রবিবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দুঃখপ্রকাশ করলেন ওজিল

5307114ed8630-Ozil_Imageআর্সেনালের মধ্যমণি হয়ে উঠতে খুব বেশি সময় লাগেনি মেসুত ওজিলের। এবারের মৌসুমের শুরুতে আর্সেনালে যোগ দেওয়ার পর অল্প সময়ের মধ্যেই হয়ে গেছেন দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়।। গানাররাও এবারের মৌসুমে শিরোপাখরা কাটানোর স্বপ্ন দেখছে ওজিলের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ভর করে। কিন্তু বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে যে কাণ্ডটি ঘটেছে, সেটা যেন খলনায়কই বানিয়ে ফেলেছে ওজিলকে। জার্মান এই মিডফিল্ডার নিজেও ভুলতে পারছেন না ২-০ গোলে হারের স্মৃতি। খেলার শুরুতে তিনি পেনাল্টিটা মিস না করলে যে অন্যরকমই হতে পারত ম্যাচের ফলাফল। শোক কাটানোর জন্যই হয়তো সমর্থকদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করেছেন ওজিল।



বায়ার্নের বিপক্ষে শেষ ষোলোর প্রথম লেগের লড়াইয়ের শুরুটা দাপুটে ভঙ্গিতেই করেছিল আর্সেনাল। আট মিনিটে পেনাল্টি আদায় করে নিয়েছিলেন ওজিল নিজেই। কিন্তু সেই দলকে এগিয়ে নেওয়ার মোক্ষম সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি এই জার্মান ফুটবলার। ওজিলের শটটা ফিরিয়ে দিয়েছিলেন তাঁরই স্কুলজীবনের বন্ধু ও জাতীয় দল সতীর্থ ম্যানুয়েল নয়্যার। পরে ৩৭ মিনিটের মাথায় আর্সেনাল গোলরক্ষক শেজনি লাল কার্ড দেখার পরেই ম্যাচটা হাতছাড়া হয়ে যায় আর্সেনালের। কিন্তু পেনাল্টি মিসের জন্য সমালোচিত হতেই হচ্ছে ওজিলকে। হয়তো হারটা জার্মান ক্লাবের বিপক্ষে বলেই সমালোচনার তির আরও তীব্রভাবে বিদ্ধ করছে তাঁকে। সমর্থকদের কাছে দুঃখপ্রকাশ করেই এখন কিছুটা জ্বালা জুড়াতে চাইছেন ওজিল। নিজের ফেসবুক পেজে তিনি লিখেছেন, ‘পরের দিন সকালেও ভালো লাগছে না। আমি দুঃখিত। এভাবে সবকিছু হবে সেটা ভাবা যায়নি। ১০ জনের দলে পরিণত হয়ে জেতাটা খুবই কঠিন ছিল।’

পেনাল্টি মিসের ঘটনাটাই যে ম্যাচের বাকি সময়ে ওজিলের খেলায় নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে, সেটা পরিষ্কারই বুঝতে পেরেছেন আর্সেনাল কোচ আর্সেন ওয়েঙ্গার, ‘এটা মেসুতে পারফরম্যান্সের ওপর খুব বড় প্রভাব ফেলেছে। ওই ঘটনার পাঁচ-দশ মিনিট পরেও সে নিজের মাথা নাড়াচ্ছিল।’— গোল ডটকম