রবিবার, ২৯শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

নর্থ সাউথ স্কুল অব প্রাইমারী গ্র্যাজুয়েশনের উদ্যোগে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ও নবীনবরণে ফানডে অনুষ্ঠিত

Untitled-61নর্থ সাউথ স্কুল অব প্রাইমারী গ্র্যাজুয়েশনের উদ্যোগে মেধাবী শিক্ষার্থীদের সম্মাননা ও নবীনবরণে ফানডে অনুষ্ঠিত হয়েছে শনিবার। স্থানীয় টেংকের পাড়স্থ জাতীয় বীর আব্দুল কুদ্দুস মুক্ত মঞ্চ ময়দানে এ উপলক্ষে ৩ পর্বের অনুষ্ঠানে প্রথম পর্বে ২০১৩ সনের পঞ্চম শ্রেণীর সমাপনী পরীক্ষায় শতভাগ এ প্লাস প্রাপ্ত  নর্থ সাউথ স্কুল অব প্রাইমারী গ্র্যাজুয়েশনের ১৭ জনকে সম্মাননা, দ্বিতীয় পর্বে প্রতিষ্ঠানের নবীনদের বরণ উপলক্ষে প্রি ফাস্ট ইয়ার থেকে ফিফট ইয়ারের শিক্ষার্থীরা ড্রেস ইজ ইউ লাইক প্রতিযোগিতা , ফান ডে  ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হয়েছে। সকালে কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন ভারতের পশ্চিম বঙ্গের বৃক্ষ প্রেমী পর্যটক উজ্জ্বল পাল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী সভাপতি অশোকা ফেলো মোঃ মাতিন আহমেদ অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন জেলা চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি তানজিন আহমেদ, শিক্ষা ব্যক্তিত্ব ব্রাহ্মণবাড়িয়া আইডিয়াল রেসিডেন্সিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আলহাজ্ব সোপানুল ইসলাম সোপান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সহ সভাপতি আল আমীন শাহীন। বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানের হেড অব দ্যা লাণিং এন্ড ডেভোলপমেন্ট মাইনুল ইসলাম, শিক্ষক বিমল চক্রবর্তী, দোয়া পরিচালনা করেন মাওলানা রহমতউল্লাহ।  ফানডেতে প্রতিষ্ঠানের শতাধিক শিক্ষার্তী ও অভিভাবক অংশ নেয়। সবশেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি সৈয়দ মিজানুর রেজা, এ সময়ে অন্যান্যের মধ্যে ছিলেন অধ্যাপক রাফিজ উদ্দিন আহমেদ। উদ্বোধনী পর্বে অতিথির বক্তৃতায় উজ্জ্বল পাল বলেন, আমি বৃক্ষ রোপনের প্রচারে সাইকেল যোগে বাংলাদেশে এসেছি, আমি প্রত্যেককে অন্তত একটি করে গাছের চারা রোপনের আহবান জানাই। তিনি বলেন বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসে অনেক কিছুই শিখে গিয়েছি। বিশেষ করে নতুন প্রজন্মকে যুগোপযোগী করে গড়ে তোলার যে শিক্ষা ব্যবস্থা নর্থ সাউথ স্কুল অব প্রাইমারী গ্র্যাজুয়েশন চালাচ্ছে তা অণুকরনীয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষের আতিথিয়তা আমি ভুলবো না। সমাপনী অনুষ্ঠানে অতিথির বক্তৃতায় প্রেস ক্লাব সভাপতি সৈয়দ মিজানুর রেজা বলেন, উন্নত শিক্ষা ব্যবস্থায় নর্থ সাউথ স্কুলটি দিন দিন তাদের সুনামকে বিস্তৃত করছে। এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা একদিন দেশকে আলোকিত করবে এ ব্যাপারে আমি দৃঢ় আশাবাদী।