বৃহস্পতিবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কাজে ফিরলেন মনীষা

52f20aaf95dcb-manisha-1মরণঘাতী ক্যানসারকে পরাস্ত করে এখন পুরোপুরি সুস্থ নেপালি বংশোদ্ভূত বলিউডের অভিনেত্রী মনীষা কৈরালা। অভিনয় শুরু না করলেও সম্প্রতি একটি ফটোশুটে অংশ নেওয়ার মধ্য দিয়ে কাজে ফিরেছেন ৪৩ বছর বয়সী এ তারকা অভিনেত্রী।



মনীষার ছবিগুলো তুলেছেন ফ্যাশন ফটোগ্রাফার জাকিয়া। ছবিগুলোর জন্য বেশ আবেদনময়ী ভঙ্গিতেই ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছেন মনীষা। ছবিগুলোতে সম্পূর্ণ নতুন এক মনীষাকেই খুঁজে পাবেন তাঁর ভক্তরা। সম্প্রতি এক খবরে এমনটিই জানিয়েছে ওয়ান ইন্ডিয়া।



নিয়মিত শরীরচর্চার মাধ্যমে দারুণ শারীরিক অবয়বে ফিরেছেন মনীষা। এর পুরো কৃতিত্বটাই তিনি দিয়েছেন যোগব্যায়ামচর্চাকে। যোগব্যায়ামের একজন বিশ্বস্ত শিক্ষার্থী হিসেবেও নিজেকে দাবি করেছেন মনীষা। পাশাপাশি ধ্যানও করছেন তিনি।




ক্যানসার থেকে সেরে ওঠার পর আগের চেয়ে অনেক বেশি ধ্যানে মনোনিবেশ করেছেন নেপালের সম্ভ্রান্ত কৈরালা পরিবারের মেয়ে মনীষা। কিগং নামের বিশেষ একধরনের ধ্যানচর্চার কৌশল রপ্ত করতে ঘন ঘন যুক্তরাষ্ট্রও যাচ্ছেন তিনি।   



এ প্রসঙ্গে মনীষার ভাষ্য, ‘কিগং ধ্যানচর্চার জন্য প্রচণ্ড মানসিক ও শারীরিক শক্তির পাশাপাশি মনোযোগকে অনেক বেশি কেন্দ্রীভূত রাখতে হয়। আপাতদৃষ্টিতে অনেক কঠিন মনে হলেও আমার কাছে এটা খেলার মতোই একটি বিষয়। কিগং সম্পর্কে প্রথম যখন শুনলাম, তখন থেকেই এটা রপ্ত করার জন্য আগ্রহী হয়ে উঠেছিলাম। এখন আমি কিগং সম্পর্কে অনেক কিছুই জানি।’



মনীষা আরও বলেন, ধ্যানের মাধ্যমে শরীর ও আত্মার পরিশুদ্ধির পথ বাতলে দেয় কিগং। এটাকে জীবনের চালিকাশক্তি বলা যায়। মহাবিশ্বের সব জায়গায় এটি ছড়িয়ে আছে। কিন্তু তা খুঁজে বের করে ধরার উপায় সাধারণ মানুষের জানা নেই। মনীষা বলেন, ‘আমি কিগং ধ্যানচর্চার ওপর একটি কোর্স করছি, যার মধ্য দিয়ে কিগংয়ের রহস্য ধরতে পারছি। একটি ভারসাম্যপূর্ণ জীবন অর্জনের শিক্ষা দেয় কিগং। পাশাপাশি আত্মার সাম্যাবস্থা অর্জনের পথও দেখায় এটি। বস্তুবাদী ব্যক্তিত্বের লাগাম টেনে ধরার কৌশলও শেখা যায় এই ধ্যানচর্চার মাধ্যমে।’