মঙ্গলবার, ৯ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ২৫শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

জবির হল উদ্ধারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে : শিক্ষামন্ত্রী

 

ygডেস্ক রিপোর্ট : শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ দখলদারদের অবিলম্বে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোর দখল ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। নইলে সরকার দখলদারদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবেন বলেও তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। ভূমি মন্ত্রণালয়, পূর্ত মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলে এক মাসের মধ্যে হল উদ্ধারের ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আজ বুধবার বেলা দেড়টার দিকে পুরান ঢাকার কবি নজরুল সরকারি কলেজের এক অনুষ্ঠান থেকে বের হওয়ার পথে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা তাকে ঘিরে ধরলে শিক্ষামন্ত্রী এ ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে তিনি ছাত্রদের চলমান আন্দোলনের সাথে সংহতি প্রকাশ করেন।
এদিকে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, ২০০৫ সালে জগন্নাথকে বিশ্ববিদ্যালয় করার পর ২৭(৪) ধারার মাধ্যমে এটিকে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় করার চক্রান্ত হয়েছিল। বর্তমান সরকার সেই কারো ধারাকে বাদ দিয়ে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মান সমুন্নত রেখেছে। ছাত্র হল নির্মাণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে ১শ কোটি টাকা দিয়েছে। আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে ছাত্রী হল নির্মাণ এবং একাডেমিক ২০ তলা ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে। কেরানিগঞ্জে বিশ্ববিদ্যালয় সম্প্রসারণে জমি ক্রয় সংক্রান্ত প্রস্তাব করা হয়েছে। সরকারিভাবেও চেষ্টা করা হবে জমি অধিগ্রহণে।
অন্যদিকে শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসে শিক্ষার্থীরা আজ বুধবারের জন্য আন্দোলন স্থগিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে গেছেন। আগামীকাল বৃহস্পতিবার আন্দোলন চলবে কিনা তা এখনো জানানো হয়নি। তবে এর আগে আজ দুপুর ১২টার দিকে শিক্ষার্থীদের ওই এলাকায় সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বর্তমান ঢাকা-১৮ আসনের সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের গাড়ি ছাত্ররা আটকে দেয়। এসময় তিনিও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের হল পুনরুদ্ধারের দাবি সম্বলিত প্রস্তাব সংসদে উত্থাপন করবেন বলে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করেন। সাবেক এ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোট দিতে ওই সড়ক দিয়েই আদালত পাড়ায় যাচ্ছিলেন। কিন্তু সকাল ১১টা থেকে শিক্ষার্থীরা বাহাদুর শাহ পার্কের সামনের রাস্তায় সড়ক অবরোধ করে রাখে। পরে তারা সেখান থেকে পুরনো ঢাকার রায়সাহেব বাজার মোড়ে অবস্থান নেয়। এতে ওই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।