প্রত্যাশা বিসিবির