বৃহস্পতিবার, ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

উপজেলা নির্বাচন-২০১৪ ঘর ঘুছাতে ব্যাস্ত আওয়ামীলীগ ও বিএনপি, নিরব জাতীয় পার্টি

1111এ কে এম ইকবাল আজাদ খুনের প্রভাবে নিস্তেজ ও নিস্ক্রিয় হয়ে পড়েছে সরাইল আওয়ামীলীগ। গত ১৪ মাস ধরে এখানে নেই দলীয় কোন কর্মকান্ড। দুই বলয়ের এ দলটি মাঝে মধ্যে তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে। গত সংসদ নির্বাচনে তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে পড়ে দলটির গ্র“পিং দ্বন্ধ। শান্তিতে নেই স্থানীয় বিএনপিও। তিন বছরের ও অধিক সময় ধরে দলটিতে চলছে গ্র“পিং দ্বন্ধ। সংঘর্ষ সংঘাত ও মামলায় জর্জরিত হয়ে পড়েছে সরাইল বিএনপি। দলীয় ও জাতীয় কর্মসূচীতে দুই গ্র“প থাকে দুই মেরুতে। ২০১৪ সালের উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পর দৌড়ঝাঁপ শুরু হয় প্রধান দুই দলে। এ নির্বাচনে এখনো নিরব রয়েছে স্থানীয় জাতীয় পার্টি। চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগে এক ডজন ও বিএনপিতে ৩/৪ জন প্রার্থীর নাম শুনা যাচ্ছে। টেনশন বেড়ে গেছে দলীয় নেতাদের। সংসদ নির্বাচনে অনুপস্থিত বিএনপি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে জয়লাভের বিষয়ে শতভাগ আশাবাদী। তবে দলীয় কোন্দলই এখন তাদের মূল ফ্যাক্টর। দলীয় নেতা কর্মী ও সমর্থকদের প্রত্যাশা হাইকমান্ড শুধু একজনকে মনোনয়ন দিবেন। স্থানীয় আ’লীগের প্রত্যাশাও তাই। তাই উভয় শিবিরই এখন ঘর ঘুছাতে ব্যাস্ত । সরজমিনে জানা যায়, উপজেলা নির্বাচনের তফসিল ঘোষনার পর দুই দলের প্রার্থীরা ব্যাস্ত হয়ে পড়েছেন। পাড়ায় মহল্লায় দিন রাত চলছে উঠান বৈঠক ও সভা সমাবেশ। দীর্ঘদিন পর জমজম্াট ও প্রতিদ্বন্ধিতাপূর্ণ একটি নির্বাচনে ভোট দেয়ার প্রত্যাশায় দারুন আনন্দে সময় পার করছেন সাধারন ভোটার ও সমর্থকরা। নির্বাচনী আলোচনায় এখন সরব অফিস আদালত হোটেল রেস্তুরা ও চায়ের দোকান। সর্বত্রই প্রার্থীর যোগ্যতা দক্ষতা ও সততা নিয়ে চুল ছিঁড়া বিশ্লেষন করছেন ভোটারা। গত পাঁচ বছর কিছু নেতার শোষন, নিপিড়ন, লাঞ্চনা ও অত্যাচার নির্যাতনের জবাব ব্যালটের মাধ্যমে দেওয়ার ঘোষনা দিচ্ছেন অনেক সাধারন মানুষ। দলীয় মনোনয়ন পেতে কোমর বেঁধে মাঠে ময়দানে লড়ছেন প্রার্থীরা। জেলা এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের আশির্বাদ আদায়ে ছুটাছুটি করছেন তারা।

