বৃহস্পতিবার, ১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষন আগামী দিনেও বাঙ্গালীর মনে দেশপ্রেমের চেতনা জাগাবে-মেয়র হেলাল উদ্দিন

dsc03080“প্রত্যেক ঘরে ঘরে দূর্গ গড়ে তোল। আমি যদি হুকুম দিবার নাও পারি, তোমাদের যা কিছু আছে তাই নিয়ে শত্রুর মোকাবেলা করবে। রক্ত যখন দিয়েছি রক্ত আরো দেব। এদেশের মানুষ কে মুক্ত করে ছাড়বো ইনশাল্লাহ। এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। জয় বাংলা”। বাঙ্গালীর স্বাধীনতা সংগ্রামের মহামুক্তির বানী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষন। বাঙ্গালীর ইতিহাসের অবিছেদ্ধ অংশ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে দিবসের “তাৎপর্য ও গুরুত্ত” শীর্ষক এক আলোচনা সভা গতকাল সন্ধ্যায় হালদারপাড়াস্থ জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জননেতা মোঃ হেলাল উদ্দিন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগ ও ১৪ দলের সমন্বয়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আমানুল হক সেন্টু, জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক, সাবেক পৌর চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাতীয় পরিষদ সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কুতুব হোসেন। জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আলহাজ্ব এডঃ লোকমান হোসেন এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এম.সাইদুজ্জামান আরিফ এর পরিচালনায় সভায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বিজয়নগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ জহিরুল ইসলাম ভুইয়া, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি ছাদেকুর রহমান শরীফ, সাধারণ সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন দুলাল, উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এড. তাসলিমা সুলতানা খানম নিশাত, জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক আহবায়ক আব্দুল খালেক বাবুল, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মোঃ মাসুম বিল্লাহ, এ সময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, যুবনেতা গোলাম মোস্তফা রাফি, যুব মহিলা লীগের যুগ্ম আহবায়ক আলম তারা দুলি, জেলা স্বেচ্ছা সেবকলীগ নেতা বিজয় মল্লিক, মোঃ হেলাল উদ্দিন, মোঃ জামাল উদ্দিন, সাইদুর রহমান জুয়েল, মোঃ ছফিউল্লাহ, মোকতার হোসেন জাকির, মোঃ লিটন মিয়া, দিদারুল আলম, মোঃ জাকির মিয়া, স¦পন মিয়া, রিপন মিয়া,আরমান মিয়া ছাত্রলীগ নেতা শাহাদাৎ হোসেন শোভন, একে বাবু, সিএম সানি প্রমুখ। সভায় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ১৯৭১ এর ৭ মার্চে  জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান যে ভাষন দিয়েছিলেন তা ছিল হাজার বছরের পরাধীনতার শৃংখল ভেঙ্গে স্বাধীনতা অর্জন করার মুক্তির বানী। সেদিনের ঐতিহাসিক ভাষনে ৭ কোটি বাঙ্গালী ঐক্যবদ্ধ হয়ে স্বাধীনতা সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল। তাই আমরা সকল প্রতিকুলতা দূর করে স্বাধীনতা অর্জন করেছিলাম। তিনি বলেন বঙ্গবন্ধুর ভাষন আগামী  দিনেও এদশের মানুষের মনে দেশ প্রেমের প্রেরণা যোগাবে। তিনি বলেন যদি এই ভাষন কে বুকে ধারণ করি তাহলে আগামী দিনেও দেশের সকল সম্যসা সমাধানে আমাদের মধ্যে শক্তি ও সাহস যোগাবে। অনেক বাধাঁ বিপত্তি উপেক্ষা করে জেলা স্বেচ্ছা সেবক লীগ এখন একটি শক্ত ভিত্তির উপর দাড়িয়েছে। সাবেক ছাত্রনেতা সহ নানা শ্রেনী পেশার মানুষের সম্বনয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ আওয়ামী প্রিয় মানুষের একটি প্রাণের সংগঠন  হিসেবে দাড়িয়েছে। যার প্রমান আমার পেয়েছি বিগত দিনে বিএনপি-জামাতের হরতাল-অবরোধ মোকাবেলায় রাজপথে তাদের ব্যাপক উপস্থিতি ও সাহসী পদক্ষেপের মাধ্যমে। যার কারনে অনেকে এখন স্বেচ্ছাসেবকলীগে যোগদিতে আগ্রহ প্রকাশ করে। তিনি বলেন স্বেচ্ছা সেবকলীগে কে আরো অনেকদূর এগিয়ে যেতে হবে। দেশকে বিএনপির ষড়যন্ত্র হাত থেকে বাঁচাতে ও যুদ্ধাপরাধী মুক্ত করতে স্বেচ্ছাসেবলীগের নেতা কর্মীদের অগ্রনী ভুমিকা রাখতে হবে।