বৃহস্পতিবার, ১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

একতরফা নির্বাচন আয়োজনের পুরস্কার পাচ্ছেন ইসি কর্মকর্তারা

voteবহুল বিতর্কিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সাফল্যের পুরস্কার হিসেবে পদোন্নতি পাচ্ছেন ইসি সচিবালয় ও মাঠ পর্যায়ের ৪০ কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে ১৮ জন কর্মকর্তাকে উপ-সচিব পদমর্যাদায় এবং ২২ জনকে সিনিয়র সহকারী সচিব পদমর্যাদায় পদোন্নতি চূড়ান্ত করে কমিশন সচিবালয়।

২০ জানুয়ারি নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয়ের বৈঠকে এ পদোন্নতি চূড়ান্ত করা হয়। এর মাধ্যমে দীর্ঘ দিন আটকে থাকা পদোন্নতির জটও খুলতে শুরু করে। ইসি সচিবালয়ে পদোন্নতি প্রাপ্য কর্মকর্তারা দীর্ঘদিন পদোন্নতি না পেলেও দশম জাতীয় নির্বাচন সফল করায় এ পুরস্কার পেতে যাচ্ছেন তারা।

ইসি সূত্র মতে, দীর্ঘ দিন ধরে নানা কারণে অনেক কর্মকর্তার পদোন্নতি হচ্ছিল না। অনেকে ইতোমধ্যে অবসরেও চলে গেছেন। কোনো কোনো কর্মকর্তা চাকরি জীবনের প্রথম পদোন্নতি পাচ্ছেন এখন। যার মধ্যে ১৯৮৬ সালে নিয়োগ পাওয়া কর্মকর্তারাও রয়েছেন।

এ পদোন্নতিকে নির্বাচনী পুরস্কার হিসেবেও দেখছেন অনেকে। নির্বাচনের পূর্বে কর্মকর্তাদের প্রতি অলিখিত নির্দেশ ছিল সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করে নির্বাচন করতে। এমনকি নির্বাচন চলাকালীন সময়ে তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য মহীউদ্দীন খান আলমগীর বলেছিলেন, যারা জীবন বাজি রেখে নির্বাচন করছে তাদের শুধু সরকার বা কমিশন থেকে নয়, আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকেও পুরস্কৃত করা হবে।

কমিশনের একটি সূত্র শীর্ষ কাগজকে জানায়, পদোন্নতির এ ধারাবাহিকতায় প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা থেকে শুরু করে চতুর্থ শ্রেণীর কর্মকর্তাদের পদোন্নতির একটি সিদ্ধান্ত প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

রাজনৈতিক অস্থিরতা ও সহিংসতার মধ্যে কর্মকর্তাদের কাজ করতে হয়েছে ঝুঁকি নিয়ে। অনেকে নানাভাবে হয়রানি ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। এ ধারাবাহিকতা বজায় থাকলে হয়তো এর খারাপ প্রভাব পড়বে উপজেলা নির্বাচনে। তাই নির্বাচনের পরপর কমিশন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা যায়।

তবে মাঠ পর্যায়ে দীর্ঘদিন পদোন্নতির জন্য আন্দোলন করা কর্মকর্তারা অনেকে তাদের আশানুরূপ পদোন্নতি পাননি। জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে অনেককে চলতি দায়িত্ব নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাচনকে সামনে রেখে মাঠ পর্যায়ে দায়িত্ব পালন করা কর্মকর্তাদের নির্বাচনী কাজের ব্যয়ও বৃদ্ধি করা হয়েছে। ইতোমধ্যে কমিশন সভায় এ ব্যয়ের খসড়া চূড়ান্ত করা হয়। এতে খাতওয়ারি অর্থ বরাদ্দের হার বিগত নির্বাচনের চেয়ে দ্বিগুণ বা অনেক ক্ষেত্রে তিন গুণ ও চার গুণ করা হয়েছে। খসড়া বাজেটে দেখা যায়, প্রিজাইডিং কর্মকর্তার সম্মানী এক হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে তিন হাজার টাকা। সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তার সম্মানী সাতশ’ টাকা থেকে দুই হাজার এবং পোলিং অফিসারদের সম্মানী ছয়শ’ টাকা থেকে দেড় হাজার টাকা করা হয়েছে।