2222স্থানীয় বিভিন্ন সামাজিক আচার অনুষ্ঠানে উপস্থিতি বেড়ে গেছে প্রার্থীদের। ভোটারদের সাথে কৌশল বিনিময়, করমর্দন, দোয়া ও আপ্যায়নে ব্যাস্ত হয়ে পড়েছেন প্রার্থীরা। সাধারন মানুষকে নিজেদের সমর্থনে ভিড়ানোর কারিশমা চলছে সর্বত্র। উন্নয়ন ও সমস্যা সমাধান করার অঙ্গিকারের প্রতিযোগীতা চলছে গোটা নির্বাচনী এলাকায়। দলীয় একাধিক সূত্র জানায়, ইকবাল আজাদ খুনের পর সরাইল আওয়ামীলীগের এখন ভগ্নদশা। গত এক বছরের ও অধিক সময় ধরে তৃণমূলের নেতা কর্মীরা হয়ে আছে ছিন্নভিন্ন। গত সংসদ নির্বাচনে দলের একটি বলয় কাজ করেছে জাতীয় পার্টির প্রার্থীর পক্ষে অপর আরেকটি গ্র“পের নেতা কর্মীরা লড়াই করেছেন নির্দলীয় প্রার্থীর পক্ষে। এ ছাড়া দলটির উপজেলা কমিটি নিয়ে ও চলছে নানান হিসাব-নিকাশ। অগোছালো আওয়ামীলীগ উপজেলা নির্বাচনে এক হয়ে কাজ করবে এমনটি বিশ্বাস করতে নারাজ দলের তৃণমূল নেতা কর্মীরা। ইতিমধ্যে দলের একটি গ্র“প স্থানীয় বিএনপি’র একটি অংশের সাথে গোপনে মিটিং করে চলেছেন। সব মিলিয়ে আ’লীগের সাধারন ও নিরব ভোটাররা অনেকটা হতাশ। অপরদিকে ১৮ দলীয় জোটে মূলতঃ বিএনপি’র দু’গ্র“পে রয়েছে দ্বন্ধ। উপজেলা বিএনপি’র কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করেই তৈরী হয়েছে দুইটি বলয়। আহবায়ক কমিটি দিয়েই চলছে চার বছর। তারা দলীয় চেয়ারম্যান চায় তবে সেটা হতে হবে নিজেদের গ্র“পের। তাই একক প্রার্থী সিলেকশনে বেকায়দায় পড়েছে দলের জেলা পর্যায়ের নেতারা। শেষ পর্যন্ত দুই গ্র“প থেকে বিএনপি’র দুইজন প্রার্থী মাঠে লড়বে এমনটি বলছেন দলীয় অনেক নেতা। উপজেলা নির্বাচনে দলীয় কোন্দলই কাল হতে পারে স্থানীয় বিএনপি’র এমন মন্তব্য দলের সাধারন সমর্থকদের। শেষ পর্যন্ত একক প্রার্থী বাছাইয়ে ব্যর্থ হতে পারে বড় দুইদল। একাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী মাঠে লড়ার বিষয়টি উড়িয়ে দেননি দলের একাধিক নেতা। উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, নয় ইউনিয়নের সমন্বয়ে গড়া সরাইল উপজেলার মোট ভোট সংখ্যা ১ লাখ ৮৭ হাজার ১২৯। মোট ভোটারের মধ্যে ৯৫ হাজার ২’শ ৬ জন পুরুষ ও ৯১ হাজার ৯’শ ২৩ জন মহিলা। আগামী ২ ফেব্র“য়ারী পর্যন্ত চলবে মনোনয়ন ক্রয় ও জমা। ৪ ফেব্র“য়ারী শেষ হবে বাছাই। আর প্রত্যাহারের শেষ সময় ১১ ফেব্র“য়ারী। ২৭ ফেব্র“য়ারী সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলবে ভোট গ্রহন। গত নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করেছিলেন ১৩ জন। উপজেলা আওয়ামীলীগের তৎকালীন সাধারন সম্পাদক রফিক উদ্দিন ঠাকুর ৩৫ হাজার ৫’শ ৩২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছিলেন। এবারও তিনি প্রার্থী। এছাড়া ও চেয়ারম্যান পদে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন- জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক মোঃ মাহবুবুল বারী মন্টু, সরাইল উপজেলা আ’লীগের সহ সভাপতি এ্যাডভোকেট আবদুর রাশেদ, উপজেলা আ’লীগের সদস্য ও বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহজাহান মিয়া, আ’লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি  প্রয়াত এ কে এম ইকবাল আজাদের ছোট ভাই প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আজাদ, যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক এ্যাডভোকেট মোঃ আশরাফ উদ্দিন মন্তু, উপজেলা আ’লীগের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা মোঃ কুতুব উদ্দিন ভূঁইয়া, এ্যাডভোকেট মোঃ মুখলেছুর রহমান। ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে মোঃ শের আলম মিয়া, কালিকচ্ছ ইউপি আ’লীগের সম্পাদক মোঃ মজিবুর রহমান ও ভাইস চেয়ারম্যন (মহিলা) পদে বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও যুব মহিলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মাহমুদা পারভীন ও উপজেলা মহিলা আ’লীগের সভাপতি মোছাঃ রোকেয়া বেগম। চেয়ারম্যান পদে ১৮ দলীয় জোটের প্রার্থীরা হলেন- সরাইল উপজেলা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি, বর্তমান যুগ্ম আহবায়ক ও ২০০৯ সালের নির্বাচনে আ’লীগের প্রার্থীর কাছে ৩ হাজার ৪’শ ৪৯ ভোটে পরাজিত এ্যাডভোকেট আবদুর রহমান, সাবেক সম্পাদক ও বর্তমান যুগ্ম আহবায়ক মোঃ আনিছুল ইসলাম ঠাকুর, মোঃ আনোয়ার হোসেন মাষ্টার, মোঃ তাজুল ইসলাম ভূঁইয়া, উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা কুতুব উদ্দিন ও ইসলামী ঐক্যজোট নেতা মোঃ আজিজুল হক। ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে বিএনপি নেতা মোঃ ইসহাক, ইসলামী ঐক্যজোটের মোঃ লাল বাদশা ও মহিলা মোছাঃ তাহমিনা বেগম। স্বতন্ত্র প্রার্থী ন্যাশনাল লাইফ ইনস্যুরেন্স কোঃ লিঃ এর জেলা সমন্বয়কারী মোঃ সেলিম আহমেদ। নাগরিক কমিটির ব্যানারে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হয়েছেন মোঃ সামছুল আরেফিন,আ’লীগ নেতা মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু বলেন, দলের হাইকমান্ড যেভাবে মনোনয়ন ও নির্দেশনা দিবে আমি সেই ভাবে কাজ করব।

 

এ জাতীয় আরও খবর

যাত্রী বেশি হলে বিমানবন্দরে ল্যাব বাড়ানো হবে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনায় আরও ৩ মৃত্যু, শনাক্ত ২৬১

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চাইল সেই ব্যাংক

মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সে বোমা আতঙ্ক, যেভাবে চলে অভিযান

মেয়র জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে এবার নওগাঁর আদালতে মামলা

আমিনবাজারে ৬ ছাত্র হত্যা : ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ১৯ জনের যাবজ্জীবন

ওমিক্রন আতঙ্কে ভারত : ঝুঁকিপূর্ণ দেশের তালিকায় আবারও বাংলাদেশ

সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকবে, লঘুচাপটি শক্তিশালী হচ্ছে

নিয়ম ভেঙে তুলে নেওয়া হয় ৩৬৮৭ কোটি টাকা

এইচএসসিতে বসেছে প্রায় ১৪ লাখ শিক্ষার্থী

৬ ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা : ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

কথা দিয়ে কথা রাখুন : কাদের