সোমবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

সমঝোতার পথে হৃতিক-সুজান!

5311a3844f6c9-Sussanneতবে কি সমঝোতার পথে হাঁটতে যাচ্ছেন বলিউডের একসময়ের অন্যতম সুখী দম্পতি হিসেবে বিবেচিত হৃতিক রোশন ও সুজান রোশন! অন্তত এমন চেষ্টাই করছেন হৃতিকের বাবা রাকেশ রোশন ও সুজানের বাবা সঞ্জয় খান।

বলিউডে বেশ কিছুদিন ধরেই হৃতিক রোশন ও সুজান রোশনের দাম্পত্য জীবনের টানাপোড়েনের গুঞ্জন চলছিল। শুরুর দিকে এসব গুঞ্জনকে অস্বীকার করেছিলেন ‘কৃশ’ তারকা হৃতিক। অবশেষে গত বছরের ১৩ ডিসেম্বর বিচ্ছেদের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের কথা নিশ্চিত করেন হৃতিক।

হৃতিক তাঁর বাবা-মায়ের সঙ্গে জুহুতে থাকছেন। আর দুই ছেলে রিহান ও রিদানকে নিয়ে ভারসোভা এলাকায় ভাড়া করা একটি অ্যাপার্টমেন্ট ভবনে বসবাস করছেন সুজান।

হৃতিক-সুজান তাঁদের ১৩ বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতি টানার সিদ্ধান্ত নিলেও এই জুটির পরিবারের সদস্যরা মনেপ্রাণে চাইছেন, বিবাদ মিটিয়ে আবার নতুনভাবে সংসারজীবন শুরু করুক হৃতিক-সুজান। সম্প্রতি এই জুটির মধ্যে সমঝোতার উদ্যোগ নেন রাকেশ রোশন ও সঞ্জয় খান। তাঁরা সুজানের সঙ্গে দেখা করে তাঁকে বিয়ে টিকিয়ে রাখার জন্য আরেকবার চেষ্টা করতে বলেন।

এই প্রস্তাবে সুজানের প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে এখন পর্যন্ত কিছুই জানা যায়নি। সম্প্রতি এক খবরে এমনটিই জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

২০০০ সালের জানুয়ারিতে ‘কহো না পেয়ার হ্যায়’ ছবির মাধ্যমে বলিউডে পা রেখেছিলেন হৃতিক। তিনি একই বছরের ২০ ডিসেম্বর বলিউডের বর্ষীয়ান অভিনেতা ও নির্মাতা সঞ্জয় খানের মেয়ে সুজানের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন। কয়েক বছর চুটিয়ে প্রেম করার পরই বিয়ে করেছিলেন হৃতিক-সুজান। ২০০৬ সালে তাঁদের ঘরে আসে প্রথম ছেলে রিহান। দুই বছর পর তাঁদের দ্বিতীয় ছেলে রিদানের জন্ম হয়।


হৃতিক-সুজানের সম্পর্কে টানাপোড়েনের খবর প্রথম চাউর হয় গত বছরের সেপ্টেম্বরে। হৃতিকের বাবা রাকেশ রোশনের জন্মদিনের অনুষ্ঠানে সুজান তাঁর বাবা-মা ও ভাইয়ের সঙ্গে অতিথি হিসেবে হাজির হন। শুধু তা-ই নয়, বেশ দেরিতে অনুষ্ঠানে যোগ দিলেও মাত্র আধঘণ্টা পরেই সেখান থেকে চলে যান সুজান। তাঁর এমন সংক্ষিপ্ত উপস্থিতি ও হঠাত্ চলে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে নানা কানাঘুষা ওঠে।

শুরুর দিকে দাম্পত্য জীবনের টানাপোড়েনের খবরকে গুজব দাবি করলেও গত ১৩ ডিসেম্বর এক বিবৃতির মাধ্যমে হৃতিক জানান, ‘১৭ বছরের সম্পর্কের ইতি টেনে আমার কাছ থেকে আলাদা হয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সুজান। আমার পুরো পরিবার কঠিন এক সময় পার করছে।’

হৃতিক আরও বলেন, ‘আমি কোনোভাবেই চাই না, আমাদের বিচ্ছেদের খবরে আমার ভক্ত কিংবা মানুষদের মধ্যে বিয়ে প্রথা নিয়ে বিরূপ মনোভাবের সৃষ্টি হোক। বিয়ে প্রতিষ্ঠানটির ওপর আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে। আমি এ প্রতিষ্ঠানটিকে সর্বোচ্চ সম্মান ও শ্রদ্ধার চোখে দেখি।’


বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তের কথা জানালেও, এর পেছনের কারণ সম্পর্কে হৃতিক কিংবা সুজান কেউই স্পষ্ট করে কিছু বলেননি। বিচ্ছেদের কারণ জানতে চাইলে সুজানের ভাষ্য ছিল, ‘অনেক সময় কোনো কারণ ছাড়াই অনেক কিছু ঘটে যায়। পরিস্থিতিই মানুষকে বাধ্য করে অপ্রত্যাশিত কোনো সিদ্ধান্ত নিতে। বিচ্ছেদের কারণ নিয়ে আমি স্পষ্ট করে কিছু বলতে চাই না। কারণ আমি নিজেও একজন মা এবং মেয়ে।’


হৃতিক ও সুজান কেউই তাঁদের বিচ্ছেদের মূল কারণ না জানালেও বলিউডে জোর গুঞ্জন, ক্যাটরিনা কাইফের সঙ্গে হৃতিকের ঘনিষ্ঠতা আর সুজানের সঙ্গে অর্জুন রামপালের ঘনিষ্ঠতার কারণে ভেঙেছে হৃতিক-সুজানের সংসার।

এ জাতীয় আরও খবর

দেশে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ঘটে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মিসরে গির্জায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৪১

ফাঁস হওয়া গোপন ভিডিও নিয়ে যা বললেন অঞ্জলি

‘বালুখেকো’ সেলিমকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

পাখির আঘাতে বিকল লন্ডনগামী বিমানের ফ্লাইট

বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওয়েতে বাসের ধাক্কায় নিহত ২

বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত বুয়েট শিক্ষার্থীরা

বুয়েটের আন্দোলনকারীরা শিবির: জয়

অনুশীলনে গুলিবিদ্ধ বিজিবি সদস্যের মৃত্যু

সরকারি চাকরিজীবীদের নির্বাচনে অংশগ্রহণ বিষয়ে করা রিট খারিজ

বঙ্গবন্ধু হত্যার বড় সুবিধাভোগী জিয়া ও তার পরিবার : তথ্যমন্ত্রী

আপনারা সবাই আমারে খায়া ফেললেন : পররাষ্ট্রমন্ত্রী