এছাড়া সহকারী রিটার্নিং অফিসারের ডাক, ফ্যাক্স ও আপ্যায়ন খরচ ৩৫ হাজার, রিটার্নিং অফিসারের যাতায়াত বাবদ সর্বোচ্চ তিন লাখ টাকা, সহকারী রিটার্নিং অফিসারের যাতায়াত বাবদ সর্বোচ্চ এক লাখ টাকা। জেলা নির্বাচন অফিসারের ডাক, ফ্যাক্স ও আপ্যায়ন বাবদ ৩০ হাজার টাকা, জেলা নির্বাচন অফিসারের যাতায়াত বাবদ ৪০ হাজার টাকা। থানা বা উপজেলা নির্বাচন অফিসারের যাতায়াত বাবদ ২০ হাজার টাকা ধার্য করা হয়। নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওভার টাইম বাবদ প্রতিদিনের জন্য ৪০০, ৩৯৫, ৩৯০ ও ৩৮৫ টাকা হারে বরাদ্দ করা হয়।

তবে এ বিষয়ে ইসি সচিবালয়ের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার মতামত জানতে চাইলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে তিনি শীর্ষ কাগজকে বলেন, পদোন্নতির যোগ্য অনেক কর্মকর্তা দীর্ঘদিন নানা জটিলতায় পদোন্নতি পাননি। এখন তারা পদোন্নতি পেয়েছেন। এটা যেমন কর্মকর্তাদের যোগ্যতার মূল্যায়ন তেমনি বড় নির্বাচন বা জাতীয় নির্বাচনে দায়িত্ব পালন করার জন্য ইসির জনবল তৈরি হল। কারণ, জনবলের সংকটে ইচ্ছা না থাকলেও জেলা প্রশাসকদের রিটার্নিং কর্মকর্তা করতে হতো ইসিকে। এখন এ সমস্যা কিছুটা হলেও ঘুচবে।

বিরোধী দল বিহীন জাতীয় নির্বাচন করতে গিয়ে ইসিকে অনেক কাঠ-খড় পোড়াতে হয়েছে। অনেক কর্মকর্তা আহত হয়েছেন এবং সর্বোচ্চ দু’জন কর্মকর্তা নিহত হয়েছেন। এতে করে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের মধ্যে আতঙ্ক ও ভয় দেখা দিয়েছে। উপজেলা নির্বাচনে এ ধরনের কোনো সহিংসতা হলেও কর্মকর্তারা যাতে দৃঢ় থাকেন সে ব্যবস্থা নিতে কমিশন সজাগ রয়েছে। তাই পদোন্নতি যোগ্যতার প্রাপ্য সম্মান হলেও কর্মকর্তারা তা পাচ্ছেন নির্বাচনী পুরস্কার হিসেবে।

 

শীর্ষ নিউজ ডটকম

শীর্ষ নিউজ ডটকম/

এ জাতীয় আরও খবর

পোল্যান্ডকে উড়িয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা

ফের আর্জেন্টিনার গোল, ২-০ গোলে এগিয়ে আর্জেন্টিনা

পেনাল্টি মিস করলেন মেসি, প্রথমার্ধ গোলশূন্য

পরিবহন ধর্মঘট থাকায় রাতেই মাঠে চলে এসেছেন বিএনপি নেতারা

শাহজালাল বিমানবন্দর : টার্মিনাল এলাকায় যানজট, লাগেজ মাথায় নিয়ে হাঁটছেন বিদেশগামীরা

আপনার শর্ত দেওয়ার দিন শেষ, এখন শর্ত দেবে বিএনপি : গয়েশ্বর

‘আগুন সন্ত্রাসে বিএনপি নয়, আ.লীগই অভ্যস্ত’

আবাহনীকে হারিয়ে ফাইনালে শেখ রাসেল

ষোলো বছরের অপেক্ষা অবসান অস্ট্রেলিয়ার

আন্দোলন দমনে মরিয়া সরকার: ফখরুল

পাকিস্তান প্রেমীদের পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়া হবে: শেখ সেলিম

বিএনপির মঞ্চে ‘হেলমেট বাহিনী’র হামলা, পুলিশ বলছে ‘কোন্দল’